জয়ে চোখ শ্রীলঙ্কার, মান রক্ষার ম্যাচে উইন্ডিজ

ওয়ার্ল্ড কাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি:সংগৃহীত

walton

এক সময় ক্রিকেট বিশ্বে ত্রাস ছিল শ্রীলঙ্কা। ডি সিলভা, জয়সুরিয়া, মুরালিধরনরা যেকোনো সময় ধসিয়ে দিতে পারতেন প্রতিপক্ষকে। কিন্তু সাঙ্গাকারা, জয়াবর্ধনে, হেরাথ, দিলশানের মতো তারকাদের বিদায়ের পরপরই তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়েছে দলটি। প্রথম দুই বিশ্বকাপ বাদ দিলে এবারই সবচেয়ে কম শক্তিশালী দল নিয়ে বিশ্বকাপে লঙ্কানরা।

অপরদিকে স্যার ভিভ রিচার্ডস, ক্লাইভ লয়েড, স্যার গ্যারফিল্ড সোবার্স, ম্যালকম মার্শাল, জর্জ হ্যাডলি, স্যার কার্টলি আমব্রোস, কোর্টনি ওয়ালস, ব্রায়ান লারা, শিবনারায়ণ চন্দরপলদের মতো কিংবদন্তিদের জন্ম দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট। কখনো ক্রিকেট প্রতিভার অভাব ছিল না তাদের। অথচ ক্যারিবিয়ান দ্বীপ থেকে সেই সোনালী যুগ হারিয়ে গেছে অনেক বছর আগে। তবুও একসময় বিশ্ব ক্রিকেট শাসন করা দেশটি এখনো স্বপ্ন দেখে ক্রিকেট নিয়ে।

তবে শিরোপার খরা ঘোচাতে না পারলেও ইতোমধ্যে ফেভারিটের তকমাটা ঠিকই লেগে গেছে বিশ্বকাপ আসরে। সাত ম্যাচের মধ্যে একটিতে জিতলেও খেলা দিয়ে তারা ভরিয়ে দিয়েছে ক্রিকেট প্রেমীদের প্রাণ। আর সমান ম্যাচ খেলে ২টি জয় তুলে বিশ্বকাপ আসরে এখনো নিজেদের নিয়ে স্বপ্ন দেখে শ্রীলঙ্কা। এমন সমীকরণেই এই দুই দল মুখোমুখি হচ্ছে নিজেদের পরের ম্যাচে।

সোমবার (১ জুন) বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় চেস্টার লি স্ট্রিটে মাঠে নামবে শ্রীলঙ্কা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আসরের শুরু থেকে শিরোপা জয়ের চেয়ে শ্রীলঙ্কার চিন্তা ভাল ক্রিকেট খেলা। সেই হিসেবেই মাঠে পা রাখবে লঙ্কানবাহিনী। আর শেষ চারের স্বপ্নভঙ্গের পর এই ম্যাচকে নিজেদের মান রক্ষার ম্যাচ হিসেবেই দেখবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

কোচ ফ্লয়েড রেইফারের দলের প্রধান শক্তি ব্যাটিং। গেইল-রাসেল-হোপ নামগুলো যেকোনো প্রতিপক্ষের ঘাম ছুটিয়ে দিতে পারে। দলটা ব্যাটিং নির্ভর বলেই টস জিতলে হোল্ডার ব্যাটিংটাই নিতে চাইবেন। আর ধাবিত হবেন পাহাড়সম রান সংগ্রহের পথে। এছাড়া দলের স্পটলাইট হয়ে ম্যাচে আলো ছড়াতে পারেন শাই হোপ। হোপই আশা দেখাচ্ছেন উইন্ডিজকে। দুর্দান্ত ফর্মে আছেন এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান। এছাড়া ক্যারিয়ারের সাহাহ্নে দাঁড়িয়ে থাকা ক্রিস গেইল শেষ ঝলক দেখাতে চাইবেন অবশ্যই। অলরাউন্ড নৈপুণ্যে আলো ছড়াতে পারেন আন্দ্রে রাসেলও।

‘আন্ডারডগ’ হিসেবে বিশ্বকাপে এলেও যেকোনো সময় যে জ্বলে উঠতে পারে শ্রীলঙ্কা, তার প্রমাণ ইতোমধ্যেই রেখেছে দলটি। বিশেষ করে আর্ন্তজাতিক টুর্নামেন্টে তাদের অতীত সাফল্য ও অভিজ্ঞতা ঈর্ষনীয়। স্কোয়াডের ছয় জনের আছে ২০১৫ বিশ্বকাপ খেলার অভিজ্ঞতা। ক্যারিয়ারের সায়াহ্নে দাঁড়িয়ে থাকা মালিঙ্গা জ্বলে উঠলে প্রতিপক্ষের ঘুম হারাম হয়ে যাবে। অলরাউন্ড নৈপুণ্যে নিজেকে উজাড় করে দিতে চাইবেন ম্যাথিউস-পেরেরা (থিসারা)। টেস্টে দুর্দান্ত খেললেও ওয়ানডেতে এখনো তেমন সফল নন করুনারত্নে। তবে অধিনায়কের দায়িত্বটা পেয়েছেন। সেই দায়িত্বে সফল হতে চেষ্টা করবেন তিনি। এছাড়া আলাদা চোখ থাকবে ফাস্ট মিডিয়াম পেসার উদানার ওপর।

শ্রীলঙ্কার কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহ এবার তার স্কোয়াড় সাজিয়েছেন তরুণ ও অভিজ্ঞদের সম্মিলনে। ইংল্যান্ডের বাউন্সি পিচে এবারও তাদের নির্ভরতা বোলিংয়ের ওপর। অবশ্য টসে জিতলে প্রথমে ব্যাটিং নেওয়ার চিন্তা করবে সিংহলিজরা। কারণ কম রানের টার্গেট হলেও আঁটোসাঁটো বোলিং দিয়ে প্রতিপক্ষের সঙ্গে বেশ লড়াই করতে পারে শ্রীলঙ্কা। তাই এক সময় ওয়ানডেতে শীর্ষস্থানে থাকা লঙ্কানরা ওয়েস্ট ইন্ডিজকে কিভাবে সামলাবে, তা দেখা যাবে মাঠে বল গড়ালেই।

শ্রীলঙ্কা স্কোয়াড: দিমুথ করুনারত্নে (অধিনায়ক), নুয়ান প্রদীপ, সুরাঙ্গা লাকমল, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস, জীবন মেন্ডিস, থিসারা পেরেরা, লাহিরু থিরিমান্নে, জেফরি ভেন্ডারসে, ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা, অভিষেক ফের্নান্দো, লাসিথ মালিঙ্গা, কুশল মেন্ডিস (উইকেটরক্ষক), কুশল পেরেরা, মিলিন্দা শ্রীবর্ধনে, ইশুরু উদানা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ স্কোয়াড: জেসন হোল্ডার (অধিনায়ক), কার্লোস ব্র্যাথওয়েট, শেল্ডন কোটরেল, ক্রিস গেইল, শাই হোপ (উইকেটরক্ষক), অ্যাশলে নার্স, কেমার রোচ, ওশানে টমাস, ফ্যাবিয়ান অ্যালেন, ড্যারেন ব্রাভো, শ্যানন গ্যাব্রিয়েল, শিমরন হেটমায়ার, এভিন লুইস, নিকোলাস পুরান, আন্দ্রে রাসেল।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৩ ঘণ্টা, জুন ৩০, ২০১৯
এইচএমএস/এমএমএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ CWC19
পঞ্চগড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু
ওষুধের বাজার হাজারী গলিতে ৪ ম্যাজিস্ট্রেটের সাঁড়াশি অভিযান
না’গঞ্জে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ৩ হাজার, মৃত্যু ৮৫
করোনা আক্রান্ত সাবেক মেয়র কামরান ভেন্টিলেশনে
টেকসই বেড়িবাঁধ ও সুপেয় পানির দাবিতে নৌবন্ধন


একইসঙ্গে ২৫ স্কুলের শিক্ষিকা, বেতন বাবদ আয় কোটি টাকা!
বীরগঞ্জে রাস্তার দাবিতে অবরুদ্ধ ৫০ পরিবারের মানববন্ধন
বগুড়ায় করোনায় আরও একজনের মৃত্যু
‘মানবপাচারকারীরা মানবতাবিরোধী’
‘স্বাস্থ্যখাতে দুর্নীতি দেশকে চরম সংকটে নিয়ে যাবে’