দিল্লি রুটে জেট এয়ারের মনোপলি শেষের পথে 

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

জেট এয়ারের উড়োজাহাজ

ঢাকা: সাশ্রয়ী ভাড়ায় এখন  দিল্লি যাওয়ার বাড়তি সুবিধা নিয়ে এসেছে এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস। সপ্তাহে তিনদিন ঢাকা-দিল্লি-ঢাকা রুটে সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনা করছে এয়ারলাইন্সটি। এই রুটে দীর্ঘ সময় ধরে চলছে জেট এয়ারওয়েজের মনোপলি। ভাড়ার ক্ষেত্রেও জেট এয়ার যা ইচ্ছে তা আদায় করেছে যাত্রীদের কাছ থেকে। এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস আসার পর এখন জেট এয়ার ভাড়া কিছুটা কমিয়েছে।

সপ্তাহে তিনদিন অর্থাৎ মঙ্গল, শুক্র ও রোববারে ঢাকা- দিল্লি সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনা করছে। সময়টাও অনেক চমৎকার, ঢাকা থেকে সকাল ৭টা ৫০ মিনিটে ছেড়ে যায় দিল্লি উদ্দেশ্যে। আড়াই ঘণ্টা ফ্লাই করে সকাল ৯.৫০টায় নামিয়ে দেবে দিল্লি। এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসও এই রুটে ব্যবহার করছে বোয়িং ৭৩৭ এয়ারক্রাফট। দিল্লিতে পৌঁছার পর একটি কর্মদিবস কাজে লাগানো সম্ভব।
 
দিল্লি থেকে দুপুর ১.৫০টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করে এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইটটি এবং পৌঁছায় বিকেল ৪.৫০ টায়। 

দিল্লি রিটার্ন টিকেট শুরু হয়েছে ২৭ হাজার টাকা থেকে। এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস ফ্লাইট কলকাতা হয়ে দিল্লি যাওয়ার সুবিধা দিচ্ছে এই এয়ারলাইন্সটি। কলকাতা থেকে রয়েছে দিল্লির সুবিধাজনক সংযোগ। এছাড়া ঢাকা-কলকাতা-দিল্লি রয়েছে কানেকটিং ফ্লাইট। এই ফ্লাইটের ভাড়া শুরু হয়েছে ২০ হাজার টাকা থেকে। এই সাশ্রয়ী দর পেতে হলে একদিন কলকাতায় অবস্থান করতে হবে কানেকটিং ফ্লাইটের যাত্রীদের।

কানেকটিং ফ্লাইটটি ঢাকা থেকে ছেড়ে যায় রাত পৌনে ১০টায়। কেউ যদি শুক্রবার ঢাকা থেকে কলকাতা যান, তাকে কলকাতা থেকে পরদিন দিল্লির ফ্লাইট ধরতে হবে। আর পরদিন যে কোন সময়ে কলকাতা থেকে দিল্লি যেতে পারবেন।

কলকাতা-দিল্লি রুটে সকাল ৭টা, ১০টা, বিকেল সাড়ে ৫টা ও রাত সোয়া ৮টায় ফ্লাইট পরিচালনা করছে ভারতের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস। 

এয়ার ইন্ডিয়ার এই পথচলায় হোচট খেয়েছে জেট এয়ারের মনোপলি ব্যবসা। জেট এয়ার এতোদিন এই রুটের যাত্রীদের গলা চেপে টাকা আদায় করছিলো বলে তৌফিক নামের একজন যাত্রী অভিযোগ করেছেন।

তিনি জানান, এতোদিন জেট এয়ার মনোপলি বিজনেস করেছে। এই রুটের চেয়ে বেশি দুরত্বেও এতো ভাড়া ছিলো না। শুধু অন্য কোন ফ্লাইট ছিল না বলে তারা গলাকাটা দাম আদায় করতো।

এতোদিন এই রুটে জেট এয়ার সর্বোনিম্ন ভাড়া ছিলো ৪২ হাজার টাকা। একবার বিজনেস ক্লাসের টিকেটের জন্য প্রায় লাখ টাকা গুনতে হয়েছিলো তাকে বলে জানান তৌফিক হোসেন।

যদিও এয়ার ইন্ডিয়ার ধাক্কায় কিছুটা দর কমাতে বাধ্য হয়েছে জেট এয়ার। তারা এখন ৩৩ হাজার টাকা সর্বনিম্ন ভাড়া নির্ধারণ করেছেন। অর্থাৎ এখন ৬ হাজার টাকা বেশি গুণতে হচ্ছে জেটের যাত্রীদের। বাংলাদেশ বিমান এক সময় রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করতো। কিন্তু হঠাৎ করে রুটটিতে ফ্লাইট অপরেশন বন্ধ দিলে জেটের কব্জায় চলে যায় যাত্রীরা।

বাংলাদেশ সময়: ০৮৪৩ ঘণ্টা, আগস্ট ২৪, ২০১৭
এসআই

১/১১ কুশীলবরাই উদ্বিগ্ন অভিভাবক
মরিয়ম নওয়াজের আবেগঘন অডিওবার্তা 
অর্থ সচিব মুসলিম চৌধুরীকে সিএজি পদে নিয়োগ
গলাচিপায় আড়াই লাখ রেণুপোনাসহ আটক ৩
হাসিনা-মোদির নেতৃত্বে সম্পর্কের অগ্রগতি
ভোট দিয়ে বিজয়ী করবেন, উন্নয়ন বুঝে নিবেন: লিটন
অপরিবর্তিত দল নিয়েই ফাইনালে ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া
মানসিকতার পরিবর্তন হলে দারিদ্র্য বিমোচন সম্ভব
সরকার দলীয় লোকজন নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করছে: বুলবুল
ব্রহ্মপুত্র-পদ্মাসহ ৩৮ নদীর পানি বাড়ছে