php glass

মাটির গানে মন মাতালেন কাজল দেওয়ান

মো. জহিরুল ইসলাম মোহসান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কাজল দেওয়ান। ছবি: রাজীন চৌধুরী

walton

ঢাকা (আর্মি স্টেডিয়াম থেকে): আর্মি স্টেডিয়াম যখন দর্শকে কানায় কানায় পূর্ণ, তখন দলবল নিয়ে ফোকফেস্টের মঞ্চে উঠেন বাউলশিল্পী কাজল দেওয়ান। হেমন্তের হিম হিম পরিবেশে বিরহ ও আধ্যাত্মিক গানের মূর্ছনায় উষ্ণ করে তুলেন আগত লোকসংগীতপ্রেমীদের।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) রাতে মঞ্চে উঠতেই করতালি দিয়ে দর্শক কাজল দেওয়ানকে স্বাগত জানায়।

দর্শকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে শুরুতেই কণ্ঠ তোলেন ‘দিন ফুরাইলেই ভাইঙা যাইবো এই রঙ্গের মেলা’। এরপর তুমুল জনপ্রিয় বাউল গান ‘পিরিতির বাজার ভালা না’, ‘আমায়  এত দুঃখ দিলি বন্ধু রে’, ‘আরে ও জীবন রে’সহ বেশকিছু মন মাতানো গান পরিবেশন করেন কাজল।

ঘণ্টাব্যাপী পরিবেশনা শেষে বিরহের সুরে উপস্থিত সবাই নিজেদের খুঁজতে থাকেন এই বাউলশিল্পীর গানের কথামালায়।

ঢাকার কেরানীগঞ্জের এ গায়কের সংগীতে হাতেখড়ি শৈশবে। তার বাবা প্রখ্যাত বাউল কবি আবদুর রাজ্জাক দেওয়ান। যার হাত ধরে নিজেকে বাউল গানের সুরে আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে ফেলেছেন কাজল দেওয়ান। পালাগান ও লোকসংগীতকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পৌঁছে দিতে এ পর্যন্ত তিন শতাধিক অ্যালবাম প্রকাশ করেছেন তিনি।

এর আগে শফিকুল এবং কামরুজ্জামান রাব্বির শেকড়ের গানে ফোকফেস্টের দ্বিতীয় দিনের শুরুটা ছিল মনোমুগ্ধকর। কাজল দেওয়ানের পর সঙ্গীত পরিবেশন করতে মঞ্চে উঠেন মালির হাবিব কইটে অ্যান্ড বামাদা। এরপর বাংলাদেশের ফকির শাহাবুদ্দিন ও পাকিস্তানের হিনা নাসরুল্লাহ দর্শক-শ্রোতাদের সুরের মূর্ছনায় ভাসাবেন।

বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ‘ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব ২০১৯’ এর পর্দা উঠে। শনিবার (১৬ নভেম্বর) এই উৎসবের পঞ্চম আসরের পর্দা নামবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৫, ২০১৯
জেআইএম/এইচএডি/

লন্ডন-ম্যানচেষ্টার রুটেই চলবে ‘সোনার তরী’ ও ‘অচিন পাখি’
স্বাধীনতার ৪৮ বছরেও জনগণের প্রত্যাশা বাস্তবায়িত হয়নি
সুবিধাবঞ্চিতদের শীত নিবারণে ‘সুপ্রিম সুরক্ষার আবরণ’
শ্রীমঙ্গলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু
এখন কী করবে বিএনপি?


নেত্রকোণাকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন কিশোরগঞ্জ
‘খালেদা জিয়ার জামিন ঠেকানো নিয়ে ব্যস্ত সরকার’
দশ বছর পর ছোট পর্দায় ফিরছেন পার্নো মিত্র
করণীয় ঠিক করতে বৈঠকে বিএনপি
হল থেকে বহিরাগত আটক, চবি শিক্ষার্থীকে শোকজ