php glass

ব্যস্ত ঢাক-ঢোল কারিগররা, হারিয়ে যাচ্ছে দেশজ সুর

জয়ন্ত জোয়াদ্দার, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ব্যস্ত ঢাক-ঢোল কারিগররা, হারিয়ে যাচ্ছে দেশজ সুর। ছবি: বাংলানিউজ

walton

মাগুরা: দরজায় কড়া নাড়ছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। মণ্ডপে মণ্ডপে বাদ্যযন্ত্র, ঢাক-ঢোলের শব্দ আর ধূপের গন্ধে মেতে উঠবেন হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা।

দুর্গা পূজাকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন মাগুরার ১০টি প্রতিষ্ঠানের বাদ্যযন্ত্র কারিগররা। এক সময় মাগুরাতে প্রায় ১৫টির বেশি প্রতিষ্ঠান থাকলেও এখন মাত্র ১০টি প্রতিষ্ঠান টিকে রয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মালিক ও কারিগররা ঐতিহ্য ধরে রেখে তাদের পূর্ব পুরুষের পেশা টিকিয়ে রাখার চেষ্টা করছেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শহরের নতুন বাজার, জামরুল তলা রোডের তবলা বিতান, সুর তরঙ্গ ও যতীন বাদ্য বিতানসহ  প্রতিটি বাদ্যযন্ত্র তৈরির দোকানে ঢাক-ঢোল তৈরিতে ব্যস্ত কারিগররা। দম ফেলার ফুরসত নেই কারোর। কাঠের খুটখাট শব্দে মুখর দোকানগুলো। ঢাক-ঢোলের জন্য খোল তৈরি, রং করা, চামড়া লাগানো এবং মেরামতে ব্যস্ত বেশিরভাগ কারিগররা।

ঢাক-ঢোল তৈরির কারিগররা জানান, পূজাতে ঢাক-ঢোলের বাজনা অপরিহার্য। কারণ হিন্দুশাস্ত্রেও এর ব্যবহারের উল্লেখ রয়েছে। তাই ঢাক-ঢোল ছাড়া পূজা-অর্চনার কথা ভাবাই যায় না। তবে বর্তমান সময়ে আধুনিক যন্ত্রপাতির আধিক্যে ঢাক-ঢোলের বাজনা কমে যাচ্ছে। কাঠ, চামড়াসহ ঢাক-ঢোল তৈরির বিভিন্ন উপকরণের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় এখন খুব একটা লাভ হয় না।

সৃষ্টি তবলা তরঙ্গের মালিক সুবীর দাস বাংলানিউজকে বলেন, আগের দিনের মতো ঢাক-ঢোলের তেমন চাহিদা নেই। যুগ পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে হারিয়ে যেতে বসেছে ঢাক-ঢোল, খোল, তবলা। তবে পূজা উপলক্ষে ঢাক-ঢোলের চাহিদা কিছুটা বেড়েছে।

তিনি আরও বলেন, তিন পুরুষ ধরে এই পেশার সঙ্গে জড়িত। অনেক কষ্ট করে বাপ-দাদার পেশার হাল ধরে রেখেছি। এ ব্যবসায় এখন যা আয় হয় তা দিয়ে পরিবারের ভরণ-পোষণ করা কষ্টসাধ্য যায়।

দাম প্রসঙ্গে রমেশ চন্দ্র দান বাংলানিউজকে বলেন, বড় আকারের প্রতিটি ঢাক ১০-১৫ হাজার টাকা। ছোট ও মাঝারি ৭-৮ হাজার টাকা। ঢোল বড়টি ৬ হাজার টাকা। ছোট ও মাঝারি ৫-৬ হাজার টাকা। খোল প্রতিটি ৫ হাজার টাকা।

যতীন বাদ্য বিতানের মালিক রমেশ চন্দ্র দাস বাংলানিউজকে বলেন, বছরে তিন (আশ্বিন, কার্তিক ও অগ্রাহয়ণ) মাসে কাজের চাপ বেশি থাকে। দুর্গাপূজার জন্য কিছু কাজ করছি। এই কাজ করে এখন সংসার চালানো যায় না।

সুর তরঙ্গ বিতানের মালিক সমীরণ রায় বাংলানিউজকে বলেন, এখানে নতুন তবলা, ঢোল, খোল, স্কুল ড্রামসেটসহ যাবতীয় বাদ্যযন্ত্র বিক্রি ও মেরামত করা হয়।

একাধিক কারিগর জানান, গান বাজনা, যাত্রানুষ্ঠানসহ বিভিন্ন আচার-অনুষ্ঠান কম হওয়ায় ঢোলের চাহিদাও কমে যাচ্ছে দিন দিন। তাই সংসারের খরচ মেটানো কঠিন হয়ে পড়েছে। যে কারণে এ কাজের আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে কারিগররা।

আধুনিক বাদ্যযন্ত্রের কারণে উৎসব-অনুষ্ঠানে এখন আর ঢোলের তেমন কদর না থাকলেও পূজা-পার্বনে এখনও ঢাক-ঢোলের কদর রয়েছে। পূজার আরতিতে ঢোলের এখন কোনো বিকল্প নেই। তাই বছরের এ সময়টাতে ব্যস্ত সময় পার করেন ঢুলি থেকে শুরু করে ঢোল-খোলের কারিগররা। পূজা ছাড়াও বিভিন্ন লোকসঙ্গীতের আসরে ঢাক-ঢোল অন্যতম বাদ্যযন্ত্র।

বাদ্যযন্ত্র অনুরাগী মাগুরা সরকারি হোসেন শহীদ সোহরাওয়াদী কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক ইলিয়াস হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের প্রায় সবারই পূজার সানাইয়ে মন কেমন করে ওঠে। শুধু সানাই নয়, জোড়া কাঠিতে ঢাক কিংবা কাসরের উপর একটানা একটি কাঠির তিনটি শব্দ-সুরের যে মুর্ছনা সৃষ্টি করে এসেছে তা বাঙালির একান্ত নিজের সুর। এ সুরের ইন্দ্রজাল ছিড়ে আমাদের বাঙালির গানে প্রবেশ করেছে গিটার, প্যাডড্রাম ইত্যাদি বাদ্যযন্ত্র। এর প্রভাবে আমাদের ঢাক-ঢোল লালিত সঙ্গীতে পড়েছে নেতিবাচক ছায়া। একথা অবশ্য সত্য যে সংস্কৃতি পরিবর্তনশীল এবং প্রবাহমান। ফলে নতুন বাদ্যযন্ত্র আমাদের সঙ্গীতে স্থান করে নেবে এটাই স্বাভাবিক। তবে একথাও সত্য যে, আমাদের দেশজ যন্ত্রে সুর ক্রমশ স্থিমিত হয়ে আসার অন্যতম কারণ হলো, এগুলো সঠিকভাবে বাজানো এবং সঠিক সঙ্গীতের উপযোগী করে তৈরি করা লোকের অভাব। তাই ঢাক-ঢোল মিশ্রিত সঙ্গীতের জন্য হৃদয় ব্যাকুল হলেও একদিন সত্যিই স্থিমিত হয়ে যাবে আমাদের দেশজ বাদ্যযন্ত্রের সুর।

তিনি আরও বলেন, বিচিত্র পেশার ভিড়ে দেশজ বাদ্যযন্ত্র তৈরির পেশায় অর্থের প্রাচুর্য না থাকায় মানুষ বংশানুক্রমিক এসব পেশা পরিবর্তন করে নতুন উপার্জনের পথ ধরেছে। ফলে কমে গেছে  বাদ্যযন্ত্র তৈরির ঘরগুলো।

বাংলাদেশ সময়: ১০০৮  ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯
এনটি

জাদুঘরে ইসমাইল চৌধুরীর একক প্রদর্শনী ‘রিদম অব ন্যাচার’
জেলা আ’লীগের বর্ধিত সভা শনিবার, কেন্দ্রীয় নেতারা নাটোরে
চট্টগ্রামের জহুর হকার্স মার্কেটে আগুন
সোনারগাঁয়ে মেশিনে ওড়না পেঁচিয়ে পোশাককর্মী নিহত
বকেয়া ঋণের টাকা চাওয়ায় ব্যাংক ম্যানেজারকে হুমকি


ধামরাইয়ে নিরাপত্তাকর্মীর মরদেহ উদ্ধার
হবিগঞ্জে কৃমিনাশক ওষুধ সেবনে শিশুর মৃত্যু
চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২ কোটি টাকার হেরোইনসহ যুবক আটক
নাটোরে ট্রলির ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু
নারায়ণগঞ্জে পানিতে ডুবে দুই ভাইয়ের মৃত্যু