উদ্ধার হচ্ছে খোয়াই, ৬০০ দখলদার শনাক্ত

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ। ছবি: বাংলানিউজ

walton

হবিগঞ্জ: দীর্ঘ প্রস্তুতি শেষে শুরু হয়েছে হবিগঞ্জের পুরাতন খোয়াই নদীর পাড়ে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম। ইতোমধ্যে দখল করে রেখেছে এমন ৬শ’ পরিবার ও প্রতিষ্ঠানের তালিকা তৈরি করেছে জেলা প্রশাসন।

সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) শহরতলীর মাছুলিয়া অংশে অভিযান চালানো হয়। দুপুরে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ছয়টি ভবন ভেঙে ফেলা হয়। 

হবিগঞ্জের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসিন আরাফাত রানা বাংলানিউজকে বলেন, সোমবার দিনভর উদ্ধার কার্যক্রম চালানো হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব উচ্ছেদ করা হবে।

হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মাহমুদুল কবীর মুরাদ বাংলানিউজকে বলেন, রাজনৈতিক নেতা, ব্যবসায়ী ও চাকরিজীবীসহ নানা শ্রেণী-পেশার প্রায় ৬০০ পরিবার এবং প্রতিষ্ঠান খোয়াই দখল করে রেখেছে। এরই মধ্যে এদের তালিকা করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব উচ্ছেদ করা হবে। যাদের লিজ দেওয়া হয়েছে, এগুলো বাতিল করা হবে। এছাড়া ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে সমাধান করা হবে।

তিনি আরও জানান, জেলা পরিষদ থেকে মাছুলিয়া পর্যন্ত খাল খনন কর্মসূচির মাধ্যমে পুরাতন নদী উদ্ধার করা হবে। নদীর আড়াই কিলোমিটার এলাকাকে নান্দনিক করাসহ ‘খোয়াই রিভার সিস্টেম উন্নয়ন প্রকল্প’ বাস্তবায়নে এক হাজার ৮৭২ কোটি টাকার প্রকল্প নেওয়া হয়েছিল। যা বর্তমানে দুই হাজার কোটি টাকায় উন্নীত করা হয়েছে। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটিতে (একনেক) অনুমোদন পেলে শিগগিরই শুরু হবে এর কাজ।

বাংলাদেশ সময়: ২১১০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯
এসআরএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: হবিগঞ্জ উচ্ছেদ অভিযান
৩য় দফায়ও করোনা পজিটিভ ভোক্তা অধিকারের মঞ্জুর শাহরিয়ার
যুক্তরাষ্ট্রে সহিংস বিক্ষোভ, ২ ডজন শহরে কারফিউ জারি
এখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবো না: প্রধানমন্ত্রী
জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার সালাউদ্দিন আর নেই
এবারও পাসের হারে বোর্ড সেরা রাজশাহী


স্বস্তি এসেছে লঞ্চ ও স্পিডবোট যাত্রীদের
আবাসিক ক্যাম্পে অনুশীলন শুরু করছে লঙ্কানরা
হালিশহরে চুলার আগুনে পুড়লো দোকান ও বসতঘর
করোনা ভাইরাস কেড়ে নিলো ওদের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস!
মার্কিন নাগরিকদের জন্য বিশেষ ফ্লাইট ৩ জুন