ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

অর্থনীতি-ব্যবসা

শুল্ক ফাঁকিতে সহযোগিতার অভিযোগে ৩ কাস্টমস কর্মকর্তা বরখাস্ত

উপজেলা করসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৭-১৩ ০৪:২৭:৪৮ পিএম
শুল্ক ফাঁকিতে সহযোগিতার অভিযোগে ৩ কাস্টমস কর্মকর্তা বরখাস্ত

বেনাপোল (যশোর): প্রায় ৩০ লাখ টাকা শুল্ক ফাঁকিতে সহযোগিতা করে আমদানি পণ্যে চালান খালাস দেওয়ার অভিযোগে বেনাপোল কাস্টমস হাউজের তিন কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া রাজস্ব ফাঁকির সহয়তায় দুই কাস্টমস সিঅ্যান্ডএফ (ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং) প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্সও বাতিল করা হয়েছে।

সোমবার (১৩ জুলাই) বিকেলে বেনাপোল কাস্টমস হাউজের অতিরিক্ত কমিশনার ড. নেয়ামুল ইসলাম বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।  

অভিযুক্ত কাস্টমস কর্মকর্তারা হলেন- বেনাপোল কাস্টমস হাউজের রাজস্ব কর্মকর্তা রাশেদুল ইসলাম, সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শহিদুল্লাহ ও ইবনে নোমান।

এছাড়া বাতিল করা লাইসেন্স সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট মদিনা এন্টার প্রাইজ ও মাহিবি এন্টার প্রাইজ।

কাস্টমস সূত্রে জানা যায়, ভারত থেকে ৬৬৫ প্যাকেজ মোটর পার্টসসহ অন্যান্য পণ্য আমদানি করে ঢাকার আমদানিকারক আলহামদুলিল্লাহ এন্টার প্রাইজ। এসময় আমদানিকারক ও তার প্রতিনিধি সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অভিযুক্ত তিন কাস্টমস কর্মকর্তাদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে পণ্যের চালান ছাড় করিয়ে নিয়ে যান। বিষয়টি কাস্টমসের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা জানতে পেরে ঘটনা তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এই আইনগত ব্যবস্থা নেন।

বেনাপোল কাস্টমসে রাজস্ব ফাঁকিসহ বিভিন্ন অনিয়ম বেড়ে যাওয়ায় গত তিন বছর ধরে এ বন্দর থেকে সরকারের বিপুল পরিমাণে রাজস্ব ঘাটতি হচ্ছে। সর্বশেষ গেল ২০১৯-২০ অর্থবছরে রাজস্ব ঘাটতি হয়েছে তিন হাজার ৩৯২ কোটি ২২ লাখ টাকা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৫ ঘণ্টা ঘণ্টা, জুলাই ১৩, ২০২০
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

অর্থনীতি-ব্যবসা এর সর্বশেষ

Alexa