php glass

ইতিহাসের এই দিনে

ভাস্কর্যশিল্পী রঁদ্যার জন্ম

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ভাস্কর্যশিল্পী রঁদ্যা

walton

ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার আশীর্বাদ-অভিশাপ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সব সময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

১২ নভেম্বর ২০১৯ মঙ্গলবার। ২৭ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরি। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
১৯১৮- অস্ট্রিয়াকে প্রজাতন্ত্র হিসেবে ঘোষণা করা হয়।
১৯৩০- ভারতে ব্রিটিশবিরোধী আইন অমান্য আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে লন্ডনে প্রথম গোলটেবিল বৈঠক।
১৯৫৬- মরোক্কো, তিউনিসিয়া ও সুদান জাতিসংঘে যোগ দেয়।
১৯৭০- বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলে প্রবল ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসে ১০-১৫ লাখ মানুষ প্রাণ হারান।
১৯৭১- চীনের সঙ্গে রুয়ান্ডার কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা।
১৯৯০- পৃথিবীর প্রাচীনতম ও ২৬শ বছরের ঐতিহ্যবাহী বংশপরম্পরাগত রাজতন্ত্রের সিংহাসনে জাপানের সম্রাট আকাহিতো অভিষিক্ত হন।
১৯৯৬- জাতীয় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে মানবতাবিরোধী কালাকানুন ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ বাতিল করা হয়।

জন্ম
১৬৪৮- মেক্সিকান কবি হুয়ানা ইনেস দে লা ক্রস।
১৮১৭- বাহাউল্লা নামে পরিচিত আধ্যাত্মিক নেতা, বাহাই বিশ্বাসের জনক মির্জা হুসায়েইন আলী নুরি। 
১৮৪০- প্রখ্যাত ভাস্কর্যশিল্পী অগুস্ত রঁদ্যা।

প্যারিসের একটি শ্রমজীবী পরিবারে তার জন্ম। পুরো নাম ফ্রাঁসোয়া অগুস্ত রেনে রদ্যাঁ। তার কাজ উনিশ শতকের শেষ ভাগে শিল্পজগতে ব্যাপক প্রভাব ফেলে। বোজ আর্ট ধারার অনুগামী ও বিরোধী এ ভাস্কর জটিল মানবমূর্তি নির্মাণে অদ্বিতীয় নৈপুণ্য দেখিয়েছেন। বিশ্বের উল্লেখযোগ্য বিভিন্ন জাদুঘর ও সংগ্রহশালায় রদ্যাঁর ভাস্কর্য সংগৃহীত রয়েছে।

১৮৬৬- চীনের বিপ্লবী নেতা সান ইয়াৎ সেন।
১৮৯৬- ভারতের প্রখ্যাত পক্ষীবিশারদ সেলিম আলী।

মৃত্যু
১৯৪৬- ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামী ও শিক্ষাবিদ পণ্ডিত মদনমোহন মালব্য।
১৯৬৯- শিক্ষাবিদ, লেখক ও বুদ্ধিজীবী অজিতকুমার গুহ।

সাহিত্য, শিক্ষা ও সংস্কৃতি সম্পর্কে তিনি বহু প্রবন্ধ রচনা করে গেছেন। এদেশের অসাম্প্রদায়িক ও ধর্মনিরপেক্ষ সাহিত্য-সংস্কৃতিচর্চার ধারা নির্মাণে তার অবদান ও সাফল্য অপরিসীম। তিনি রবীন্দ্রনাথের সঞ্চয়িতা, সোনার তরী ও গীতাঞ্জলি এবং কালিদাসের মেঘদূত সম্পাদনা করে কৃতিত্বের পরিচয় দেন। 

রবীন্দ্রসাহিত্যের খ্যাতনামা অধ্যাপক এবং সুবক্তা হিসেবেও তার খ্যাতি ছিল। বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও সাহিত্যসভায় শ্রুতিমধুর বক্তৃতা দিয়ে তিনি ব্যাপক সুনাম অর্জন করেন।

১৯৮৯- বিশ্বনন্দিত কমিউনিস্ট নেত্রী, স্পেনের কমিউনিস্ট পার্টির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও স্পেনের গৃহযুদ্ধের নায়িকা ডলোরেস ইরারুর বির।

বাংলাদেশ সময়: ০০১০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১২, ২০১৯
টিএ/এএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ফিচার
সান্ধ্য কোর্স বন্ধসহ ১৩ নির্দেশনা ইউজিসি’র
প্রথম দিন শেষে লঙ্কানদের সংগ্রহ ২০২/৫
ইবিএইউবির সঙ্গে ইউআইটিএমের এমওইউ সই
মধ্যরাতে সিনেমার প্রচারে আসিফসহ ‘গহীনের গান’ টিম
জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য হলেন লিয়াকত-সেলিম


ভাপা পিঠা ছাড়া কি শীত জমে!
আফগানিস্তানে মার্কিন ঘাঁটিতে আত্মঘাতী বোমা হামলা
‘খাদ্যের মতো পুষ্টিতেও স্বয়ংসম্পূর্ণ হবে বাংলাদেশ’
পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী থেকে নতুন উদ্যোক্তা তৈরির আহ্বান
শাজাহান খানকে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম ইলিয়াস কাঞ্চনের