পাক-ভারত চাপের খেলায় সংযত থাকার পরামর্শ

ওয়ার্ল্ড কাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চাপের খেলায় সংযত থাকার পরামর্শ। ছবি: সংগৃহীত

walton

অপেক্ষা মাত্র ২৪ ঘণ্টা। এরপরেই রোববার (১৬ জুন) ম্যানচেস্টারে বিশ্ব ক্রিকেটের মহারণে মুখোমুখি হবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশ ভারত ও পাকিস্তান। বিশ্বকাপ মানেই বাড়তি চাপ তবে ভারত-পাক ম্যাচ মানে অন্য কিছু। 

২০১৮ সালের এশিয়া কাপে ভারতের কাছে হারের পরে এই প্রথম ভারতের মুখোমুখি হচ্ছে পাকিস্তান। তার উপর পুলওয়ামা কাণ্ডের পরে এই ম্যাচে ভারতের বয়কট করা উচিত বলে মাস কয়েক আগেও মন্তব্য করেছিলেন কেউ কেউ। ফলে বিশ্বকাপের ভারত-পাক  ম্যাচের আগে উত্তেজনায় ফুটছেন প্রতিবেশী দুই দেশের ক্রীড়াপ্রেমীরা।

অস্ট্রেলিয়ার কাছে হারের পরই পুরো পাকিস্তান টিম ঢুকে পড়েছে ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচে। আপাতত ক্রিকেট বিশ্বে শুধুই আলোচনার কেন্দ্রে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। এই অবস্থায় মানসিক চাপের খেলাও শুরু হয়ে গেছে।

এই খেলা নিয়ে পাকিস্তানের ওপেনার ইমাম-উল-হক বলেন, ‘২০১৯ বিশ্বকাপের ভারতের বিরুদ্ধে এই খেলা আসলে প্রবল চাপের খেলা। পাকিস্তানের জন্য ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচ মাস্ট উইন হয়ে দাঁড়িয়েছে অস্ট্রেলিয়ার কাছে টনটনে হারের পর। ফলে ১০ দলের লিগ টেবিলে আট নম্বরে নেমে গিয়েছে পাকিস্তান। শেষ চারে পৌঁছতে হলে পাকিস্তানকে আরও অনেক কিছু করতে হবে।’

এই ম্যাচের জন্য পুরো দল মুখিয়ে আছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের একটি ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেস্তে গিয়েছে। যেটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিলো। এখন আমাদের কাছে সব ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। আর এরকম একটা ম্যাচ খেলতে পারাটা অবশ্যই অসাধারন। এই ম্যাচটি ম্যানচেস্টারে হবে যেখানে প্রচুর পাকিস্তানের ফ্যান রয়েছে। আমি এই ম্যাচের জন্য মুখিয়ে রয়েছি। অবশ্যই এটা খুব চাপের ম্যাচ।’

এই অবস্থায় ভারত ও পাকিস্তান, এই দুই দেশের সমর্থকদেরই সংযত ভাবে ম্যাচ উপভোগ করার পরামর্শ দিলেন সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ক ওয়াসিম আকরাম। তার কথায়, ‘এটি বিশ্বকাপের সব চেয়ে বড় ম্যাচ। মাথায় রাখতে হবে এটা ক্রিকেট খেলা। যুদ্ধ নয়। কাজেই দুই দেশের দর্শকদের কাছেই আমার অনুরোধ, শান্ত মাথায় দুই ক্রিকেট শক্তির এই মহারণ উপভোগ করুন। একটা দল জিতবে। আর একটা দল হারবে। খেলায় কখনও এক সঙ্গে দু’টো দল জিততে পারে না। কাজেই খেলা দেখে মজা পাওয়াটাই বড় ব্যাপার। যারা এই ম্যাচটাকে যুদ্ধ বলে প্রচার করেন, তারা প্রকৃত ক্রিকেটপ্রেমী নন।’

আকরাম চাপের কথা মনে করিয়ে দিয়ে বলেন, ‘ভারত-পাক ম্যাচ মানেই চাপ থাকবে। তা আমার চেয়ে ভাল কে অনুভব করতে পারেন। ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচটার দিকে তাকিয়ে থাকি এই কারণেই, যে এই ম্যাচে নিজেদের সেরাটা বার করে আনেন দু’দলের ক্রিকেটাররা। নিয়ন্ত্রিত ভাবে আগ্রাসী ক্রিকেট খেলতে পারলে ম্যাচ জিততেই পারে পাকিস্তান। ভারত এগিয়ে। ওদের ব্যাটিং ও বোলিং বেশ ভাল। কিন্তু আমাদের ছেলেরাও টেক্কা দিতে পারে ভারতের ব্যাটিং ও বোলিং শক্তির সঙ্গে। এই ম্যাচে যে দল চাপ সামলাতে পারবে, তারাই জিতবে।’

ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ ঘিরে এক দিকে চড়ছে উত্তাপের পারদ। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ভারত বনাম পাকিস্তান ম্যাচের সব টিকিটই বিক্রি হয়ে গিয়েছে কয়েক মাস আগেই। এই মুহূর্তে কালোবাজারে টিকিটের দাম উঠেছে ২ লক্ষ ১৯ হাজার টাকার উপরে। তবে বন্ধুত্বের হাত দু’দেশের সীমারেখা থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা, কিছুই মানছে না। এখন শুধু মাঠে বল গড়ানোর অপেক্ষা।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫৬ ঘণ্টা, জুন ১৫, ২০১৯
এইচএমএস/এমকেএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ CWC19
কাস্টম হাউসে করোনার থাবা, শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিতের দাবি
করোনায় দিশেহারা বোয়িং, ১২ হাজার কর্মী ছাঁটাই
কাঁঠালবাড়ী ঘাটে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় 
কমেছে মাছ-মুরগি-সবজির দাম
সোশ্যাল মিডিয়ার বিরুদ্ধে নির্বাহী আদেশে ট্রাম্পের স্বাক্ষর


চিকিৎসাধীন চট্টগ্রামের শীর্ষ তিন করোনাযোদ্ধা
শনির দশা কাটছে না রাজশাহীর আমের
লিবিয়ায় বেঁচে যাওয়া বাংলাদেশি যে লোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন
স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা
পত্নীতলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ ভাইয়ের মৃত্যু