এডিনবরায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপিত 

নিউজডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

থিসল শাপলা কালচারাল গ্রুপের শিল্পীরা গেয়ে শোনান “আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো..’’ গানটি

স্কটল্যান্ডের রাজধানী এডিনবরায় ২৭টি ভাষাভাষী মানুষের স্বত:স্ফূর্ত অংশগ্রহণে উদযাপিত হল আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস ও ভাষাশহীদ দিবস। 

গত বুধবার ২১শে ফেব্রুয়ারি সকাল ১১টায় স্থানীয় সিটি চেম্বারে এডিনববরা কাউন্সিলের লর্ড প্রভোস্টের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয় এক অভ্যর্থনা অনুষ্ঠান। 

স্থানীয়ভাবে বিভিন্ন ভাষাভাষী কমিউনিটির সমন্বয়ে নবগঠিত সংগঠন, ইন্টারন্যাশন্যাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ সোসাইটির (আই.এম.এল.এস) যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত হয় এবারের অনুষ্ঠান। 

এ সংক্রান্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সিটি অব এডিনবরা কাউন্সিলের কালচার অ্যান্ড কমিউনিটিজ কমিটির কনভেনর কাউন্সিলার ডোনাল্ড উইলসনের পৃষ্ঠপোষকতায় এবারের আয়োজনে সহযোগী সংস্থাগুলো ছিল কাউন্সিল অব বাংলাদেশিজ অব স্কটল্যান্ড (সিবিএস), বাংলা স্কট নিউজ, এডিনবরা চাইনিজ আর্টস অ্যাসোসিয়েশন, থিসল শাপলা কালচারাল গ্রুপ, পোলিশ কালচারাল ফেস্টিভ্যাল অ্যাসোসিয়েশন, এলরেক রুটস্ টু রুটস্, বাইলিঙ্গুয়ালিজম ম্যাটারস এবং ইভেন্ট জোন। 

কাউন্সিল অব বাংলাদেশিজ ইন স্কটল্যন্ড’র সেক্রেটারি ফয়ছল চৌধুরী এবং বাংলা স্কট নিউজের সম্পাদক মিজান রহমানের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে ভাষা শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন  লর্ড প্রভোস্ট ফ্রাংক রস। 

“মাতৃভাষার গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা’’ শীর্ষক আলোচনা করেন এডিনবরা ইউনিভার্সিটির ভাষাতত্ত্বের প্রফেসর এন্টোনিলা সোরাসি। 

সাংস্কৃতিক পর্বে বিভিন্ন ভাষাভাষী শিল্পীরা তাদের মাতৃভাষায় পরিবেশন করেন আবৃত্তি ও গান। 

আরবি ভাষায় কবিতা পাঠ করেন দীনা আহমদ, চীনা (মান্দারিন) ভাষায় সংগীত পরিবেশন করেন মিস জিয়াং জু, পোলিশ ভাষায় কবিতা পাঠ করেন আনা রুশোজিক। এ সময় ওয়েলস’র ভাষায় সবাইকে শুভেচ্ছা জানান কাউন্সিলার কার্ল জন। 

এছাড়া স্থানীয় থিসল শাপলা কালচারাল গ্রুপের চেয়ার ফখরুল ইসলামের নির্দেশনায় “আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো..’’ গানটি পরিবেশন করেন স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ।

লর্ড প্রভোস্ট ফ্রাংক রস, কাউন্সিলার ডোনাল্ড উইলসন ও বাঙালি কমিউনিটির নেতারা অস্থায়ী শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

লর্ড প্রভোস্ট তার বক্তব্যে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রেক্ষাপট তুলে ধরতে গিয়ে ১৯৫২ সালে ভাষা আন্দোলনে ‘রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই’ স্লোগান নিয়ে ঢাকার রাস্তায় নেমে আসা বাঙালি ছাত্রজনতার ওপর পাকিস্তানি সরকারের নিপীড়নবাদী পুলিশের নির্বিচার গুলিবর্ষণের কথা উল্লেখ করেন।এ সময় মাতৃভাষার অধিকার ও মর্যাদা রক্ষায় বাঙালির নানাবিধ ত্যাগ ও আত্মবলিদানের কথা কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করেন তিনি।

প্রসঙ্গক্রমে তিনি আরও  বলেন, এডিনবরার স্কুলগুলোতে ১২০টি ভাষাভাষী শিশুরা পড়াশুনা করে। ভাষা ও সংস্কৃতির এরকম বৈচিত্র্য নিয়ে এডিনবরা শহর গর্বিত। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের চেতনাকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষের মধ্যে সুসম্পর্ক গড়ে তোলা সম্ভব। ভবিষ্যতে আরও ব্যাপক আয়োজনের মধ্য দিয়ে এ দিবসটি আয়োজন করা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। 

নানা বয়সী বাঙালী নারী-পুরুষ-শিশুকিশোরসহ অনুষ্ঠানে যোগ দেন সর্বমোট ২৭টি ভাষার প্রতিনিধিরা।

আয়োজনের পৃষ্ঠপোষক কাউন্সিলার ডোনাল্ড উইলসন সহযোগী সংগঠনগুলোকে তাদের প্রশংসনীয় ভূমিকার জন্য এবং আগতদের অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার জন্য ধন্যবাদ জানান। বিগত ১০ বছর ধরে ভাষাদিবস উদযাপনে এডিনবরা কাউন্সিলের সম্পৃক্ততা রয়েছে উল্লেখ করে ভবিষ্যতে আরও সহযোগিতার আশ্বাস দেন তিনি। 

আয়োজনের শেষ পর্বে এডিনবরা সিটি চেম্বার প্রাঙ্গণে নির্মিত অস্থায়ী শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন লর্ড প্রভোস্ট। এ সময় চীনা, পোলিশ এবং বাঙালিসহ বিভিন্ন দেশের প্রবাসীদের নানা সংস্থা এবং ব্যক্তিবর্গ শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষা-শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

প্রাণবন্ত আলোচনা, পারস্পরিক ভাব বিনিময়, গান আবৃত্তিসহ মনকাড়া নানা পরিবেশনার মধ্য দিয়ে বহু ভাষার মানুষ পরস্পরকে জেনেছেন, চিনেছেন। সব মিলিয়ে অনুষ্ঠানটি হয়ে ওঠে নানা ভাষা ও সংস্কৃতির মানুষের মিলনমেলা।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৮

জেএম

রায়পুরে বাবার হাতে ছেলে খুন
শুধু রাগ নয়, সঙ্গীত পূর্ণতায় বেঙ্গলের ‘সুনাদ’
রায়েরবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২
মেহেরপুরে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ১৯
কিডনি হাসপাতাল: রোগীদের দুরাবস্থা দেখার কেউ নেই 
খুলনা-৩ আসনে আ’লীগ-বিএনপিতে নতুনদের আধিপত্য
গাজীপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু
আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলছেন না সাকিব
দেশের অবস্থা জাতিসংঘে তুলে ধরেছি: ফখরুল
অর্থ পাচারের অভিযোগে ৫ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা