‘বাবা-মা, শিক্ষকের কথা শুনে সুন্দর জীবন গড়’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা/ছবি- পিআইডি

walton

ঢাকা: বাবা-মা, শিক্ষকদের কথা শুনে; নিয়ম-শৃঙ্খলা মেনে সুন্দর জীবন গড়তে শিশু-কিশোরদের পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

php glass

মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) সকালে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ঢাকা জেলা প্রশাসন আয়োজিত জাতীয় শিশু-কিশোর সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান তিনি।

শিশু-কিশোরদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তোমরা বাবা-মায়ের কথা শুনবে। শিক্ষকদের কথা শুনবে। নিয়ম-শৃঙ্খলা মেনে চলবে। সুন্দরভাবে জীবন যাপন করবে। সেটাই আমরা কামনা করি।

তিনি বলেন, যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমাদের সন্তানরা যেন এগিয়ে যেতে পারে, সেদিকে লক্ষ্য রেখেই কাজ করে যাচ্ছি। 

আজকের শিশু আগামী দিনে এদেশের কর্ণধার উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজকের শিশুদের মধ্য থেকে কেউ প্রধানমন্ত্রী হবে, বড় বড় চাকরি করবে, দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। আমরা আমাদের শিশুদের সেভাবে গড়ে তুলতে চাই। দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে, দেশকে ভালোবেসে কাজ করবে। 

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে তোমাদের। তোমরাই গড়ে তুলবে আগামী দিনের বাংলাদেশ। ইনশাল্লাহ এই বাংলাদেশ হবে দক্ষিণ এশিয়ার শান্তিপূর্ণ উন্নত সমৃদ্ধ দেশ। 

সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ-মাদকমুক্ত দেশ গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদকের হাত থেকে আমরা দেশকে মুক্ত করতে চাই। 

মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে সবার সহযোগিতা চেয়ে শেখ হাসিনা বলেন, শিশু কিশোর, অভিভাবক, ছাত্র, শিক্ষক, বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে যারা শিক্ষাগুরু, মসজিদের ইমাম থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধর্মের গুরু সবাইকে আহ্বান জানাবো মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদের কুফল সম্পর্কে শিশুদের জানাতে হবে। এর হাত থেকে শিশুদের রক্ষা করতে হবে।

তিনি বলেন, অভিভাবক, বাবা-মা তাদের অবশ্যই সবসময় লক্ষ্য রাখতে হবে সন্তান কোথায় যায়, কার সঙ্গে মেশে, কিভাবে মেশে। সবাই যেন লেখাপড়ার দিকে মনোযোগ দেয়, খেলাধুলা, শরীর চর্চা, নানা ধরনের প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে শিশুদের মনন এবং মেধা বিকশিত হবে।

সকাল ৮টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অভিবাদন মঞ্চে এলে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। এ সময় মঞ্চে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক. ম. মোজাম্মেল হক ও ঢাকা জেলা প্রশাসক আবু সালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান।

এরপর প্রধানমন্ত্রী পায়ে হেঁটে প্যারেড পরিদর্শন করেন।

শিশু-কিশোদের উদ্দেশে বক্তব্যের পর প্রধানমন্ত্রী জাতীয় পর্যায়ে শুদ্ধ সুরে জাতীয় সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক এই তিন ক্যাটাগরিতে বিজয়ী ৯০ জনকে পুরস্কৃত করা হয়।

পুরস্কার বিতরণের পর সারাদেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও শিশু-কিশোর সংগঠন মনোজ্ঞ কুচকাওয়াজ পরিবেশন করে।

কুচকাওয়াজের পর শিশু-কিশোর সমাবেশে এবারের থিম সং ‘নোঙর তোল তোল সময় যে হল হল’ গানটি পরিবেশন করা হয়। গানটির সুরের দোলায় স্টেডিয়াম মাঠ অতিক্রম করে দৃষ্টিনন্দন নৌকা। নৌকার পেছনে বর্ণাঢ্য গাড়ি বহরের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন-অগ্রগতি তুলে ধরা হয়। 

সবশেষে শিশু-কিশোর সমাবেশের সবচেয়ে আকর্ষণ পরিবেশনা দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও শিশু-কিশোর সংগঠনের ‘মনোমুগ্ধকর ডিসপ্লে’।

বাংলাদেশ সময়: ১০০০ ঘণ্টা, মার্চ ২৬, ২০১৯
এমইউএম/জেডএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
দিল্লিকে হারিয়ে দ্বিতীয়স্থানে মুম্বাই
না ফেরার দেশে চলচ্চিত্র নির্মাতা মিজান
তারেক-জোবাইদার ৩ ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দের নির্দেশ 
মারিয়া শারাপোভার জন্ম
ইতিহাসের এই দিনে

মারিয়া শারাপোভার জন্ম

ঐক্যেফ্রন্ট নেতাদের আগাম জামিন নিয়ে আবেদন নিষ্পত্তি


‘আপিল বিভাগের নির্দেশ হলো এটা ভাঙা’
১০০ প্রভাবশালীর তালিকায় জাসিন্ডা আরডার্ন-ইমরান খান
১০ পিস ইয়াবার জন্য ভাইকে খুন!
বন্ড সুবিধায় আনা কোটি টাকার পণ্যসহ ৩ কাভার্ড ভ্যান জব্দ
৬ উপজেলায় ভোটার হালনাগাদ শুরু সোমবার