ভারতের ‘আত্মসমর্পণে’ ক্ষোভে ফুঁসছে ক্রিকেটবিশ্ব

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: সংগৃহীত

walton

ক্রিকেট বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে রোববার (৩০ জুন) স্বাগতিক ইংল্যান্ডের কাছে হেরে গেছে আসরের অন্যতম ফেভারিট ভারত। ইংলিশদের ৩৩৭ রান তাড়া করে ৩১ রানের হার আপাত দৃষ্টিতে খুব একটা আপত্তিকর না হলেও, লম্বা ব্যাটিং লাইনআপ সমৃদ্ধ দলটি যেভাবে খেলেছে, তাতে অবাক ক্রিকেটভক্তরা। তাদের দাবি, ব্যাটিংয়ের শুরু থেকেই মনে হয়েছে, ভারত জয়ের জন্য খেলছে না। রোহিতের শতক, কোহলির অর্ধশতক আর হাতে পাঁচ উইকেট থাকার পরও মাত্র(!) ৩০৬ রানেই থেমে গেছে তাদের ইনিংস।

পাহাড় সমান রান তাড়া করতে নেমে প্রথম ১০ ওভারে মাত্র ২৮ রান তোলে ভারত, যা এবারের বিশ্বকাপেই সর্বনিম্ন। তবু, শেষ ১১ ওভারে জয়ের জন্য ১১২ রান দরকার ছিল তাদের। টি-২০র যুগে এ রান খুব কঠিন কিছু নয়, বিশেষ করে, যখন হাতে আছে মহেন্দ্র সিং ধোনি, হার্দিক পান্ডিয়া, ঋষভ পন্থের মতো হার্ডহিটার ব্যাটসম্যানরা। 

কিন্তু, শেষের দিকে ধোনি ও কেদার যাদবের কর্মকাণ্ডে অবাক সমর্থকেরা। হাতে উইকেট থাকার পরও চার-ছক্কার চেষ্টা না করে এক-দুই রান নিয়ে সময় কাটিয়েছেন তারা। এসময় মনে হয়েছে, হারার আগেই যেন হেরে বসে আছে ভারত!

তাদের এমন অদ্ভুত ব্যাটিংয়ে ক্ষেপেছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। সমালোচনা করেছেন সৌরভ গাঙ্গুলী, সঞ্জয় মাঞ্জেরেকার, হর্ষ ভোগলের মতো ক্রিকেট বিশ্লেষকেরা।

ভারতের সাবেক ক্রিকেটার সঞ্জয় মাঞ্জেরেকার টুইটারে লিখেছেন, ভারতের জয়রথ থামানোর মতো যদি কোনো দল থাকে, সেটা ইংল্যান্ডই। তবে, শেষ কয়েক ওভারে ধোনির কার্যক্রম বিভ্রান্তিকর। 

বিখ্যাত ধারাভাষ্যকার হর্ষ ভোগলে লিখেছেন, হতাশাব্যঞ্জক সমাপ্তি। এক বল-এক রানের পার্টনারশিপে খেলায় জেতা যায় না। পান্ডিয়া (হার্দিক পান্ডিয়া) থাকা পর্যন্ত (খেলা) উত্তেজনাপূর্ণ ছিল।

পাকিস্তানের সাবেক ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার লিখেছেন, ভারত আরও ভালো খেলতে পারতো। প্রথম ১০ ওভারে আগ্রাসী চেষ্টা ও পরে পাঁচ উইকেট হাতে রেখে, তারা চমক দেখাতে পারতো।

শোয়েবের টুইটের রিপ্লাইয়ে মেহরান খান নামে এক ব্যবহারকারী ইংল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটার নাসের হুসেইন ও সৌরভ গাঙ্গুলীর কথোপকথন উল্লেখ করে লিখেছেন, 
‘নাসের: আমি বুঝি না, ধোনি কী করছে? অন্তত চেষ্টা তো করবে! এখন ভক্তরাও চলে যাচ্ছে।
সৌরভ: আমার কাছে এর কোনো ব্যাখ্যা নেই।’

সুরেশ রাও নামে আরেকজন লিখেছেন, সৌরভ গাঙ্গুলী ধোনি ও যাদবের ব্যাপারে ঠিক বলেছেন। শেষ পাঁচ ওভারে যদি বল সীমানাছাড়া করতে না পারেন, তবে যে পারে, তাকে জায়গা করে দেন। 

সমালোচনার আগুনে সবচেয়ে বেশি পুড়ছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা ফিনিশার বলে খ্যাত ভারতের সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। কয়েকজন তো তিনিসহ গোটা টিম ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধেই ম্যাচ পাতানোর অভিযোগ তুলেছেন।

তবে, সবাই যে সমালোচনা করছে তা নয়। কয়েকজন ধোনির পক্ষেও সাফাই গেয়েছেন। তাদের দাবি, এ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান তার যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন। দিনশেষে তিনিও মানুষ, তারও সামর্থ্যের সীমা আছে। তাই, ধোনির চেষ্টা নিয়ে প্রশ্ন তোলা উচিৎ নয়।

বাংলাদেশ সময়: ১১৫৮ ঘণ্টা, জুলাই ০১, ২০১৯
একে

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: CWC19
ঈদে প্রকাশ হলো ইকরিমিকরির গান
লকডাউন: মৃত্যুপথযাত্রী মাকেও দেখতে যাননি ডাচ প্রধানমন্ত্রী
নারগিস ফাখরির সঙ্গে তাপসের গান ‘নিত দিন জিয়া মারা’
কোটচাঁদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
ধরা পড়ে আবারও বিয়ের পিঁড়িতে নারী ভাইস চেয়ারম্যান


নারায়ণগঞ্জে সর্বোচ্চ করোনা শনাক্তের দিন শহর ফাঁকা!
বোলারদের মাস্ক ব্যবহারের পরামর্শ মিসবাহ’র
শিরোইল পুলিশ ফাঁড়ির ১৮ সদস্য কোয়ারেন্টিনে
লালা ব্যবহার নিষিদ্ধ হলে মানুষ আর ক্রিকেট দেখবে না: স্টার্ক
মুকসুদপুরে পৃথক সংঘর্ষের ঘটনায় ওসিসহ আহত ৪৫