এখনও ঢাকামুখী মানুষ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: শাকিল আহমেদ

walton

ঢাকা: দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এখনও ঢাকায় ফিরছে মানুষ। ফিরতি পথে নানা কসরত করে তবেই ঢুকতে হচ্ছে রাজধানী শহরে। এখনও গণপরিবহন চালু না হওয়ায় রোববারও (৩১ মে) দেশের নদীপথগুলোতে ছিল যাত্রীস্রোত।

বিভিন্ন নদীপথ থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, লঞ্চ চালু হলেও স্বাস্থ্যবিধির কারণে সেখানে যাত্রী সংখ্যা অর্ধেকে নেমে এসেছে। ফলে ঢাকামুখী মানুষের ভিড় এখনও ফেরিতে। সেখানে দাঁড়িয়ে কোনো প্রকার শারীরিক দূরত্ব না মেনেই নদী পাড়ি দিচ্ছেন তারা।

নদীপথ পাড়ি দিলেও ঘাটে এসে চরম ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে অনেককে। গণপরিবহন চালু না থাকায় বিভিন্ন ছোট যানবাহনে তারা রওনা হচ্ছেন গন্তব্যে। সে সঙ্গে বারবার গাড়িও বদল করতে হচ্ছে তাদের। এর উপর বাড়তি ভাড়া তো রয়েছেই।

ছবি: শাকিল আহমেদপাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুট পার হয়ে ঈদে ঘরমুখো দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষ জীবিকার তাগিদে পুনরায় ছুটতে শুরু করেছে রাজধানী ঢাকার উদ্দেশে। গণপরিবহন বন্ধ থাকায় কোনোমতে নদী পার হয়ে পাটুরিয়া থেকে প্রাইভেট কার বা যে কোনো যানবাহনে কর্মস্থলে যোগ দিতে ছুটছে নিম্নবিত্ত, নিম্ন-মধ্যবিত্ত থেকে শুরু করে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। নিয়মিত গণপরিবহনের চেয়ে এসব যানবাহন কয়েক গুণ বেশি ভাড়া নিলেও তা দিতে বাধ্য হচ্ছে মানুষ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পাটুরিয়া ঘাটে ফেরি নোঙ্গরের পর যাত্রীরা পন্টুনের ওপর উঠতে না উঠতেই নবীনগর ৪শ’, গাবতলি ৫শ’, যেখানেই নামেন ৪শ’ স্লোগান তুলে প্রাইভেটকার ও হায়েস চালকরা যাত্রীদের ডাকছেন। উপচে পড়া মানুষের ঢলে যাত্রীরা ভাড়া নিয়ে দরদামেরও সুযোগ পাচ্ছেন না। তাদের একটাই লক্ষ্য, ভাড়া যাই হোক কর্মস্থলে পৌঁছাতে হবে।

ফরিদপুর থেকে ঢাকাগামী যাত্রী মজিবুর রহমানের কাছে যাত্রাপথের অভিজ্ঞতা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘পরিবার-পরিজন নিয়ে কীভাবে যাবো সেটাই ভাবছিলাম, পাটুরিয়া ঘাটে এসে ভালো লাগছে, ফেরি থেকে নামার সঙ্গে সঙ্গে ভাড়ায় চালিত প্রাইভেট কার পেলাম, তবে ভাড়া অনেকটাই বেশি। কিছু করার নেই। তারপরও করোনা সংক্রমণের মধ্যে পরিবার নিয়ে প্রাইভেট কারে যাওয়াই আমি উত্তম মনে করছি।’

ছবি: শাকিল আহমেদভাড়া বেশি নেওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে পাটুরিয়া ঘাটের ৩ নম্বর পন্টুনে অপেক্ষারত প্রাইভেটকারের চালক জুলহাস বলেন, ‘যাত্রী নিয়ে ঘাট থেকে নবীনগর ও গাবতলীতে ট্রিপ দিচ্ছি। ৪শ’ টাকা নবীনগর আর গাবতলীর ভাড়া ৫শ’ টাকা। ভাড়াটা একটু বেশিই নিচ্ছি, কারণ ঢাকা থেকে আবার খালি আসতে হয়।’

ঢাকামুখী মানুষের ভিড়ে যানবাহনের চাপ বেশি উল্লেখ করে গোলড়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, ‘কাল থেকে অফিস-আদালত খোলা, সে জন্য ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে যানবাহনের চাপ কিছুটা বেশি, তবে সন্ধ্যার পর থেকে এ চাপ কিছুটা কমতে পারে।’

বাংলাদেশ সময় ১৫৪২ ঘণ্টা, মে ৩১, ২০২০
ডিএন/এমএইচএম    

Nagad
সাংবাদিক লাবলুকে হারানোর এক বছর
সিলেটে দুই চিকিৎসকসহ করোনায় আক্রান্ত আরো ৭৪ জন
রাজধানীতে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যুবক নিহত
দুই বন্ধুকে পোড়াচ্ছে এন্ড্রু কিশোরের ফেলে যাওয়া স্মৃতি
ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে সক্রিয় জালনোট প্রতারক চক্র


সিঙ্গাপুর থেকে ফিরলেন আটকে পড়া ১৬২ বাংলাদেশি
 হেফাজতের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না: আল্লামা শফী
জার্মান বিনিয়োগকারীদের গুরুত্বপূর্ণ গন্তব্য হবে বাংলাদেশ
স্বাস্থ্যসুরক্ষায় ডিআরইউর নতুন সংযোজন অক্সিজেন কনসেনট্রেটর
নোয়াখালীতে করোনায় আরো একজনের মৃত্যু, মোট ৫৩