ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ১১ আগস্ট ২০২০, ২০ জিলহজ ১৪৪১

আইন ও আদালত

ব্যবসায়ীর অর্ধগলিত মরদেহ: একজনের স্বীকারোক্তি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৬ ঘণ্টা, জুলাই ১৩, ২০২০
ব্যবসায়ীর অর্ধগলিত মরদেহ: একজনের স্বীকারোক্তি

ঢাকা: রাজধানীর ভাটারা এলাকায় সাইফুল ইসলাম নামে এক ব্যবসায়ীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় আপেল আহমেদ (২৭) ও তার স্ত্রী মোছা. শান্তা ইসলাম ওরফে আলভীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। 

সোমবার (১৩ জুলাই) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শহিদুল ইসলাম এ আদেশ দেন।  

একই আদালতে আব্দুর রাকিব চৌধুরী (২২) নামে অপর এক আসামি দোষ স্বীকার করে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারা জবানবন্দি দিয়েছে।

এরপর তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বিচারক।  

এর আগে পুলিশ তাদের আদালতে হাজির করে আপেল-আলভী দম্পতির ১০ দিন করে রিমান্ড ও রাকিবের জবানবন্দি রেকর্ডের আবেদন করে। শুনানি শেষে বিচারক দু’জনকে চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন ও রাকিবের জবানবন্দি রেকর্ড করে কারাগারে পাঠান।  

সিএমএম আদালতে ভাটারা থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখার মুন্সি পলিশের কনস্টেবল জামাল উদ্দিন এ তথ্য জানান।  

রোববার (১২ জুলাই) বিকেলে ভাটারা থানার বাঁশতলা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ‌্য অনুযায়ী হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত চাকু জব্দ করা হয়।

জানা যায়, গত ২৪ জুন সাইফুল ইসলামের স্ত্রী দীনারা পারভীন তার স্বামী নিখোঁজ হওয়ার বিষয়ে হাজারীবাগ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। তিনি জিডিতে উল্লেখ করেন, তার স্বামী দুপুর আনুমানিক ২টার দিকে ব‌্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে বাসা থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেননি। ২৬ জুন ভাটারা থানা পুলিশ মাদানী অ্যাভিনিউ থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় গাড়িটি উদ্ধার করে।  

গাড়ি উদ্ধারের পরদিন ভাটারা থানার সাঈদ নগর পূর্ব পাড়া মসজিদ গলির আনোয়ার হোসেনের বাসার দ্বিতীয় তলা থেকে সাইফুল ইসলামের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় ২৮ জুন ওই বাসার ভাড়াটিয়া আপেলকে আসামি করে ভাটারা থানায় মামলা দায়ের করেন সাইফুলের স্ত্রী দীনারা পারভীন।

বাংলাদেশ সময়: ২১২৩ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০২০
কেআই/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইন ও আদালত এর সর্বশেষ

Alexa