php glass

ঢামেকের বাতাসে পোড়া গন্ধ 

তামিম মজিদ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট   | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মরদেহ নিচ্ছেন স্বজনেরা-ছবি-বাংলানিউজ

walton

ঢাকা: কেউ মরদেহ বুঝে নিয়ে কাঁধে করে অ্যাম্বুলেন্সে তুলছেন, আবার কেউ প্রিয়জনের মরদেহ হন্য হয়ে খুঁজছেন। স্বজনদের আহাজারি আর পোড়া মরদেহের গন্ধে বৃহস্পতিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গের সামনের পরিবেশ ভারী হয়ে উঠেছে। 

প্রিয়জনকে হারিয়ে পাগলপ্রায় স্বজনরা। কেউ সন্তানকে হারিয়ে বিলাপ করছেন, আবার কেউ ভাইকে হারিয়ে। 

পুরান ঢাকার চকবাজার ট্র্যাজেডিতে নিহত স্বজনদের খোঁজে এখনও ঢামেক হাসপাতালের মর্গের সামনে অপেক্ষা করছেন অনেক স্বজন। এদিক-সেদিক ছুটোছুটি করেও সন্ধান পাচ্ছেন না প্রিয়জনের।

এমনই একজন নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার শহিদুল ইসলাম রাজু। চকবাজারের ওয়াহিদ ভবনে তিনি ব্যবসা করতেন। রাতের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের পর থেকেই তার খোঁজ নেই। অনেকে পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়ায় পরিচয় নিশ্চিত করতে পারছেন না চিকিৎসকরা। যাদের পরিচয় নিশ্চিত করা যাচ্ছে না, তাদের ডিএনএ টেস্ট করা হবে বলে জানিয়েছেন তারা।

একই উপজেলার শাহাদাত উল্লাহ হীরারও খোঁজ পাচ্ছেন না তার স্বজন রাফি। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, সকাল থেকেই মর্গের সামনে অপেক্ষা করছি, কিন্তু হীরার কোনো সন্ধান পাচ্ছি না। চিকিৎসকরা বলেছেন, যাদের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না, তাদের ডিএনএ টেস্টের মাধ্যমে পরিচয় বের করা হবে। এটা সময়সাপেক্ষ। 

বাংলাদেশ সময়: ১৮১২ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১,২০১৯
টিএম/আরআর

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: চকবাজার ট্র্যাজেডি
‘রনির মতো ৫ জন এগিয়ে এলে রিফাত বাঁচতো’
ফতুল্লা থানা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা
রিফাত হত্যায় জড়িতদের যতো দ্রুত সম্ভব গ্রেফতার
উপ-নির্বাচন: পশ্চিম বাকলিয়ায় ভোট ২৫ জুলাই
সুশাসন নিশ্চিত করতে নিরলসভাবে কাজ করছে দুদক


সেপ্টেম্বরে ঘরের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে টাইগাররা
ঠাকুরগাঁওয়ে বখাটের ছুরিকাঘাতে আহত নার্সের মৃত্যু
পূর্ণাঙ্গ কম্পিউটার ইনস্টিটিউট হবে চসিকে
‘নারীদের কাছে এখন দুঃসাধ্য বলতে কিছু নেই’
ইন্টারনেট ব্যান্ডউইডথের দাম কমিয়ে ১৮০ টাকা নির্ধারণ