শক্তিশালী ভারতের সামনে বাংলাদেশ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম (ফাইল ফটো)

স্বাগতিক হয়েও এশিয়া কাপ হকির শুরুটা মোটেও ভালো করতে পারেনি বাংলাদেশ। ‘এ’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচের পাকিস্তানের কাছে উড়ে গেছে ৭-০ গোলের ব্যবধানে। সেই ক্ষত শুকাতে না শুকাতেই এবার আরেকটি বড় ক্ষতের আশঙ্কা জিমিদের শিবির।

কেননা দ্বিতীয় ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ এশিয়ার শক্তিশালী দল ভারত। যার বিপক্ষে কখনোই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেনি বাংলাদেশ। শুক্রবার (১৩ অক্টোবর) মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে এশিয়া কাপের অসম এই লড়াইটি শুরু হবে বিকেল সাড়ে ৫টায়।

ম্যাচটিকে কেন অসম বললাম? বিশ্ব হকি র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশ যেখানে ৩৪ নম্বরে অবস্থান করছে সেখানে ভারতের অবস্থান ৬-এ। তাছাড়া এশিয়া কাপ হকিতে দুই দেশের আগের ৭ বারের লড়াইয়ে একবারও জয়ের শেষ হাসি হেসে মাঠ ছাড়তে পারেনি লাল-সবুজের দল।  

এশিয়া কাপ হকিতে বরাবরই ভারতের সামনে ম্লান মুখেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে বাংলাদেশকে। এশিয়া কাপের প্রথম আসরে ১৯৮২ সালে, করাচিতে ভারতের সঙ্গে হারের ব্যবধান ছিল ৪-০। ১৯৮৯ সালে দ্বিতীয় আসরে দিল্লিতে তৃতীয় আসরে ভারত জিতেছিল ৬-০ গোলে।

১৯৯৩ সালে জাপানের হিরোশিমায় এশিয়া কাপের চতুর্থ আসরে ভারতের কাছে ৪ গোলে হারলেও ২০০৩ সালে কুয়ালালামপুরে হজম করতে হয়েছে ১০টি গোল। দিতে পারেনি একটিও।

এরপর ২০০৭ সালে ফিরে আছে ১৯৮৯ সালের সেই ৬-০ গোলের দুঃস্মৃতি। ২০০৯ ছিল হকিতে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের সবচাইতে দুঃখের বছর। মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত অষ্টম আসরে বাংলাদেশের জালে ১১ বার বল জড়িয়ে গোল উৎসব করেছিল ভারত। বিনিমিয়ে বাংলাদেশ দিয়েছিল মাত্র ১টি গোল।

২০১৩ সালে মালয়েশিয়ার ইপোতে এশিয়া কাপের সবশেষ আসরে বাংলাদেশকে ৯-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল ভারত।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫০ ঘণ্টা, ১২ অক্টোবর ২০১৭
এইচএল/এমআরএম


মানুষ সেদিন মুক্তির আনন্দে ফেটে পড়েছিল শহরে
৮ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও সরাইল মুক্ত দিবস
দাঁড়িয়ে থাকা কাভার্ড ভ্যানে ট্রাকের ধাক্কা, নিহত ১
ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপে ‘সহজেই’ কোটিপতি মালয়েশিয়ায়
শীতলপাটি: ঐতিহ্যের অনন্য শিল্প-নিদর্শন

Alexa