ঠেগামুখ স্থলবন্দরের কাজ দ্রুত শুরু করা হবে: এমপি দীপংকর

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আয়কর মেলা উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্য দিচ্ছেন সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার

walton

রাঙামাটি: রাঙামাটি আসনের সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার বলেছেন, রাঙামাটিতে ঠেগামুখ স্থলবন্দরের কাজ দ্রুত শুরু করার জন্য উদ্যোগ নিচ্ছি। এজন্য ভারতের মিজোরাম প্রদেশের সরকার প্রধানের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) সকালে রাঙামাটি চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাস্ট্রিজ মিলনায়তনে আয়কর মেলা উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

দীপংকর আরও বলেন, ঠেগামুখ বন্দরের কাজ এগিয়ে নিতে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয় সংসদীয় কমিটির সভাপতি মেজর (অব.) রফিক এবং ভারতীয় হাই কমিশনারকে নিয়ে মিজোরামে যাব। বন্দরটি স্থাপিত হলে এ অঞ্চলের অর্থনৈতিক দৃশ্যপট বদলে যাবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এমপি দীপংকর রাঙামাটি চেম্বারে অব কমার্সের সভাপতি বেলায়েত হোসেন ভূঁইয়ার উদ্বৃতি দিয়ে বলেন, কাউখালী উপজেলায় একটি ‘ইকোনমিক জোন’  করার পরিকল্পনা হাতে রয়েছে। সরকার পার্বত্যাঞ্চলের উন্নয়নে আন্তরিক। 

এমপি আরও বলেন,  পার্বত্য চট্টগ্রামে উন্নয়নে বড় বাধা হলো অবৈধ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী। আর এ সন্ত্রাসী বাহিনী দমন করতে পারলে এ অঞ্চলে গার্মেন্টস, কারখানা গড়ে তোলা সম্ভব। আর শিল্পকারখানা গড়ে উঠলে মানুষ সাবলম্বী হবে। মানুষ সাবলম্বী হলে সরকার কর আদায় করতে পারবে।

চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-৩ এর কমিশনার মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে এসময় বিশেষ অতিথি ছিলেন রাঙামাটি জেলা প্রশাসক (ডিসি) একেএম মামুনুর রশীদ, রাঙামাটি চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাস্ট্রিজের সভাপতি বেলায়েত হোসেন ভুঁইয়া এবং চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-৩ এর যুগ্ম সচিব প্রতাপ চন্দ্র পালসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্যরা।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৫, ২০১৯
এসএইচ

Nagad
বাংলাদেশ থেকে সব ধরনের ফ্লাইট স্থগিত করলো ইতালি 
সড়কে সন্তান প্রসব, নবজাতক ও মা বিদ্যানন্দ হাসপাতালে
সিরাজগঞ্জে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ চলছে
বাংলাদেশের অর্থনীতি সহনশীল: এইচএসবিসি ইকোনমিস্ট
বরিশালে করোনায় এসআইয়ের মৃত্যু


আসছে বিশেষ বিসিএস, নিয়োগ পাবেন আরো ২ হাজার চিকিৎসক
করোনায় প্রাণ গেলো কলকাতার অভিনেতার
ধোনির জন্মদিনে ব্র্যাভোর গান (ভিডিও)
বুড়িগঙ্গায় ধাক্কা দেওয়া লঞ্চের সুপারভাইজার রিমান্ডে
পাটকল শ্রমিকনেতাদের গ্রেফতারের নিন্দা ও মুক্তি দাবি