php glass

টিকিটের আশায় ঘুমিয়েই রাত পার তাদের 

তামিম মজিদ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কমলাপুর রেলস্টেশনে অগ্রিম টিকিট প্রত্যাশীরা। ছবি: ডিএইচ বাদল

walton

ঢাকা: মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। সেই উৎসবে আপনজনের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করতে রাজধানী ছাড়েন কোটি মানুষ। স্বাচ্ছন্দ্যে ও নিরাপদে বাড়ি ফিরতে রেলপথকে বরাবরই বেছে নেন যাত্রীরা। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়। তবে অন্য বছরের মতো কমলাপুরজুড়ে লাখো মানুষের অপেক্ষা না থাকলেও টিকিটের আশায় জেগে-ঘুমিয়ে পার করেছেন অনেক টিকিট প্রত্যাশী। 

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) সকাল ৯টায় দ্বিতীয় দিনের মতো রাজধানীর কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে টিকিট বিক্রি কার্যক্রম শুরু হবে। আজ দেওয়া হবে ১ জুনের টিকিট। 

কিন্তু বুধবার (২২ মে) মধ্য রাত থেকেই বিছানা-বালিশ নিয়ে কমলাপুর এসেছেন অনেক টিকিট প্রত্যাশী। উদ্দেশ্য একটাই, বাড়ি ফেরার টিকিট নিশ্চিত করা। তারা বলছেন, টিকিট পেলেই কষ্ট করা স্বার্থক হবে। মুখে স্বপ্নজয়ের হাসি ফুটবে। 

রাজধানীর একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা তাহারিমা সুলতানা হাসি বুধবার মধ্য রাত থেকেই কমলাপুরে অবস্থান নিয়েছেন। তিনি বলেন, টিকিট পেলেই রাত জেগে কষ্ট করা সফল হবে। 

নিয়াজুল হক নামে আরেক টিকিট প্রত্যাশী বলেন, আমি বিছানা নিয়ে এসেছি। রাত এখানেই কাটিয়েছি। এখন লাইনে আছি। দিনাজপুরের টিকিট কিনতে এসেছি। টিকিট পেলেই কষ্ট করা লাঘব হবে। 

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার পর থেকে কমলাপুর রেলস্টেশনে ভিড় বাড়ছে। টিকিট প্রত্যাশীরা অবস্থান নিয়েছেন স্টেশনের প্লাটফর্মে। 

বাংলাদেশ সময়: ০৯২২ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০১৯
টিএম/আরবি/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ঈদে বাড়ি ফেরা
অজিরা ৭০ ভাগ খেললে আমাদের খেলতে হবে ১০০ ভাগ: মাশরাফি
এমপিওভুক্তিতে রাজনৈতিক নেতাদের সম্পৃক্ত করার দাবি
আবার ‘জাদু’ দেখানোর সুযোগ টাইগারদের সামনে
মাকে হত্যার পর মেয়েকে ধর্ষণ: বখাটে সাগরের স্বীকারোক্তি
বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য ইউরেনিয়াম কেনার প্রস্তাব অনুমোদন


খুলনায় অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার
‘পরিবহন সেবার জন্য, মানুষকে জিম্মি করার জন্য নয়’
আদিতমারীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু
সিএনজিচালক হাসমত হত্যায় ৮ ছিনতাইকারীর ৬০ বছর কারাদণ্ড
গোদাগাড়ীতে ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেলো অজ্ঞাত যুবকের