php glass

স্প্যান ‘৩বি’ পিলারে বসানোর কার্যক্রম শুরু

সাজ্জাদ হোসেন, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

স্প্যান বসানোর কাজ চলছে। ছবি: বাংলানিউজ

walton

মুন্সিগঞ্জ: পদ্মাসেতুতে ত্রয়োদশ স্প্যান ‘৩বি’ বসানোর কার্যক্রম চলছে। মাওয়া প্রান্তে সেতুর ১৪ ও ১৫ নম্বর পিলারের ওপর ‘৩বি’ স্প্যানটি স্থায়ীভাবে বসানো হচ্ছে।

শুক্রবার (২৪ মে) সকাল থেকেই পদ্মার আকাশ মেঘাচ্ছন্ন আর ঢেউ বেশি থাকায় স্প্যানবহনকারী ক্রেন রওনা দিতে বিলম্ব হয়। সবকিছু অনুকূলে থাকলে আজকের মধ্যেই স্প্যান পিলারের উপর বসানোর কাজ শেষ হবে।

শুক্রবার (২৪ মে) সকাল ১১টা ১০মিনিটে স্প্যানটি নির্ধারিত দুইটি পিলারের সামনে এসে পৌঁছায়। এর আগে, সকাল ১০টা ২২ মিনিটের দিকে ধূসর রংয়ের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ও ৩ হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানকে তিন হাজার ৬০০ টন ধারণ ক্ষমতার ‘তিয়ান ই’ ভাসমান ক্রেনটি বহন করে নিয়ে রওনা হয়।

আরও পড়ুন...‘তিয়ান ই’তে রওনা হয়েছে ত্রয়োদশ স্প্যান

পদ্মাসেতুর প্রকৌশল সূত্র জানায়, ক্রেনটি এখন পিলারের সামনে পজিশনিং করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এরপর পিলার দুইটির মধ্যে অবস্থান করে নোঙর করা হবে। ইঞ্চি ইঞ্চি মেপে স্প্যানটিকে তোলা হবে পিলারের উচ্চতায়। এরপর দুই পিলারের বেয়ারিং এর ওপর বসিয়ে দেওয়া হবে। পাশের ১৩ ও ১৪ নম্বর পিলারে বসানো ‘৩-এ’ স্প্যানের একটি অংশের সঙ্গে ঝালাইয়ের কাজও করা হবে।

পদ্মাসেতুতে ৪২টি পিলারের ওপর বসবে ৪১টি স্প্যান। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মাসেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। সেতু নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ৩৩ হাজার কোটি টাকা। মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদীশাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো।

২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর জাজিরা প্রান্তে বসানো হয় প্রথম স্প্যান। এর প্রায় চার মাস পর ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি দ্বিতীয় স্প্যানটি বসে। দেড় মাস পর ১১ মার্চ এ প্রান্তে ধূসর রংঙের তৃতীয় স্প্যান বসানো হয়। দুই মাস পর ১৩ মে বসে চতুর্থ স্প্যান। এক মাস ১৬ দিনের মাথায় পঞ্চম স্প্যানটি বসে ২৯ জুন। তারপর ছয় মাস ২৫ দিনের মাথায় ২০১৯ সালের ২৩ জানুয়ারি বসে ষষ্ঠ স্প্যানটি। এর ২৮ দিনের মাথায় ২০ ফেব্রুয়ারি বসে সপ্তম স্প্যানটি। এর একমাস পরে ২২ মার্চ বসে অষ্টম স্প্যানটি। এরপর ১০ এপ্রিল বসে দশম স্প্যানটি। এর ১৩ দিনের মাথায় ২৩ এপ্রিল বসে একাদশ স্প্যান। এর ১২ দিনের মাথায় দ্বাদশ স্প্যানটি অস্থায়ীভাবে বসে চলতি মাসের ৫ মে। আর মাওয়া প্রান্তে একটিমাত্র অস্থায়ীভাবে স্প্যান বসানো হয় ২০১৮ সালের ১২ অক্টোবর।

বাংলাদেশ সময়: ১১২৮ ঘণ্টা, মে ২৪, ২০১৯
এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: পদ্মাসেতু মুন্সিগঞ্জ
‘শুধু স্বপ্ন দেখাননি, বাস্তবায়নও করছেন প্রধানমন্ত্রী’
হজে যাচ্ছেন সোয়া লাখ, বিমান পরিবহন করবে অর্ধেক
নাম ছাড়াই শেষ হচ্ছে ঋত্বিক-টাইগারের সিনেমার শুটিং
ঢাবির সিনেটে ৮১০ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব
সংসদে কুরুচিপূর্ণ মিথ্যাচার করেছেন নাসিম: গণফোরাম


বরগুনায় দায়ের কোপে যুবকের মৃত্যু
প্রধান তথ্য কর্মকর্তা হলেন সুরথ কুমার সরকার
‘পারিবারিক শিক্ষা ছাড়া মাদক নির্মূল সম্ভব নয়’
নিয়োগে অনিয়ম: সাব ইন্সপেক্টর বরখাস্ত, কনস্টেবল আটক
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মিললো বিপন্ন প্রজাতির ‘সবুজ ফণিমনসা’