চাঁদপুরে করোনা উপসর্গে ১২ ঘণ্টায় নারীসহ ৫ জনের মৃত্যু

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

জানাজা পড়ানো হচ্ছে। ছবি: বাংলানিউজ

walton

চাঁদপুর: চাঁদপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে ১২ ঘন্টার ব্যবধানে এক নারী, পল্লী চিকিৎসকসহ পাঁচ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। 

হাসপাতাল, মৃত ব্যক্তির স্বজন ও স্থানীয় নির্ভরযোগ্য তথ্যে জানা গেছে, মঙ্গলবার (২ জুন)দিনগত রাত সাড়ে ১২টায় সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক পল্লী চিকিৎসক (৬০), রাত ২টায় সদর উপজেলার কল্যান্দী গ্রামের এক ব্যক্তি (৭০) ও  বুধবার (৩ জুন) সকালে একই গ্রামের এক নারী (৩৪) মৃত্যুবরণ করেন। 

অপরিদকে করোনা উপসর্গ নিয়ে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় হাজীগঞ্জ উপজেলার হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নের বলিয়া গ্রামের (৭০) এক বৃদ্ধ, বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় হাজীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী ও একই গ্রামের এক বাসিন্দা (৬০) মৃত্যুবরণ করেছেন।

হাজীগঞ্জের বলিয়া গ্রামের মৃত এক ব্যক্তির ছেলে বাংলানিউজকে বলেন, তার বাবা কয়েকদিন ধরে জ্বর, সর্দি, কাশিসহ আরো নানান রোগে ভুগছিলেন। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তিনি মার যান। এলাকার কোনো লোকই আমাদের সহযোগিতা করেনি বরং সবাই পালিয়ে যায়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফাজাল হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করি। তিনি নিজেই এসে উপজেলা দাফন কাফন কমিটির সহযোগিতায় বুধবার (৩ জুন) সকাল সাড়ে ৭টায় দাফন সম্পন্ন করি।

এদিকে বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় মৃত্যুবরণ করেন একই গ্রামের বাসিন্দা হাজীগঞ্জ বাজারের এক ব্যবসায়ী। তাকেও ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের টিম নামাজে জানাজা ও দাফনের ব্যবস্থা করে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাজীগঞ্জ সার্কেল) আফজাল হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, হাজীগঞ্জের বলিয়ার মজিবুর রহমানের মরদেহ রাতে বাড়িতে পড়ে থাকলেও এলাকার কোনো জনপ্রতিনিধি এগিয়ে আসেনি। ভোরে আমি নিজে গিয়ে তাদের ফোন করি তবুও তারা আসেনি। পরবর্তীতে রিপোর্ট করার কথা বললে তারা এগিয়ে আসে। 

তিনি আরও বলেন, যারা মৃত্যুবরণ করেন, তাদের দাফন কাফনে এগিয়ে আসা সামাজিকভাবে সবার দায়িত্ব। অবহেলা করে দূরে থাকা অন্যদের দাফন কাফনে আসতে বারণ করা এটা সমাজের প্রতি একটি অনিহা। এদের সামাজিকভাবে চিহ্নিত করতে হবে।

এছাড়া মঙ্গলবার দিনগত রাত সাড়ে ১২টায় চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হওয়ার পর মৃত্যুবরণ করেছেন সদর উপজেলার বাগাদী ইউনিয়নের পশ্চিম বাগাদী গ্রামের এক ব্যক্তি (৬০)।

স্থানীয় ঢালীর ঘাট বাজারের ওষুধ ব্যবসায়ী আলাউদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, শুনেছি তিনি রাতেই হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। রাতেই তার মরদেহ বাড়িতে নিয়ে আসা হয়েছে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। তিনি ঢালীর ঘাট বাজারে নিজ ফার্মেসিতে নিয়মিত রোগী দেখতেন। এছাড়াও তিনি দীর্ঘদিন বাগাদী ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক জানান, সদর উপজেলার কল্যাণপুর ইউনিয়নের কল্যান্দী গ্রামের এক ব্যক্তি মঙ্গলবার দিনগত রাতে হাসপাতালে ভর্তি হন। রাত ২টায় তিনি মারা যান। একই গ্রামের এক নারী বুধবার সকালে আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি হন। ভর্তি হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তাদের উভয়ের করোনা নমুনা পরীক্ষা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফন করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪০ ঘণ্টা, জুন ০৩, ২০২০
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: চাঁদপুর
Nagad
ব্যবসায়ীর অর্ধগলিত মরদেহ: একজনের স্বীকারোক্তি
সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কের শোক
এটিএম কার্ড সংকটে গ্রাহকের ভোগান্তি
রাজশাহী ফিরেছেন এন্ড্রু কিশোরের মেয়ে
সাতক্ষীরায় করোনা রোগীসহ ২ জনের মৃত্যু


নগরের দৃষ্টিনন্দন স্থাপনায় পরিণত হবে সনদ দত্ত মহাশশ্মান
দিনে উন্মুক্ত স্থানে বর্জ্য না ফেলতে তাপসের অনুরোধ
তিনটি করে গাছ লাগানোর নির্দেশ নিবন্ধন অধিদপ্তরের
ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযান, ৫ লাখ ৬৯ হাজার টাকা জরিমানা
চলন্ত ট্রেনে ব্যাগ-ল্যাপটপ বদল, ৯৯৯-এ ফোন করে উদ্ধার