php glass

নির্বাচনের ১৯ মাস পর গাকসুর অভিষেক

গণ বিশ্ববিদ্যালয় করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

গাকসুর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান। ছবি: বাংলানিউজ

walton

গণ বিশ্ববিদ্যালয় (সাভার): নির্বাচনের ১৯ মাস পর গণ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (গাকসু) অভিষেক ও শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) সাভারের গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের পিএইচএ মিলনাতয়নে আয়োজিত গাকসুর অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। এসময় তিনি গাকসু প্রতিনিধিদের শপথ বাক্য পাঠ করান।

মোজাম্মেল হক বলেন, একটি দেশের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে ছাত্রসমাজের ভূমিকা অনস্বীকার্য। ইতিহাস সাক্ষী, বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছাত্রসমাজের নেতৃত্বেই ন্যায্য দাবির বিভিন্ন আন্দোলনে সফলতা এসেছে। বর্তমানে বাংলাদেশের উন্নয়নকে ব্যাহত করতে নগণ্য সংখ্যক কিছু দুষ্কৃতিকারী সক্রিয়। তাদের রুখতে এদেশের ছাত্রসমাজকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। 

গাকসু সভাপতি গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. লায়লা পারভীন বানুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজীর আহমেদ।

এ আয়োজনের উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।

গাকসুর সাধারণ সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম রলিফের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন গাকসুর সহ-সভাপতি (ভিপি) মো. জুয়েল রানা। 

সেসময় জুয়েল রানা বলেন, অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার জন্য সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা। দীর্ঘ সময় পর হলেও শপথ গ্রহণ হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম অর্জনে কাজ করার পাশিপাশি শিক্ষার্থীদের সব ন্যায্য দাবি আদায়ে সরাসরি তাদের পাশে থেকে কাজ করবো।

দেশের প্রথম ও একমাত্র বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গণ বিশ্ববিদ্যালয়েই রয়েছে নির্বাচিত ছাত্র সংসদ। ২০১৮ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি গাকসুর তৃতীয় কমিটির ৬টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

এতে শিক্ষার্থীদের সরাসরি ভোটে দুই বছরের জন্য সহ-সভাপতি (ভিপি) হিসেবে মো. জুয়েল রানা ও সাধারণ সম্পাদক (জিএস) হিসেবে মো. নজরুল ইসলাম রলিফ নির্বাচিত হন। নির্বাচনের পর বিভিন্ন জটিলতার কারণে এতদিন পর ছাত্র সংসদের অভিষেক অনুষ্ঠিত হল।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯
এসএ/

ksrm
এবার খুলনায় দুদুর নামে মামলার আবেদন
সেপটিক ট্যাংক পরিষ্কারে নেমে ২ শ্রমিকের মৃত্যু
ফতুল্লার ঘিরে রাখা বাড়িতে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট
বৃষ্টি উপেক্ষা করে আন্দোলনে বশেমুবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা
বয়সের জন্যই বলিরেখা পড়ছে না, শোয়ার অভ্যাসও দায়ি 


চা গাছে ‘অতিমাত্রায়’ ছত্রাকনাশক
বন্দরে তৈরি হচ্ছে ২২০ মিটার দীর্ঘ ‘সার্ভিস জেটি’
যেসব কারণে বাংলাদেশসহ ভারতে পেঁয়াজের দাম ঊর্ধ্বমুখী
গাজীপুরে বজ্রপাতের আগুনে পুড়লো ৫ বসতঘর 
বিকেএমইএ’র নির্বাচনে জয়ের পথে সেলিম ওসমানের প্যানেল