নিউইয়র্কে ‘সড়ক-হত্যায়’ যুক্তদের বিচারের দাবি

প্রবাস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নিউইয়র্কে প্রতিবাদ সমাবেশ।

ঢাকা: বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় মানুষ ‘হত্যা’য় জড়িতদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনার দাবিতে নিউইয়র্ক সভা করেছে সচেতন নাগরিক সমাজ। 

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (৩১ জুলাই) নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে এ সভার আয়োজন করা হয়। 

সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদ উল্লাহর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নাট্যকার তোফাজ্জল লিটন, মুজাহিদ আনসারি, সৈয়দ জাকির আহমেদ রনি, গোপাল স্যান্ন্যাল প্রমুখ।

নিউইয়র্কের প্রথম বাংলা সংবাদপত্রের সম্পাদক সৈয়দ মোহাম্মদ উল্লাহ বলেন, পরিবহন ব্যবস্থার প্রতিটি ক্ষেত্রে যে অরাজকতা ও দুর্নীতি চলছে তা সরকারকে শক্ত হাতে দমন করতে হবে। বেপরোয়া গাড়ি চালানো বন্ধ করতে হবে। লাইসেন্সবিহীন, ফিটনেসবিহীন কোনো গাড়ি যেনো রাস্তায় না নামতে পারে সে ব্যাপারেও সরকারকে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।  

কমিউনিটি অ্যাকটিভিস্ট মুজাহিদ আনসারি বলেন, পুলিশ দিয়ে এসব কোমলমতি শিশু-কিশোরদের রক্তাক্ত করা ঠিক হচ্ছে কী? এর পরিনাম ভালো হবে না।  

গণজাগরণ মঞ্চের অন্যতম সংগঠক সৈয়দ জাকির আহমেদ রনি বলেন, বাসগুলোর প্রতিযোগিতার কারণেই সড়কে হত্যার হার বাড়ছে। তারা মুনাফার লোভে কোনো আইন-কানুনের তোয়াক্কা করছে না। আবার যে দুর্ঘটনাগুলো ঘটছে তার বিচারও হচ্ছে না। 

নিউইয়র্ক গণজাগরণ মঞ্চের অন্যতম সংগঠক গোপাল স্যান্নাল বলেন, দেশের প্রতিটি ঘরে যখন একজন করে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাবেন তখন কী সরকারের টনক নড়বে? কোনো আন্দোলন হলেই তাকে কেন দেশ বিরোধী বলে কোণঠাসা করার অপপ্রসায় চালানো হয়? 

বাংলাদেশ সময়: ১৫১৭ ঘণ্টা, আগস্ট ০১, ২০১৮
এএইচ

নদীপথে আসছে গরু, চাঁদাবাজিরোধে নিরাপত্তার দাবি
নওগাঁয় হাজতির মৃত্যু
ছেলের পছন্দ বিবিএ, বাবা-মায়ের ইংরেজি!
নীলফামারীতে ঈদুল আজহার প্রথম জামাত ৮টায়
প্রধানমন্ত্রীর কাছে ১০ মিনিট সময় চেয়েছেন ড. কামাল
নির্দিষ্ট সময়ে ঘাট ছাড়ছে না কোনো লঞ্চ
ফুলবাড়িয়ায় পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু
তিন মাসের জন্য মাঠের বাইরে ডি ব্রইনা
যানবাহনের চাপ কমেছে পাটুরিয়ায়
ভোমরা হবে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্থলবন্দর