হোটেল খরচ বাঁচিয়ে ভ্রমণের ৭ টিপস 

ট্রাভেলার্স নোটবুক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

প্রতীকী

পৃথিবীর সব ভ্রমণপিপাসুরই ইচ্ছা করে নিরাপদে নিশ্চিন্তে ভ্রমণের সময়টা উপভোগ করতে। কিন্তু একটি বিষয় ভ্রমণকারীর চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়ায়- তা হলো রাতে থাকার ব্যবস্থা।

অনেক ক্ষেত্রেই হোটেলে থাকার খরচের অংকটা গিয়ে দাঁড়ায় ভ্রমণকারীর নাগালের বাইরে। অথবা থাকার খরচটা আরেকটু কম হলে হয়তো আরও কিছুদিন ঘোরাঘুরি করা যেত, ভ্রমণের অভিজ্ঞতা হয়ে উঠতো পরিপূর্ণ ও তৃপ্তিময়।
এ ধরনের পরিস্থিতিতে হোটেল খরচ বাঁচিয়ে নির্বিঘ্নে ভ্রমণের জন্য অবলম্বন করা যেতে পারে কিছু বিকল্প উপায়। এমন কিছু বিকল্প পদ্ধতি তুলে ধরা হলো পাঠকদের কাছে।
 
ফ্ল্যাট বা বাসা ভাড়া
হোটেলে থাকার একটি জনপ্রিয় বিকল্প হলো ফ্ল্যাট বা বাসা ভাড়া করে থাকা। আপনি চাইলে বিশ্বের প্রায় সব দেশেই আবাসিক বাসভবন, ফ্ল্যাট বা প্রাইভেট রুম ভাড়া করে রাত্রিযাপন করতে পারবেন। এখন প্রশ্ন হলো এ ধরনের ফ্ল্যাট বা বাসভবন খুঁজে পাবেন কিভাবে? সমাধান হলো এয়ারবিএনবি নামের একটি প্রতিষ্ঠান বেশ জনপ্রিয়তা ও সফলতার সঙ্গে বিশ্বজুড়ে বাসা ভাড়া দেওয়ার সার্ভিস পরিচালনা করে আসছে। তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সহজেই আপনার বাজেট উপযুক্ত বাসস্থান খুঁজে পাবেন।
 
আবাসিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান
কিছু কিছু দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো তাদের ছাত্রাবাসে ভ্রমণকারীদের জন্য থাকার ব্যবস্থা রাখে। এসব জায়গায় থাকার খরচ খুবই কম। তাই নতুন কোনো দেশ বা শহরে ভ্রমণের সময় সেখানকার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রাবাসে থাকা সম্ভব কিনা জেনে নিতে পারেন। এক্ষেত্রে স্থানীয় কলেজ বা ইউনিভার্সিটির সঙ্গে যোগাযোগ করলে প্রয়োজনীয় তথ্য পেয়ে যাবেন।
 
ধর্মীয় উপাসনালয়
মসজিদ, মন্দির, প্যাগোডা, চার্চসহ ধর্মীয় উপাসনালয়গুলোতে অনেক কম খরচে, এমনকি বেশির ভাগ ক্ষেত্রে বিনামূল্যে থাকা সম্ভব। তবে সেক্ষেত্রে হয়তো আপনাকে ওই ধর্মের অনুসারী হতে হবে। আপনি কোনো স্থানীয় ব্যক্তির কাছ থেকে সহজেই জেনে নিতে পারেন সবচেয়ে কাছেরটির ঠিকানা।
 
স্বেচ্ছাসেবা
কিছু স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ভ্রমণের সময় বিনা খরচে আপনার থাকার সুযোগ করে দিতে পারে। তবে সেক্ষত্রে আপনাকে তাদের স্বেচ্ছাসেবা কর্মসূচিতে কাজ করে দিতে হবে। রেড ক্রস, ডক্টরস উইথআউট বর্ডারস প্রভৃতি সংস্থা এ ধরনের সুযোগ দেয়। এ ধরনের কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার আগে অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে আপনি আসলেই স্বেচ্ছাসেবায় অংশ নিতে চান কিনা। 
 
সরাইখানা
কিছু কিছু জায়গায় অতিথিদের বিশ্রামের জন্য সরাইখানা বা হোস্টেলের ব্যবস্থা থাকে। কম খরচে এসব স্থানে রাত কাটানো সম্ভব। 
 
কাজের বিনিময়ে ভ্রমণ
আপনার যদি কাজ করতে করতে ভ্রমণে কোনো সমস্যা না থাকে, তবে এই পদ্ধতিটা অবলম্বন করতে পারেন। এক্ষেত্রে বাড়তি লাভ হিসেবে আপনার পকেটে জমা হতে পারে অর্থও। বিভিন্ন বিলাসবহুল জাহাজ, প্রমোদ তরী, ট্রেন, আঙুর ক্ষেত, খামারবাড়ি ছাড়াও বিভিন্ন স্থানে কাজের সঙ্গে সঙ্গে ভ্রমণের সুযোগ রয়েছে।
 
ক্যাম্পিং
আপনার ভ্রমণের জায়গাটি যদি এমন হয় যে সেখানে কোনো জনবসতি নেই, আপনি খুব সহজেই ক্যাম্প করে রাত পার করতে পারবেন। খোলা আকাশের নিচে ক্যাম্প ফায়ার তৈরি করা, তাবুর নিচে রাত কাটানো ভ্রমণে আপনাকে এনে দেবে বাড়তি রোমাঞ্চ। 

বাংলাদেশ সময়: ০১০৩ ঘণ্টা, জুলাই ১৮, ২০১৭
এনএইচটি/এএ


দূতাবাসের মাধ্যমে প্রবাসীদের এনআইডি দেবার প্রক্রিয়া
ত্রিপুরায় এবার দুর্গা আসছেন সাঁওতালি রূপে
সু চি কি সুখী?
না.গঞ্জে রোহিঙ্গা সেজে নাটক!
কেনিয়ায় বিরল প্রজাতির সাদা জিরাফ

Alexa