ঢাকা, সোমবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৭, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২ সফর ১৪৪২

শিক্ষা

ইউজিসির নির্দেশনা উপেক্ষা করে রাবিতে সান্ধ্য কোর্স চালু

রাবি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০১২ ঘণ্টা, জানুয়ারী ২৩, ২০২০
ইউজিসির নির্দেশনা উপেক্ষা করে রাবিতে সান্ধ্য কোর্স চালু

রাবি: সান্ধ্য কোর্স বন্ধের ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) নির্দেশনাকে উপেক্ষা করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইংরেজি বিভাগে নতুন করে সান্ধ্য কোর্স চালু করা হচ্ছে। 

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে সন্ধ্যাকালীন এমএ ও সার্টিফিকেট কোর্সে ভর্তি সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।  

গত ৯ ডিসেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সান্ধ্য কোর্স নিয়ে সমালোচনা করেন।

এরপর ১১ ডিসেম্বর দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে টাকার বিনিময়ে চলা সান্ধ্য কোর্স বন্ধ করাসহ ১৩টি নির্দেশনা দেয় ইউজিসি। এরপর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে চলমান সান্ধ্য কোর্সের যৌক্তিকতা যাচাইয়ের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ২৪ ডিসেম্বর একটি অনুসন্ধান কমিটি গঠন করে। এ কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সান্ধ্য কোর্স রাখা বা না রাখার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।  

সূত্রমতে, গত ১৫ জানুয়ারি রাবির ওয়েবসাইটে কলা অনুষদের অধিকর্তা, ইংরেজি বিভাগের সভাপতি, বিভাগটির সান্ধ্যকালীন এমএ ইন ইংলিশ কমিটি ও সান্ধ্যকালীন এমএ ইন ইএলটি (ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ টিচিং) কমিটির প্রধান সমন্বয়ক স্বাক্ষরিত সান্ধ্য মাস্টার্স কোর্স ও সার্টিফিকেট কোর্সের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত এই বিজ্ঞপ্তিতে এক বছর ও দুই বছর মেয়াদি সান্ধ্য মাস্টার্স কোর্স ও সার্টিফিকেট কোর্সে ভর্তিচ্ছুদের আবেদন যোগ্যতা, ভর্তি পরীক্ষার তারিখ, পাশ নম্বর ইত্যাদি উল্লেখ করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিভাগটির সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাদেশ অনুযায়ী সান্ধ্য কোর্স চালুর সিদ্ধান্ত একাডেমিক কাউন্সিল থেকে পাশ করা হয়েছে। গতবছরই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হত, কিন্তু শিক্ষকরা প্রস্তুত না থাকায় চালু করতে দেরি হল। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ে সান্ধ্য কোর্স বন্ধের সিদ্ধান্ত হলে আমাদের বিভাগেও বন্ধ করে দেওয়া হবে।

এদিকে, প্রায় একমাস পেরিয়ে গেলেও সান্ধ্য কোর্স রাখা না রাখার বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পারেনি সেই অনুসন্ধান কমিটি। এ ব্যাপারে কমিটির প্রধান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা বলেন, প্রায় মাসখানেক আগে কমিটি হয়েছে ঠিকই তবে আমি এ সংক্রান্ত চিঠি পেয়েছি আজ সকালে। তাই আমাদের কাজ শুরু করতে দেরি হয়েছে। আশা করছি আজই কাজ শুরু করতে পারব। ’ 

ইংরেজি বিভাগে সান্ধ্য কোর্স চালুর বিষয়ে তিনি বলেন, ‘যেহেতু এখনও সান্ধ্য কোর্স বন্ধের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি, তাই আমরা কাউকে সরাসরি বলতে পারি না যে সান্ধ্য কোর্স চালু করা যাবে না। তবে সান্ধ্য কোর্স বন্ধের সিদ্ধান্ত হওয়ার পর আর নতুন করে কোনো বিভাগে তা চালুর সুযোগ নেই। ’

বাংলাদেশ সময়: ০৫১০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০২০
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

শিক্ষা এর সর্বশেষ

Alexa