ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ১১ আগস্ট ২০২০, ২০ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেললাইন স্থাপন শুরু

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৩ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০২০
চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেললাইন স্থাপন শুরু

নীলফামারী: ভারতের হলদিবাড়ির সঙ্গে বাংলাদেশের নীলফামারীর চিলাহাটির জিরো পয়েন্ট ডাঙ্গাপাড়ায় রেললাইন বসানোর কাজ শুরু করা হয়েছে।

রেললাইন বসানোর কাজ শেষ হলে এই রেলপথে ভারতের হলদিবাড়ি হয়ে দার্জিলিংয়ের শিলিগুড়ির সঙ্গে ঢাকা ও মংলা বন্দরের সরাসরি রেলপথ সংযোগ হবে।

শুক্রবার (১০ জুলাই) সকালে বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলীয় মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মিহির কান্তি গুহ্ চিলাহাটি রেলওয়ে স্টেশনসহ ওই কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন ও উপস্থিত কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

 

এসময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন- পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের প্রধান প্রকৌশলী আল-ফাত্তাহ মো. মাসউদুর রহমান, বিভাগীয় প্রধান যন্ত্র প্রকৌশলী মনতাজুল ইসলাম, মেকানিক্যাল প্রধান কুদরত-ই খুদা, প্রধান পরিবহন কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম, পাকশী বিভাগী রেলওয়ের প্রকৌশলী-২ আব্দুর রহীম ও ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ম্যাক্সয়ের প্রকল্প পরিচালক রোকনুজ্জামান শিহাবসহ চিলাহাটি রেলওয়ে স্টশনের স্টাফরা।

জিএম মিহির কান্তি গুহ্ উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, চলতি জুন মাসের মধ্যে ওই নির্মাণ কাজ সমাপ্তের কথা ছিল। কিন্তু গত ২৬ মার্চ থেকে করোনার কারণে লকডাউন শুরু হয়। ফলে নির্মাণ কাজ বন্ধ হয়ে গেলে জুন মাসের মধ্যে ওই কাজ সমাপ্ত করা সম্ভব হয়নি। লকডাউন খুলে যাওয়ায় পুনরায় নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়েছে। এখন ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ করা হবে। নির্মাণ কাজ শেষ হলেই প্রায় ৫৫ বছর পর বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথ আবারও চালু হবে।  

তিনি এ পথের অবৈধ বসবাসকারীদের জায়গা ছেড়ে দেওয়ার আহ্বানও জানান।  

রেলওয়ে সূত্র জানা যায়, এই কাজের জন্য বাংলাদেশ অংশে ৮০ কোটি ১৬ লাখ ৯৪ হাজার টাকা ব্যয় হচ্ছে। ভারতের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশ রেলওয়ে চিলাহাটি থেকে ভারতের সীমান্ত পর্যন্ত ৬ দশমিক ৭২৪ কিলোমিটার রেলপথ বসানো হচ্ছে। এছাড়া বসানো হবে ২ দশমিক ৩৬ কিলোমিটার লুপ লাইনসহ মোট ৯ দশমিক ৩৬ কিলোমিটার।

অন্যদিকে, ভারতের হলদিবাড়ি থেকে সীমান্ত পর্যন্ত ৬ দশমিক ৫ কিলোমিটার রেলপথ স্থাপনের কাজ ইতোমধ্যে শেষ করেছে ভারতীয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এখন ভারতের নোম্যান্সল্যান্ড এলাকায় রেললিংক স্থাপন করবে।

২০১৯ সালের ২১ সেপ্টেম্বর ওই রেলপথ বাংলাদেশের অংশের স্থাপনের কাজের উদ্ধোধন করেছিলেন রেলপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০০ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০২০
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জাতীয় এর সর্বশেষ

Alexa