php glass

বশেমুরবিপ্রবি’তে পদত্যাগের হিড়িক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

walton

গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) পদত্যাগের হিড়িক পড়েছে। 

মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) সারাদিনে এ প্রতিষ্ঠানের ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা, ২টি হলের প্রভোস্ট ও ৪টি বিভাগের চেয়ারম্যানসহ মোট ৭ জন পদত্যাগ করেছেন। সবাই ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে পদত্যাগ করেন বলে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানায়। 

পদত্যাগকারীরা হলেন- ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা প্রফেসর ড. মো. আব্দুর রহিম খান, স্বাধীনতা দিবস হলের প্রভোস্ট মুহাম্মদ রবি উল্লাহ, শেখ রাসেল হলের প্রভোস্ট রবিউল ইসলাম, কৃষি বিভাগের চেয়্যারম্যান ড. এম. এ সাত্তার, আইন বিভাগের চেয়ারম্যান  মো. আব্দুল কুদ্দুস মিয়া, ফুড অ্যান্ড অ্যাগ্রো প্রসেস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান ড. নাজমুল হক শাহীন ও লাইভ স্টোক বিভাগের চেয়ারম্যান মো. শফিকুজ্জামান।

পদত্যাগকারীরা রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. নূরউদ্দিন আহমেদের কাছে নিজ নিজ পদত্যাগপত্র জমা দেন। পরে সেগুলো ভারপ্রাপ্ত ভিসির কাছে পাঠানো হয়। 

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নতুন করে ৬ জন সহকারী প্রক্টর নিয়োগ দিয়েছে। মঙ্গলবার রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত অফিস আদেশে এ তথ্য জানা যায়। 

সহকারী প্রক্টর পদে নিয়োগপ্রাপ্তরা হলেন- আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মানসুরা খানম, সিএসই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. নেসারুল হক, রসায়ন বিভাগের প্রভাষক নাসিরুদ্দিন, ইইই বিভাগের প্রভাষক চয়ন মণ্ডল, সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মো. হুমায়ূন কবীর ও সিএসই বিভাগের প্রভাষক এস.এ.এম মেহেদী হাসান।

ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য ড. মো. শাহজাহান পদত্যাগ ও সহকারী প্রক্টর নিয়োগের সত্যতা স্বীকার করেছেন।

এর আগে গত ১৩ অক্টোবর বশেমুরবিপ্রবির  শিক্ষার্থীরা পদত্যাগকারী করমকর্তাদের বিরুদ্ধে রেজিস্ট্রারের কাছে স্মারকলিপি দেন। এরও আগে গত ১১ সেপ্টেম্বর আইন বিভাগের ছাত্রী ও ক্যাম্পাস সাংবাদিক ফাতেমা-তুজ-জিনিয়াকে সাময়িকভাএ বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ওই ঘটনায় শিক্ষার্থীদের ব্যাপক আন্দোলনের মুখে ১৮ সেপ্টেম্বর প্রশাসন জিনিয়ার বহিষ্কারাদেশ তুলে নিতে বাধ্য হয়। পরবর্তীতে ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে শিক্ষার্থীরা অনিয়ম, দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, স্বজনপ্রীতি ও নারী কেলেঙ্কারীর অভিযোগ এনে ভিসির পদত্যাগের এক দফা দাবিতে আন্দোলন শুরু করে শিক্ষার্থীরা। 

পরবর্তীতে আন্দোলন চলাকালে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনায় ও ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে তিনজন সহকারী প্রক্টর পদত্যাগ করেন। টানা ১২ দিনের আন্দোলনের মুখে এক পর্যায়ে গত ৩০ সেপ্টেম্বর তৎকালীন ভিসি প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিনও পদত্যাগ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২২১১, অক্টোবর ১৫, ২০১৯
এইচজে 

এতিম সাজিয়ে দম্পতির কাছে চুরি করা শিশু বিক্রি
পাকুন্দিয়ায় প্রিমিয়ার ক্লাব ফুটবলের ফাইনাল অনুষ্ঠিত
করফাঁকির অভিযোগে ৫৫০০ কেজি তামাক জব্দ
শিপিং রিপোর্টার্স ফোরামের নতুন কমিটি
কেরানীগঞ্জে উদ্ধার কদমতলীর অপহৃত নারী, আটক ১


বেনাপোল কাস্টমসে নিয়োগ পরীক্ষার্থীদের ভোগান্তি 
জ্যাঠা শ্বশুরের বিরুদ্ধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ
শ্রীমঙ্গলে ক্রেতা সেজে দুটি ডাহুক উদ্ধার
গোলাপি বলের প্রথম দিনে ‘ব্যর্থ’ বাংলাদেশ
৪১ বছরে ইবি, শিক্ষার্থী ৩০০ থেকে ১৪ হাজার