শেষ হলো কলকাতায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

শেষ গলো কলকাতার চলচ্চিত্র উৎসব

কলকাতা: দর্শকদের ব্যাপক আগ্রহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে কলকাতায় সোমবার(১৮ ফেব্রুয়ারি) শেষ হলো বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব। যা এবার কলকাতায় দ্বিতীয় বারের জন্য অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

php glass

তিনদিনব্যাপী এ চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলাদেশের সমাজচিত্র, মুক্তিযুদ্ধ, রাজনীতি ও বঙ্গবন্ধুর জীবনালেখ্যের ওপর মোট ২৩টি ছবি প্রদর্শিত হয় রবীন্দ্রসদন সংলগ্ন নন্দন-২, নন্দন-৩ এবং নজরুল তীর্থে প্রেক্ষাগৃহে। প্রতিটি চলচ্চিত্রেই দর্শকদের বিশেষ আগ্রহ দেখা গিয়েছে। যার মধ্যে অনেকেই এরকম আরও বাংলাদেশি ছবি দেখার ইচ্ছা পোষণ করে।

এ উৎসব গত ১৫ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের তথ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে কলকাতাস্থ বাংলাদেশ উপদূতাবাসের সহযোগিতায় নন্দনে উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, পশ্চিমবঙ্গের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব, চলচ্চিত্র পরিচালক গৌতম ঘোষ ও ঢাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী দাস।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপদূতাবাসের প্রথম সচিব (প্রেস) মো. মোফাকখারুল ইকবাল এবং শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন উপ হাইকমিশনার তৌফিক হাসান। এছাড়া এ ক’দিনে কলাকুশলীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র অভিনেতা ফেরদৌস, জয়া, রিয়াজ, অপু বিশ্বাস ও তারিন।

উদ্বোধনী পর্বে আমাদের বঙ্গবন্ধু (প্রামাণ্য চিত্র) প্রদর্শিত হয়। বাকি ছবিগুলো হলো: পুত্র, আমাদের বঙ্গবন্ধু, পোস্টমাস্টার ৭১, স্বপ্নজাল, দহন, রাজনীতি, হেডমাস্টার, জীবনঢুলি, নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ, ঘেটুপুত্র কমলা, নুরু মিয়া ও তার বিউটি ড্রাইভার, গহীন বালুচর, আলফা, জান্নাত, জন্মভূমি, রাজপুত্র, পাঠশালা, সনাতন গল্প, মহুয়া সুন্দরী, জাগে প্রাণ পতাকায় জাতীয় সঙ্গীতে, খাঁচা, গেরিলা এবং চিত্রা নদীর পাড়ে।

বাংলাদেশ সময়: ০৬৫২ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৯
ভিএস/এসএইচ 

‘জয় বাংলা’ জাতীয় স্লোগান করার দাবি মেয়র নাছিরের
‘বাঙালির ঐতিহ্য ধারণ করে এগিয়ে যেতে হবে’
দেশজুড়ে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন 
নানা কর্মসূচিতে বিএসএমএমইউ'র স্বাধীনতা দিবস উদযাপন
চাঁদপুরে নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ তিস্তার প্রদর্শন


‘মানচিত্র’ নিয়ে এলো ঘুড্ডি
বীরের মতো | আলমগীর কবির 
স্বাধীনতা দিবসে সবার জন্য উন্মুক্ত নৌবাহিনীর জাহাজ
রাবি আর্কাইভস ও বিদ্যাবার্তা প্রকাশনা উদ্বোধন
কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ