php glass

ভাঙ‌নে শেষ সম্বল হা‌রি‌য়ে দি‌শেহারা ফি‌রোজা

সুমন রায়, ডি‌স্ট্রিক্ট ক‌রেসপ‌ন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

যমুনা চোখের সামনে গিলে নিলো ভিটে-বাড়িটি, ফিরোজা বেগম চেয়ে চেয়ে কেবল দেখলেন। ছবি: বাংলানিউজ

walton

টাঙ্গাইল: স্বামী, দুই ছে‌লে ও দুই মে‌য়ে নি‌য়ে সংসার চল‌ছিল ফিরোজা বেগমের। স্বামী রোশনালী ভ্যান চা‌লা‌তেন। ক‌য়েক মাস আ‌গে রোশনালী হৃদ‌রো‌গে আক্রান্ত হ‌য়ে মারা যান। ঘরের একমাত্র উপার্জনক্ষম স্বামীর মৃত্যুর পর অভাব-অনটন নে‌মে আ‌সে ফি‌রোজা বেগমের সংসারে। তবু সংগ্রাম চলছিল তার। শেষ সম্বল হি‌সে‌বে বা‌ড়ির ৮ শতাংশ জায়গার ম‌ধ্যে একটি কুঁড়ে ঘ‌র ছিল।

কিন্তু যমুনার করাল গ্রা‌স কেড়ে নিয়েছে ফিরোজার সে ঘরটিও। গত ২০ দি‌নে যমুনা নদীর অব্যাহত ভাঙ‌নে বিলীন হ‌য়ে গে‌ছে তার আশ্রয়স্থলটি। শেষ সম্বলটুকু হা‌রি‌য়ে এখন দি‌শেহারা টাঙ্গাই‌লের ভুঞাপুর উপ‌জেলার কষ্টাপাড়া গ্রা‌মের বিধবা ফি‌রোজা। চার ছেলে-মেয়েকে নিয়ে খোলা আকা‌শের নি‌চে মানবেতর জীবন যাপন কর‌তে হচ্ছে তাকে। কোথায় আশ্রয় নেবেন, কার কাছে যাবেন, কিছুই কূল পাচ্ছেন না তিনি।

কেবল ফিরোজাই নন, যমুনার সর্বনাশা ভাঙন এভাবে পথে বসিয়েছে ভুঞাপুর উপ‌জেলার গো‌বিন্দাসী ইউ‌নিয়‌নের কষ্টাপাড়া, ভালকু‌টিয়া ও খানুরবা‌ড়ি এলাকার তিন শতা‌ধিক প‌রিবারকে। গাবসারা ও অজুর্না ইউ‌নিয়‌নের বলরামপুর, তারাই, চর তারাই এলাকায় ফসলি জ‌মিও গিলে নিচ্ছে যমুনার তীব্র স্রোত।

ভাঙন‌রো‌ধে টাঙ্গাই‌লের পা‌নি উন্নয়ন বোর্ড কার্যকর কোনো উ‌দ্যোগ নেয়নি বিধায় নদীপাড়ের বাসিন্দাদের এই বিপদে পড়তে হয়েছে বলে অভিযোগ ভুক্তভোগীদের। 

ত‌বে দেড় কি‌লো‌মিটার এলাকায় ভাঙন হলেও ৭৫ মিটার এলাকায় ভাঙন‌রো‌ধে ৫০ লাখ টাকার ব্যা‌য়ে কাজ শুরু ক‌রে‌ছে কর্তৃপক্ষ। পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের দাবি, ছোট ছোট আকা‌রে প্রকল্প পাস কর‌তে হ‌চ্ছে। কারণ বড় প্রকল্প দি‌লে সেগু‌লো পাস হয় না। তাই ভাঙন‌রো‌ধে কাজ ধীরগ‌তি হ‌চ্ছে।

সোমবার (১৫ জুলাই) যমুনা নদীর ভুঞাপুর অং‌শে পা‌নি বিপদসীমার ১৫ সে‌ন্টি‌মিটারের উপর দি‌য়ে প্রবা‌হিত হ‌চ্ছিল। তিন‌টি গ্রা‌মকে বন্যা থে‌কে রক্ষার জন্য সোমবার রা‌তে এলাকাবাসী যমুনা নদীর পা‌ড়ে মা‌টি ও বস্তা ফে‌লে‌ছে। 

ত‌বে ভাঙ‌নের কব‌লে গৃহহারা মানুষ‌দের সহায়তায় সরকা‌রি বা বেসরকা‌রি কোনো উ‌দ্যোগ দেখা যায়নি তখনো। 

ভুঞাপুর উপ‌জেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ঝোটন চন্দ জানান, যমুনা নদীর গো‌বিন্দাসীর তিনগ্রা‌মে ভাঙন অব্যাহত র‌য়ে‌ছে। গৃহহারা‌দের তা‌লিকা তৈ‌রি করা হ‌চ্ছে। তা‌দের সহায়তার জন্য প্র‌য়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

টাঙ্গাই‌লের পা‌নি উন্নয়ন বো‌র্ডের নির্বাহী প্র‌কৌশলী মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, যমুনা নদীর ভুঞাপুর অং‌শে বিপদসীমার ১৫ সে‌ন্টি‌মিটার ওপর প্রবা‌হিত হ‌চ্ছে পানি। ভাঙন‌রো‌ধে জিও ব্যাগ ফেলা‌নো হচ্ছে। নতুন ক‌রে আরও ৭৫  মিটার এলাকায় জিও ব্যাগ ফেলা‌নোর কাজ শুরু হ‌বে।

বাংলাদেশ সময়: ০৫১৬ ঘণ্টা, জুলাই ১৬, ২০১৯
এইচএ/

ksrm
গ্রাহকের কাছে ওয়াসার পাওনা ৭৬ কোটি টাকা
নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও রাতে চলছে স্পিডবোট
শিবচরে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে গৃহবধূর মৃত্যু
কোহলি-রাহানের ফিফটিতে বড় লিডের পথে ভারত
রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব নিশ্চিতের দায় নেবে না বাংলাদেশ


নতুন ভোটাররা সহসা স্মার্টকার্ড পাচ্ছেন না
‘প্রেসিডেন্টের টেবিলে’ পা তুলে সমালোচনায় জনসন
মহাকাশে গিয়েও জোচ্চুরি!
রোববার মাহী বি-তার স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে দুদক
ব্লেন্ডার ভরা সাড়ে ৩ হাজার ইয়াবা, আটক ১