৬০০ দিন পরে সেঞ্চুরি পেলেন ওয়ার্নার

ওয়ার্ল্ড কাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

পাকিস্তানের বিপক্ষে শট খেলছেন ডেভিড ওয়ার্নার: ছবি-সংগৃহীত

walton

সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ৩ রানের দূরত্বে দাঁড়িয়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। শাহীন আফ্রিদির বলে উইকেটরক্ষক ও থার্ড ম্যানের মাঝখান দিয়ে চার মেরে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৫তম এবং ২০১৯ বিশ্বকাপে প্রথম সেঞ্চুরি পেলেন এই অজি ওপেনার। 

ওয়ানডেতে ওয়ার্নারের এই সেঞ্চুরি এসেছে প্রায় ৬০০ দিন পর। নিষেধাজ্ঞার আগে তিনি সবশেষ সেঞ্চুরি পেয়েছেন ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭ সালে, ভারতের বিপক্ষে। 

পাকিস্তানের বিপক্ষে ১০২ বলে ১০১ রান করে দীর্ঘদিন পর সহজাত ভঙ্গিতে সেঞ্চুরি উদযাপন করেন ওয়ার্নার। সেঞ্চুরি করার পথে তিনি হাঁকিয়েছেন ১১ চার ও ১ ছক্কা। 

তবে সেঞ্চুরির পর বেশিক্ষণ টিকে থাকতে পারেননি ওয়ার্নার। দলীয় ২৪২ রানের মাথায় ১১১ বলে ১০৭ রান করে তিনি ফেরত যান শাহীন আফ্রিদির বলে ইমাম-উল-হককে ক্যাচ দিয়ে।

এর আগে পাকিস্তানের বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে নেমে অ্যারন ফিঞ্চের সঙ্গে ১৪৬ রানের ওপেনিং জুটি গড়েন ওয়ার্নার। ফিঞ্চ সেঞ্চুরি বঞ্চিত হোন মোহাম্মদ আমিরের বলে। সাজঘরে ফেরার আগে ৮৪ বলে ৮২ রান করেন অজি অধিনায়ক। 

বেশিক্ষণ ব্যাট করতে পারেননি স্টিভেন স্মিথও। মোহাম্মদ হাফিজের বলে ১০ রান করে আউট হোন তিনি। এরপর গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে বোল্ড করেন শাহীন আফ্রিদি। ১০ বলে ২ চার ও ১ ছক্কায় ২০ রান করেন ম্যাক্সি।

এই রিপোর্ট লেখা পযর্ন্ত ৩৭ ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ২৪৭ রান সংগ্রহ করেছে অস্টেলিয়া। ব্যাট করছেন শন মার্শ (৯) ও উসমান খাজা (২)। 

চলতি বিশ্বকাপে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচ খেলতে মাঠে নেমেছে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তান। ম্যাচে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। টনটনে বাংলাদেশ সময় বেলা সাড়ে ৩টায় শুরু হয় ম্যাচটি।

বিশ্বকাপে পাকিস্তানের শুরুটা হয় বড় হার দিয়ে। সেই ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিস্তানই পরের ম্যাচে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ঘুরে দাঁড়ায়। তবে তৃতীয় ম্যাচে বৃষ্টির কারণে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নামা হয়নি সরফরাজ আহমেদের দলের।

আসরে অস্ট্রেলিয়ার সাথে পাকিস্তানের রেকর্ড খুব বেশি ভালো নয়। অজিদের সাথে বিশ্বকাপের সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচে চারবারই পরাজয়বরণ করে মাঠ ছেড়েছে পাকিস্তান। তাছাড়া চলতি বছরই বিশ্বকাপের আগে দুবাইয়ে অজিদের কাছে হোয়াইটওয়াশ হয় তারা। তবে অতীতের এই সব পরিসংখ্যান নিয়ে মোটেও চিন্তিত নয় দলটি। তাদের কাছে প্রতিটি দিনই নতুন একটা দিন।

অপরদিকে নিজেদের সবশেষ ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে হারের পর জয়ের জন্য বেশ মরিয়া হয়ে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। তাই তারা খেলবে নিজেদের সবটুকু দিয়েই। ম্যাচের আগে ইনজুরিতে আক্রান্ত হয়ে অলরাউন্ডার মার্কাস স্টয়নিস ছিটকে পড়লেও তার বদলি হিসেবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে মিচেল মার্শকে। সব মিলিয়ে নিজেদের ফিরে পেতে দলকে সমৃদ্ধ করেই পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামবে অজিরা। আর এই ম্যাচে যে কেউই কাউকে ছাড় দেবে না, তা বোধহয় ক্রিকেট ভক্তদের নতুন করে বলার নেই। এখন কেবল দু’দলের মাঠে নামার অপেক্ষা।

পাকিস্তান একাদশ: ইমাম-উল-হক, ফখর জামান, বাবর আজম,  মোহাম্মদ হাফিজ, সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), শোয়েব মালিক, আসিফ আলী, ওহাব রিয়াজ, হাসান আলী, শাহীন শাহ আফ্রিদি ও মোহাম্মদ আমির।

অস্ট্রেলিয়া একাদশ: ডেভিড ওয়ার্নার, অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), উসমান খাজা, স্টিভেন স্মিথ, শন মার্শ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, অ্যালেক্স ক্যারি (উইকেটরক্ষক), নাথান কোল্টার-নাইল, প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক ও কেন রিচার্ডসন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৫ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০১৯
ইউবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ CWC19
গ্রিন রোডে ১৭ ফার্মেসিকে জরিমানা
মুশফিকের সেঞ্চুরিতে লড়াই করে হারলো বাংলাদেশ
রিয়াদের বিদায়ের পরের বলেই বোল্ড সাব্বির
চট্টগ্রামে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন
মুশফিকের ফিফটিতে বাংলাদেশের ২০০ রানের কোটা পার


লেগ বিফোরের ফাঁদে লিটন
বিশ্ববিদ্যালয়ের সাফল্য নির্ভর করে গবেষণায়
লাল ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল সংকট, পরিবর্তে নীল ক্যাপসুল
সরফরাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চান কামরান আকমলও
পুলিশে নিয়োগের নামে প্রতারণা, লাখ টাকাসহ আটক ১