ওয়েজ বোর্ডের কমিটি পুনর্গঠনে প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মন্ত্রিসভা কমিটির সঙ্গে বৈঠকে তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা: সংবাদকর্মীদের জন্য গঠিত নবম ওয়েজবোর্ডের সুপারিশ বাস্তবায়নে সাংবাদিক নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। প্রথম মন্ত্রিসভার বৈঠকেই ওয়েজবোর্ডের জন্য কমিটি পুর্নগঠনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তথ্যমন্ত্রী।

মন্ত্রিসভা কমিটির সঙ্গে বৈঠকের আগে মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) বিকেলে তথ্য মন্ত্রণালয়ে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে), ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে), বাংলাদেশ সংবাদপত্র কর্মচারী ফেডারেশন ও বাংলাদেশ ফেডারেল ইউনিয়ন অব নিউজ পেপার প্রেস ওয়ার্কার্স নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন তথ্যমন্ত্রী।
 
সভার শুরুতে তথ্যমন্ত্রী বলেন, নবম ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নতুন সরকার গঠন হওয়ার পর আমরা কাজ শুরু করেছি। নতুন করে সাত সদস্যের মন্ত্রিসভা কমিটি করা হয়েছে।
 
তিনি বলেন, এ বৈঠকের পর মন্ত্রিসভা কমিটি গঠনের গেজেট হওয়ার পর বৈঠক আহ্বান করব। বৈঠকে আলোচ্য বিষয় ও সারসংক্ষেপ মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে উপস্থাপন করা হবে। তারপর সিদ্ধান্ত।
 
তথ্যমন্ত্রী বলেন, নবম ওয়েজ বোর্ডের মাধ্যমে সংবাদপত্রে যারা কাজ করেন তাদের বেতন-ভাতা যাতে নিশ্চিত হয় সেই লক্ষ্যে কাজটি দ্রুত শুরু করেছি।
 
আমন্ত্রণ পেয়ে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ইলিয়াস হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খান যথাসময়ে সভাস্থলে এলেও সভা শুরুর কিছুক্ষণ আগে তারা সভাকক্ষ থেকে বেরিয়ে যান।
 
এ বিষয়ে একজন কর্মকর্তা বলেন, তথ্যমন্ত্রী চালেলেও বাংলাদেশ সংবাদপত্র কর্মচারী ফেডারেশনের নেতারা রিপোর্টার্স ইউনিটির নেতারা থাকার বিষয়ে আপত্তি জানায়। এজন্য বৈঠকে তাদের রাখা হয়নি।
 
তবে সংবাদপত্র মালিক সমিতির সংগঠন নিউজ পেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (নোয়াব) নেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হলেও তারা বৈঠকে আসেননি।
 
পরে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নতুন সরকারের প্রথম মন্ত্রিসভাতেই ওয়েজ বোর্ড বাস্তবায়নের প্রস্তাবিত মন্ত্রিসভা কমিটি অনুমোদন দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী।

হাছান মাহমুদ বলেন, নবম ওয়েজ বোর্ড দ্রুত বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নতুন সরকার গঠিত হবার পর থেকেই কাজ করে চলেছি। নতুন সরকারের প্রথম মন্ত্রিসভাতেই ওয়েজ বোর্ড বাস্তবায়নের জন্য মন্ত্রিসভা কমিটি গঠনে আমাদের প্রস্তাব ও এর অনুমোদনই এর প্রমাণ।

মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকার গণমাধ্যমবান্ধব সরকার এবং এ সরকারের নেতৃত্বেই দেশে গণমাধ্যমের অভূতপূর্ব বিকাশ হয়েছে। এর সঙ্গে গণমাধ্যমকর্মীর সংখ্যাও ব্যাপক বৃদ্ধি পেয়েছে। নবম ওয়েজ বোর্ডের মাধ্যমে সংবাদপত্র মাধ্যমে কর্মরত সবাই যাতে উপকৃত হন সেটিই এ সরকারের লক্ষ্য। টেলিভিশন মাধ্যমে কর্মরতদের ওয়েজ বোর্ডে অন্তর্ভুক্তির সম্ভাবনার বিষয়টিও আমরা আলোচনায় রেখেছি।

তথ্যসচিব আবদুল মালেকের সঞ্চালনায় মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আজহারুল হক, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু জাফর সূর্য, সংগঠন দু’টির সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে শাবান মাহমুদ ও সোহেল হায়দার চৌধুরী, বাংলাদেশ সংবাদপত্র কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি মতিউর রহমান, মহাসচিব মো. খায়রুল ইসলাম, বাংলাদেশ ফেডারেল ইউনিয়ন অব নিউজপেপার প্রেস ওয়ার্কার্স সভাপতি মো. আলমগীর হোসেন খান, মহাসচিব কামাল উদ্দিন, বাংলাদেশ সংবাদপত্র পরিষদের আহ্বায়ক গোলাম কিবরিয়াসহ তথ্য মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। 
 
বাংলাদেশ সময়: ২১৫১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০১৯
এমআইএইচ/এসএইচ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: সাংবাদিক
এবার একুশের অপেক্ষা...
বায়তুল মোকাররমে কবি আল মাহমুদের দ্বিতীয় জানাজা সম্পন্ন
ফেনীতে ফুটবল টুর্নামেন্ট উদযাপনে র‌্যালি
‘নন্দলালের’ ভূমিকা নয়, কর্মকর্তাদের ইসি
নিখোঁজ রাকিবের সন্ধান চায় পরিবার


মাদক নিয়ন্ত্রণে সীমান্তকে কঠোরভাবে সুরক্ষা করবো
আল মাহমুদের কাজে পরবর্তী প্রজন্ম সাহিত্যের উপজীব্য পাবে
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন বিভাগে নিয়োগ
আট গান নিয়ে প্রকাশ পেলো ‘সর্বনামের পাখিরা’
ইলিয়াসপত্নীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি