চিরকালই দেখার মতো কয়েকটি বিখ্যাত হলিউড সিনেমা

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চিরকালই দেখার মতো কয়েকটি বিখ্যাত হলিউড সিনেমা

walton

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস থেকে জীবন বাঁচাতে ঘরে থাকার কোনো বিকল্প নেই। কিন্তু সারাদিন ঘরে বসে সময় কাটানোই বিরক্তিকর হয়ে উঠতে পারে। এসময়ে এমন কিছু হলিউড সিনেমা দেখে নিতে পারেন, যেগুলোর আবেদন কখনোই শেষ হবে না। 

ছুটি হোক বা লকডাউন, সময় কাটানোর জন্য দারুণ একটা উপায় হলো ঘরে বসে সিনেমা দেখা। বিশেষত যে সিনেমাগুলো অনেকদিন ধরে দেখবেন দেখবেন বলে ভাবছেন, কিন্তু দেখার সুযোগ হয়ে ওঠেনি, সে সিনেমাগুলো দেখে নেওয়ার এখনই ভালো সময়। 

বিশ্বসেরা সিনেমার সিংহভাগই নির্মিত হয় হলিউডে। হলিউডের কিছু কালজয়ী সিনেমা রয়েছে যেগুলোর আবেদন কখনোই শেষ হবে না। একবার নয়, বারবার দেখলেও কিছু সিনেমা আছে যা দেখলে বিরক্তিকর লাগে না। বরং মুগ্ধ হতে হয় বারবার। এমনই কিছু হলিউড সিনেমার নাম জেনে নেওয়া যাক। 

দ্য গডফাদার (১৯৭২)
ফ্রান্সিস ফোর্ড কপোলার ‘দ্য গডফাদার’ সিনেমায় অভিনয় করেছেন মারলন ব্রান্ডো ও আল পাচিনো। 

দ্য ম্যাট্রিক্স (১৯৯৯)
সর্বকালের অন্যতম সেরা একটি সাইন্স ফিকশন হলো ‘দ্য ম্যাট্রিক্স’। মূল চরিত্রে কিনু রিভস অভিনীত সিনেমাটি বিশ্বের দর্শকদের পরিচয় করিয়ে দিয়েছিল, ভবিষ্যতের বিজ্ঞান কল্পকাহিনি ও অ্যাকশন কী রকম হবে। 

টাইটানিক (১৯৯৭)
জেমস ক্যামেরনের ‘টাইটানিক’ বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় সিনেমাগুলোর অন্যতম। আটলান্টিক মহাসাগরে টাইটানিক জাহাজে এক প্রেমিক জুটির কাহিনি ঘিরে নির্মিত সিনেমাটি এখনও দর্শকের চোখে ভাসে। লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও এবং কেট উইন্সলেট অভিনীত সিনেমাটি আরেকবার দেখে নিতে নিশ্চয়ই ভালো লাগবে দর্শকদের।

দ্য শশাঙ্ক রিডেম্পশন (১৯৯৪)
টিম রবিনস ও মরগান ফ্রিম্যান অভিনীত ‘দ্য শশাঙ্ক রিডেম্পশন’কে সর্বকালের অন্যতম সেরা প্রভাববিস্তারকারী সিনেমা হিসেবে বিবেচনা করা হয়। সিনেমাটির গল্পে জেলে বন্দি দুই বন্ধুর অনবদ্য দিনযাপন ও সুখের একটি সমাপ্তির আশায় তাদের প্রচেষ্টা দর্শকের চোখকে ভেজাবেই।

সাইকো (১৯৬০)
আলফ্রেড হিচককের কোনো সিনেমা যদি আপনি না দেখে থাকেন, তবে ক্রাইম-থ্রিলার ‘সাইকো’ দেখে নিতে পারেন। ‘ভালো লাগবে’ একথা নিশ্চিত করেই বলা যায়।

দ্য শাইনিং (১৯৮০)
একটি মনস্তাত্বিক হরর সিনেমা ‘দ্য শাইনিং’। স্টিফেন কিংয়ের উপন্যাস অবলম্বনে একই নামে নির্মিত সিনেমা। 


ট্যাক্সি ড্রাইভার (১৯৭৬)
হলিউডের কিংবদন্তি পরিচালক মার্টিন স্করসেজির এই সিনেমা এখনও মানুষকে মুগ্ধ করে। বন্ধের দিনে দেখে নিতে পারেন সিনেমাটি।

পাল্প ফিকশন (১৯৯৪)
কুয়েন্টিন টারান্টিনোর বিখ্যাত একটি সিনেমা ‘পাল্প ফিকশন’। গল্প বলা ও সিনেমা নির্মাণের ধারণাই বদলে দেয় এই সিনেমাটি।

সাধারণ ছুটির সময়টাতে ঘরে বসে বিরক্ত না হয়ে এই সিনেমাগুলো দেখে দারুণ সময় কাটাতে পারেন দর্শক।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৯ ঘণ্টা, মার্চ ৩০, ২০২০
এমকেআর

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: হলিউড
করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন কিনা জানা যাবে গণস্বাস্থ্যের কিটে
নারায়ণগঞ্জে মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বাবা গ্রেফতার
নরসিংদীতে নতুন ৪৩ জনের করোনা শনাক্ত, আক্রান্ত বেড়ে ৬৮৪
অণু মোস্তাফিজের সংগীতায়োজনে গাইলেন রথীন্দ্রনাথ রায়
স্বাস্থ্যখাতে দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযানের প্রস্তুতি দুদকের


২১ জুন বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ
নলডাঙ্গায় সড়ক দুর্ঘটনায় স্বামী নিহত-স্ত্রী আহত
বান্দরবানে জগন্নাথ দেবের স্নানযাত্রা অনুষ্ঠিত
হাসপাতালে করোনা রোগীদের ভোগান্তি বন্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে
খাদ্যের খোঁজে দল বেঁধে ঘুরছে হনুমান, কামড়ালো ১২ জনকে