php glass

জাহাজ নির্মাণশিল্পে নবদিগন্ত তুলে ধরেছে বসুন্ধরা গ্রুপ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বসুন্ধরা গ্রুপের স্টলে দেশীয় জাহাজ নির্মাণ ও মেইনটেন্যান্সের তিনটি প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে। ছবি: জিএম মুজিবুর

walton

ঢাকা: দেশের সম্ভাবনাময় ব্লু ইকোনোমিতে নতুন ধারা সংযোজনে শিল্প উদ্যোক্তাদের জন্য জাহাজ নির্মাণশিল্প, মেরিটাইম ইঞ্জিনিয়ারিং, অফশোর ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি, শিপ ব্রেকিং ইকুইপমেন্ট, বন্দর সম্পর্কিত আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী আয়োজন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি, বসুন্ধরার (আইসিসিবি) চার নম্বর হলে বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল মেরিন অ্যান্ড অফশোর এক্সপো (বাইমক্স ২০১৯) শীর্ষক তিনদিনের এই প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়। 

স্যাভর ইন্টারন্যাশনাল আয়োজিত প্রদর্শনীতে শিপ রিসাইক্লিং, অফশোর অয়েল অ্যান্ড গ্যাস সাপোর্ট, শিপিং লজিস্টিক, ফিশিং ভেসেলস ফিশারি, শিপ বিল্ডিং শীর্ষক বিভিন্ন প্রযুক্তি ও পণ্য প্রদর্শিত হচ্ছে।

প্রদর্শনীতে বসুন্ধরা গ্রুপের স্টলে দেশীয় জাহাজ নির্মাণ ও মেইনটেন্যান্সের তিনটি প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠান তিনটি হলো অয়েল ট্যাঙ্কার, কার্গো ভেসেল, ড্রেজিং ও শিপ মেইনটেন্যান্সের শীর্ষ প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা ইনফ্রাসট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড, বসুন্ধরা শিপিং লিমিটেড ও বসুন্ধরা স্টিল অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড। বসুন্ধরা গ্রুপের স্টলে দেশীয় জাহাজ নির্মাণ ও মেইনটেন্যান্সের তিনটি প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে। ছবি: জিএম মুজিবুরএই শিল্পের নবদিগন্ত নিয়ে বিশ্বমানের আধুনিক প্রযুক্তি প্রদর্শনীতে তুলে ধরেছে প্রতিষ্ঠানগুলো। এরমধ্যে বসুন্ধরা শিপিং লিমিটেড দেশের বিভিন্ন গ্রুপের জাহাজ মেইনটেন্যান্স করে থাকে। চট্টগ্রাম ও মোংলা বন্দর থেকে পণ্য পরিবহনে কাজ করে থাকে প্রতিষ্ঠানটি। তারা আকিজ গ্রুপ, ওরিয়ন গ্রুপ, করিম গ্রুপ, নওয়াপাড়া গ্রুপের জাহাজ মেইনটেন্যান্স করছে। 

বসুন্ধরা স্টিল অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড তৈরি করছে অয়েল ট্যাঙ্কার ও কার্গো ভেসেল। সর্বাধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির বিভিন্ন কার্যক্রম প্রদর্শিত হচ্ছে প্রদর্শনীতে। 

বসুন্ধরা ইনফ্রাসট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড (বিআইডিএল) দেশের ড্রেজিং শিল্পের অন্যতম পথিকৃৎ। বর্তমানে দেশের নদী ড্রেজিংয়ের ক্ষেত্রে প্রধান শিল্পপ্রতিষ্ঠান এটি। 

বিআইডিএলের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ শাহিন বেল্লাল বাংলানিউজকে জানান, বর্তমানে কিশোরগঞ্জের ব্রহ্মপুত্র, টাঙ্গাইলের ধলেশ্বরী, কিশোরগঞ্জের ভৈরব, নরসিংদীর আড়িয়াল খাঁ, নেত্রকোনার কংস, দোহারের পদ্মা নদী ড্রেজিংয়ের কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি।

দ্বিতীয়বারের মত আয়োজিত এই প্রদর্শনীতে ১৪টি দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান মোট ১৬০টিরও বেশি স্টলে তাদের পণ্য-প্রযুক্তি প্রদর্শন করছে। শিপ ব্রেকিং শিল্পের সঙ্গে জড়িত প্রতিষ্ঠানগুলো নিয়ে এসেছে বিশ্বসেরা আধুনিক প্রযুক্তি। দেশের সামুদ্রিক অর্থনীতিতে রফতানিপণ্যের সম্ভাবনাময় এই খাতে বিনিয়োগের সঙ্গে পরিচিত হতে বিভিন্ন প্রান্ত এসেছেন উদ্যোক্তরা। বসুন্ধরা গ্রুপের স্টলে দর্শনার্থীদের সঙ্গে কথা বলছেন কর্মকর্তারা। ছবি: জিএম মুজিবুরদর্শনার্থীরা বলছেন, এ প্রদর্শনী মেরিটাইম ও অফশোর শিল্পে বাংলাদেশি ও আন্তর্জাতিক উদ্যোক্তাদের জন্য নতুন সুযোগ সৃষ্টি করছে।

প্রদর্শনীটি উদ্বোধনের পর ২১ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সবার জন্য খোলা থাকবে।

প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন নৌপরিবহন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কমোডর সৈয়দ আরিফুল ইসলাম, ফায়ার ওয়ার্কস মিডিয়া গ্রুপের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার কেনি ইয়ং এবং চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার সুসান ট্রিসিয়াসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বাংলাদেশ সময়: ২২০৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯
এসই/এইচএ/

আবারও ফোল্ডিং ফোন আনছে মটোরোলা
নানিকে হত্যা করে নাতির আত্মসমর্পণ
‘দেশের শিশুদের অনুপ্রেরণা শেখ রাসেল’
খুলনায় রিকশা সঙ্কটে জনজীবনে দুর্ভোগ
সাভারে সুতার গোডাউনে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট


বাংলাদেশ আজ বিনিয়োগের উর্বর ভূমি
উন্নয়নের গণতন্ত্রের নাম অন্য কোথাও শুনিনি: রব
শিশু নির্যাতন রোধে ইসলামের নির্দেশনা
লিভারের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে অমিতাভ বচ্চন
দেশি মাছের সমাহার, শিবচরের বেইলি ব্রিজ বাজার