php glass

উপকূলের ৪শ কিমির মধ্যে ‘বুলবুল’, বাতাসের গতি ১৫০ কিমি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বুলবুল এর গতিপথ

walton

ঢাকা: বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ উপকূলের ৪শ কিলোমিটারের মধ্যে প্রবেশ করেছে। ঘূর্ণিঝড়টি একই গতিপথ দিয়ে অগ্রসর হচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়ের কারণে আগের সংকেত শনিবার (৯ নভেম্বর) সকালেও বহাল রাখা হয়েছে। 

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন সকাল ৭টায় বাংলানিউজকে বলেন, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের খুলনা উপকূলের (সুন্দরবনের কাছ দিয়ে) দিকেই অগ্রসর হচ্ছে। এজন্য আগের ৭ নম্বর বিপদ সংকেত বহাল থাকবে। ঘূর্ণিঝড়টির গতিবিধি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। 

আবহাওয়ার বিশেষ বুলেটিনে বলা হয়, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ আরও উত্তর দিকে অগ্রসর ও ঘণীভূত হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়টি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে শনিবার সন্ধ্যা নাগাদ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ-খুলনা উপকূল (সুন্দরবনের কাছ দিয়ে) অতিক্রম করতে পারে।

আরও পড়ুন>>>মুখ খুলনা-সুন্দরবনে, সন্ধ্যায় আঘাত হানতে পারে ‘বুলবুল’ 

শনিবার (৯ নভেম্বর) ভোর ৩টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৫৪৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৫২০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৩৮০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৩৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল।

‘বুলবুল’ এর অগ্রবর্তী অংশের প্রভাবে সমুদ্র বন্দরসমূহ, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় ভোর থেকে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৭৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ১৩০ কিলোমিটার যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ১৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের কাছে সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে।

মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরসমূহে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত বহাল রয়েছে। উপকূলীয় জেলা ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ৭ নম্বর বিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরকে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত রাখা হয়েছে। উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ৬ নম্বর বিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে। কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় ও মুন ফেজ এর প্রভাবে উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, বরগুনা, ভোলা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৫-৭ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৭৩০ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৯, ২০১৯
এমআইএইচ/এএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ঘূর্ণিঝড় বুলবুল
পাসপোর্ট করাতে এসে গ্রেফতার রোহিঙ্গা রিমান্ডে
২০২০ সালে বেরোবিতে ১ম সমাবর্তন
চবি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রথম পুনর্মিলনী বৃহস্পতিবার
‘পেঁয়াজসহ নিত্যপণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে সরকার ব্যর্থ’
রেলক্রসিং-ফ্লাইওভারের কাছ থেকে সরানো হলো শতাধিক দোকান


বরিশালে করমেলায় ৮ কোটি ৯০ লাখ টাকা আদায়
সিলেটের করমেলায় আদায় ৪৫ কোটি ৭৮ লাখ টাকা 
পূবালী ব্যাংকের এটিএমে চুরির ঘটনায় ২ মামলা
ট্রলার-স্পিডবোট সংঘর্ষে আহত মাদারীপুর জেলা জজ
রংপুরে পাঁচ নারীকে জয়িতা সম্মাননা