নিউজিল্যান্ডকে কাঁপিয়ে হারল উইন্ডিজ

ওয়ার্ল্ড কাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

দারুণ সেঞ্চুরি হাঁকিয়েও হেরে যাওয়ায় হতাশ ব্র্যাথওয়েটকে কিউই খেলোয়াড়দের সান্ত্বনা-ছবি: সংগৃহীত

walton

জিমি নিশামের বলে সর্বশক্তি প্রয়োগ করে শট নিলেন কার্লোস ব্র্যাথওয়েট। প্রায় ইতিহাস গড়া হয়েই গিয়েছিল। কিন্তু ওখানে কাঁটা হয়ে দাঁড়ালেন ট্রেন্ট বোল্ট। বাউন্ডারি লাইনের একদম শেষ প্রান্ত থেকে তিনি দুর্দান্ত এক ক্যাচ নিলেন। শেষ হতাশায় নুয়ে পড়লেন ব্র্যাথওয়েট। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি, তাও প্রচণ্ড চাপের মুখে, কিন্তু অমন অর্জনের ঠিক পরেই তীরে এসে তরী ডুবল। নিউজিল্যান্ডের কাছে রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে ৫ রানে হেরে গেল উইন্ডিজ।

ম্যাট হেনরির করা ইনিংসের ৪৮তম ওভারে ২৫ রান নিয়েছিলেন ব্র্যাথওয়েট। ওই ওভারে টানা ৩ ছক্কা আর ১ বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন। প্রতিটি ছক্কা ছিল দেখার মতো। শক্তিমত্তার চরম প্রদর্শনী যাকে বলে। অথচ এটাই শেষ উইকেট। অমন চাপের মুহূর্তে ৮০ বলে সেঞ্চুরি। ৯ চার আর ১ ছক্কায় সাজানো তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিটি। এই সেঞ্চুরিই স্বপ্ন দেখাচ্ছিল উইন্ডিজকে।

৪৯তম ওভারে প্রয়োজনীয় ৮ রান তুলতে হবে। হাতে মাত্র ১ উইকেট। আবার ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির হাতছানি। দেখেশুনে খেলে ওভারের চতুর্থ বলে ২ রান নিয়ে সেঞ্চুরি পেয়ে গেলেন। শেষ ব্যাটসম্যান হয়েও বোল্ট, ফার্গুসনদের মতো ফাস্ট বোলারদের ৪ বল ঠেকিয়ে ব্র্যাথওয়েটকে সঙ্গ দিতে চেষ্টা করেছিলেন। ওভারের শেষ বলে সিঙ্গেল নিলেই হতো। কিন্তু ওভারের শেষ বলে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে উইন্ডিজের স্বপ্ন কবর দিলেন ব্র্যাথওয়েট। তবে সবার মন ঠিকই জিতে নিলেন এই অলরাউন্ডার।

তবে উইন্ডিজকে লড়াইয়ের পথটা প্রথমে দেখিয়েছেন ওপেনার ক্রিস গেইল। মাত্র ২০ রানেই ২ উইকেট হারিয়ে বসা দলকে টেনে তোলার দায়িত্বটা আজ নিয়েছিলেন তিনিই। শুরুতে গুটিয়ে থাকলেও সময় গড়াতেই অবশ্য দেখা দিলেন সরূপে। দুর্দান্ত সব চার-ছক্কা হাঁকিয়ে কিউই বোলারদের ছন্নছাড়া করে দিলেন। মাঝে ফিফটি হাঁকিয়ে তাকে সঙ্গ দিলেন শিমরন হেটমায়ার। 

তবে পরপর ২ বলে হেটমায়ার ও জেসন হোল্ডারের বিদায়ে বিপাকে পড়ে যায় উইন্ডিজ। উইন্ডিজ ইনিংসের শুরুটা হয়েছে নড়বড়ে। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই কিউই ফাস্ট বোলার ট্রেন্ট বোল্টের শিকার হয়ে ফেরেন ক্যারিবীয় ওপেনার শাই হোপ। এরপর নিকোলাস পুরানও বোল্টের শিকার হয়ে ফিরলে চাপে পড়ে যায় উইন্ডিজ। এরপর হেটমায়ারকে নিয়ে ১২২ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দেন গেইল। 

হেটমায়ার ৪৫ বলে ৫৪ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে কিউই পেসার লোকি ফার্গুসনের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন। পরের বলে সদ্য ক্রিজে আসা হোল্ডারকে বিদায় করে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন ফার্গুসন। হোল্ডারের বিদায়ের পর ১০ রান যোগ যোগ হতেই বিদায় নেন উইন্ডিজের ভরসা হয়ে থাকা গেইল। গ্র্যান্ডহোমের বলে তুলে মারতে গিয়ে বোল্টের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেওয়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৮৪ বলে ৮৭ রানের ইনিংস। এই ইনিংসটি ৮ চার ও ৬ ছক্কায় সাজানো।

গেইলের পর অ্যাশলে নার্স ও হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে দেরিতে নামা এভিন লুইসও দ্রুত বিদায় নেন। দুজনেই বোল্টের শিকার। ১৪২-১৬৪ এই ২২ রানের মধ্যে ৫ উইকেট হারিয়েছে উইন্ডিজ। তবে এরপরই ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই শুরু ব্র্যাথওয়েটের। কেমার রোচ, শেলডোন কোটরেল আর শেষে টমাসকে নিয়ে তার দুর্দান্ত লড়াই শেষ পর্যন্ত আলোর মুখ দেখেনি।

বল হাতে ১০ ওভারে মাত্র ৩০ রান খরচে ৪ উইকেট তুলে নিয়েছেন কিউই ফাস্ট বোলার ট্রেন্ট বোল্ট। ৩ উইকেট ঝুলিতে পুরেছেন ফার্গুসন। ১টি করে উইকেট গেছে ম্যাট হেনরি, নিশাম ও গ্র্যান্ডহোমের ঝুলিতে।

এর আগে ওল্ড ট্রাফোর্ডে শনিবার (২২) টসে হেরে ব্যাটিং করতে নেমে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের ১৪৮ রানের দুর্দান্ত ইনিংসে ভর করে ৮ উইকেট হারিয়ে উইন্ডিজের সামনে ২৯২ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দেয় কিউইরা। 

আফগানিস্তান ছাড়া টেস্ট খেলুড়ে বাকি দলগুলোর (আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে এখনও খেলা হয়নি) বিপক্ষে সেঞ্চুরির কীর্তি গড়েছেন উইলিয়ামসন। এছাড়া চলতি বিশ্বকাপে তার রান এখন প্রায় সাড়ে তিনশ। গড় প্রায় ৩০০! কারণ ৪ ম্যাচে ব্যাট করে এখন পর্যন্ত আউট হয়েছেন মাত্র ১ ম্যাচে। চার ম্যাচে তার রান যথাক্রমে ৪০, ৭৯*, ১০৬* এবং ১২৮*।

চলতি বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় ও ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৩তম সেঞ্চুরিটি পেতে উইলিয়ামসন খেলেছেন ১২৪ বল, বাউন্ডারি ৮টি। চলতি বিশ্বকাপে ২টি করে সেঞ্চুরির দেখা পাওয়া পঞ্চম ব্যাটসম্যান তিনি। এই তালিকায় বাকি চারজন হলেন- রোহিত শর্মা, সাকিব আল হাসান, জো রুট, ডেভিড ওয়ার্নার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেও এটি উইলিয়ামসনের টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। 

এছাড়া অধিনায়ক হিসেবে টানা দুই সেঞ্চুরির রেকর্ডে তিনি সাবেক অজি অধিনায়ক রিকি পন্টিং ও সাবেক জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক ব্র্যান্ডন টেইলরের সঙ্গী হয়েছেন। সবমিলিয়ে এমন অসাধারণ ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরাও নির্বাচিত হয়েছেন উইলিয়মসন।

এই জয়ে ৬ ম্যাচে ৫ জয়ে ১১ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে এখন নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় স্থানে থাকা অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ৬ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট। আর ৬ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম স্থানে উইন্ডিজ।

বাংলাদেশ সময়: ০২৫৯ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০১৯
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯
মিয়ানমারে গণহত্যার বিচার শুরু, সন্তুষ্ট রোহিঙ্গারা
বিশ্বসভ্যতার ইতিহাসই মানবাধিকার অর্জনের ইতিহাস
প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নানা আয়োজন সিএমপির
২ বছরের মধ্যে ডিএনসিসির সব সুবিধা মিলবে অনলাইনে: আতিক
গণপরিবহনে যৌন হয়রানি বন্ধ চান সুজন


১৪২টি পদক নিয়ে ১৩তম আসর শেষ করল বাংলাদেশ
আইয়ুব বাচ্চুকে উৎসর্গ করে ‘উড়ে যাওয়া পাখির চোখ’
মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ছাত্রলীগ নেত্রী নিহত
‘শান্তির দূত’ থেকে যেভাবে গণহত্যার কাঠগড়ায় সু চি 
টিকফা বৈঠক পিছিয়ে মার্চে