নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীর ভাইয়ের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীর সঙ্গে তার ভাই

walton

গত মাসে ভারতের শক্তিমান অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীর কাছে বিয়ে বিচ্ছেদ চেয়ে আইনি নোটিশ পাঠান তার স্ত্রী আলিয়া সিদ্দিকী। তিনি অভিযোগ করেন এই অভিনেতা ও তার পরিবার তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করেছে। যদিও এখনো তাদের ডিভোর্সের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়নি। তবে এই রেশ কাটতে না কাটে এবার নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীর ভাইয়ের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছে তারই ভাইঝি।

নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীর ছোট ভাই মিনাজউদ্দিন সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে দিল্লির জামিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগকারী জানান, তিনি যখন অপ্রাপ্ত বয়স্ক ছিলেন তখন থেকে তাকে যৌন হয়রানি করা হয়েছে। ২০১৭ সালে তার বিয়ে হওয়ার তিন মাস আগ পর্যন্ত তিনি নির্যাতনের শিকার হোন।
অভিযোগকারী ওই তরুণী দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন, আমার বয়স যখন ৯ বছর তখন থেকে মিনাজউদ্দিন চাচ্চু আমার সঙ্গে অদ্ভুত আচরণ শুরু করেন। আমি খুব অস্বস্তিবোধ করতাম। তবে আমি কখনো বুঝিনি এটি কোনো ধরনের যৌন নির্যাতন।

তিনি আরো বলেন, আমি বড় চাচ্চুর (নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী) সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বলার চেষ্টা করেছি, কিন্তু তিনি কখনো আমাকে বিশ্বাস করেননি। তখন আমার মনে হয়েছিল আমি হয়তো ভুল করছি। কিন্তু যখন বড় চাচী (আলিয়া সিদ্দিকী) এই পরিবারের উপর নির্যাতনের অভিযোগ আনলেন, তখন আমি  বুঝতে পেরেছি আমি ভুল ছিলাম না। এরপর আমি চাচীর সঙ্গে সবকিছু শেয়ার করি এবং তিনিও আমাকে বলেন, আমি ভুল ছিলাম না। তিনি আমাকে নিজের জন্য দাঁড়াতে বলেন। অবশেষে কথা বলার সাহস পেয়েছি এবং ন্যায়বিচার পেতে আইনের সহায়তা নিতে যাচ্ছি।

বিষয়টি নিয়ে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী এখনো কোনো মন্তব্য করেননি।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৭১১ ঘণ্টা, জুন ০৩, ২০২০
জেআইএম

Nagad
মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখায় ৩ ফার্মেসিকে জরিমানা
পশুর হাটের ইজারাদারদের মেয়র নাছিরের কড়া নির্দেশনা
এই প্রথম বেনাপোলে পার্সেল ভ্যানে পণ্য আমদানি শুরু
জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে যুব কংগ্রেসের বিক্ষোভ
কেশবপুরে ভোটের মাঠে এলে মিলবে মাস্ক-স্যানিটাইজার


রিজেন্টের সাহেদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
ফার্মেসিতে বিক্রয় নিষিদ্ধ সরকারি ওষুধ, আটক ১
উন্নত ও টেকসই ভবিষ্যৎ নির্মাণই হুয়াওয়ের লক্ষ্য
১৫ জেলার নিম্নাঞ্চল বন্যায় প্লাবিত
ব্যবসায়ীর অর্ধগলিত মরদেহ: একজনের স্বীকারোক্তি