php glass

আইসিসিআর অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হলেন রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা

walton

ঢাকা: ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনস (আইসিসিআর) অ্যালামনাই অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হলেন দেশের বিশিষ্ট রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনে রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ। মূলত ২০১৭ সালে এ পুরস্কারে ভূষিত হন শিল্পী, তবে সে সময় আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কার গ্রহণ করতে না পারায় সন্ধ্যায় আয়োজনের মধ্য দিয়ে তার হাতে এ পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

এ পুরস্কার ভারতীয় সরকার দেওয়া আইসিসিআর শিক্ষা বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে যারা দু'দেশের বন্ধুত্বে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছেন, তাদের দেওয়া হয়।

শিল্পীর হাতে পুরস্কার তুলে দিয়ে ভারতীয় হাই কমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ বলেন, এ পুরস্কার দু’দেশের বন্ধুত্বকে আরও দৃঢ় করবে এবং শিল্পী দু’দেশের সংস্কৃতিতেই গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে আশা করি।

তিনি বলেন, ভারত সরকার বিভিন্ন বিষয়ে দেশটিতে শিক্ষাগ্রহণের জন্য প্রায় সাড়ে ছয় হাজার শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দিচ্ছে। আমরা আশা করি, এ বৃত্তি শিক্ষার্থীদের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা বলেন, ২০১৭ সালে দিল্লি গিয়ে পুরস্কার নিতে না পারায় দুঃখ হয়েছিল। তবে এখন যে এখানে সবাইকে নিয়ে এ আয়োজনে পুরস্কার গ্রহণ করছি, এটা আরও বেশি আনন্দের। আমার ভেতর থেকে ভালো লাগছে। এ পুরস্কার দায়িত্ব এবং দায়বদ্ধতা দুটেই বাড়িয়ে দিলো। যারা সংস্কৃতি চর্চা করেন, সংস্কৃতির সঙ্গে থাকেন, এ পুরস্কার তাদের সবার জন্য।

পুরস্কার প্রদানের আনুষ্ঠানিকতা শেষে মঞ্চে রবীন্দ্রসঙ্গীত পরিবেশনা করেন আয়োজনের মধ্যমণি রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা এবং সুরের ধারা শিক্ষালয়ের শিক্ষার্থীরা। রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার নির্দেশনায় রবীন্দ্রনাথের আজীবনের পথচলা এবং পথচলা বিষয়ক বিভিন্ন আঙ্গিকের গান পরিবেশন করা হয় এ নিবেদনে।

শিল্পী বলেন, রবীন্দ্রনাথ আজীবন এক পথের নেশায় চলা পথের কবি। পথের ধারে বসে তিনি পথকে চিনেছেন, রৌদ্র বর্ষা অনুভব করেছেন। একইসঙ্গে পথেই নিজের জীবন উদযাপন করেছেন।

এসময় সুরের ধারার শিক্ষার্থীরা 'গানের সুরের আসরখানি', 'আমার পথে পথে পথ ছড়ানো', 'হবে না তোর সর্ব সাধন' গানগুলো পরিবেশন করেন। রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা পরিবেশন করেন 'আমার এ পথ চাওয়াতেই আনন্দ' এবং 'পথে যেতে দেখেছিলে মোরে' গান দু’টি।

এরপর একে একে প্রকৃতি প্রেম ও জীবনের গল্প নিয়ে সুরের ধারার শিল্পীরা 'চলার পথে পথে', 'অশ্রু নদী সুদূর পাড়ে', 'পাতার খেলা ভাষায়', আমি শ্রাবণ ঘণ গহন মেঘ', 'দখিনা হাওয়ায় জাগো জাগো' গানগুলো পরিবেশন করেন। রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা আরো পরিবেশন করেন 'আমার এই পথ গেছে বেঁকে', 'যা হবার তা হবে', 'আমার ভাঙা পথের রাঙা ধূলোয়' এবং 'পথ দিয়ে কে যায় গো চলে' শীর্ষক গানগুলো।

সবশেষে সমবেত কণ্ঠে গেয়ে ওঠে সবাই। এসময় পুরো হলজুড়ে সুর ওঠে 'চলি গো চলি গো যায় গো চলে...'।

এসময় ভারতীয় হাইকমিশনের ইন্দিরা গান্ধী কালচারাল সেন্টারের পরিচালক ড. নীপা চৌধুরীসহ ভারতীয় হাইকমিশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১১৫০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৫, ২০১৯
এইচএমএস/ওএইচ/

সৌম্যের ফিফটিতে ভুটানকে উড়িয়ে দিল বাংলাদেশ
শ্রীনগরে বাসচাপায় চাচা নিহত, ভাতিজা আহত 
চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে সবজি, মাছেও নেই স্বস্তি
‘ঘি’ মানসম্মত না হওয়ায় মামলা
উত্তর জেলা আ’লীগের সম্মেলন ঘিরে চাঙা নেতা-কর্মীরা


শীত জেঁকে বসতেই খুলনায় হাঁস খাওয়ার মহোৎসব!
পুরোনো লাইনেই ইন্টারনেটের স্পিড বাড়বে! 
মেঘনার পাড় কেটে ইট তৈরি, ভাঙন আতঙ্ক!
সন্ধ্যায় বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন মিথিলা-সৃজিত!
রাউজানে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের মাঝে টিফিন বক্স বিতরণ