সুবর্ণচরে গণধর্ষণ: আসামি হেঞ্জু মাঝির স্বীকারোক্তি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: প্রতীকী

নোয়াখালী: ভোটের জেরে নোয়াখালীর সুবর্ণচরে চার সন্তানের জননী গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত এজাহারভুক্ত আসামি মো. কামাল ওরফে হেঞ্জু মাঝি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

php glass

শনিবার (১২ ডিসেম্বর) বিকেলে হেঞ্জু মাঝি নোয়াখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক শোয়েব উদ্দিন খানের আদালতে এ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জাকির হোসেন বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

এর আগে গৃহবধূ ধর্ষণের ঘটনায় ২ নম্বর আমলি আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারক নবনীতা গুহের আদালতে ছয়জন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। এ নিয়ে মোট সাত আসামি জবানবন্দি দিয়েছে। এ মামলায় মোট ১১ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  

শুক্রবার (১১ জানুয়ারি) ভোরে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) কুমিল্লার দাউদকান্দি এলাকা থেকে কামাল ওরফে হেঞ্জু মাঝিকে গ্রেফাতার করে। তিনি সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবলী ইউনিয়নের মধ্যম বাগ্যা গ্রামের মৃত চান মিয়ার ছেলে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০১৯
জিপি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ধর্ষণ সুবর্ণচর
স্বাধীনতা দিবসে পুলিশের পতাকা উপহার
স্বাধীনতা দিবসে জাতীয় স্মৃতিসৌধে জবির শ্রদ্ধা
রাজাপুরে কলেজছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা
‘বিএনপি নেতিবাচক রাজনীতি না করলে দেশের আরও অগ্রগতি হবে’
রাজাপুরে বাসচাপায় মোটরসাইকেল চালক নিহত


সাওতুল কোরআন প্রতিযোগিতার সর্বশেষ বাছাই শুক্রবার
বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ করে কাঁদলেন মাহবুব তালুকদার
মালয়েশিয়া সফরে বিমানবাহিনী প্রধান
৩টি অস্ত্রসহ গ্রেফতার তিন
বাঙালিকে মুক্তির অমিয় সুধা দিয়েছেন জাতির পিতা