ভারত থেকে কয়েক ঘণ্টায় জ্বালানি তেল পার্বতীপুরে

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন

পার্বতীপুর (দিনাজপুর): ইন্দো-বাংলা ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইনের মাধ্যমে ভারতের আসামের নুমালিগড় থেকে কয়েক ঘণ্টার মধ্যে দিনাজপুরের পার্বতীপুরে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের পিওএল ডিপোতে জ্বালানি তেল চলে আসবে। আর এখান থেকে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের ১৬ জেলায় জ্বালানি তেল সরবরাহ করা হবে।

এতে করে একদিকে সময় কম লাগবে, অপরদিকে পরিবহন ব্যয় ও সিস্টেমলস অনেক কম হবে।

ভারতের আসামের নুমালিগড় থেকে দিনাজপুরের পার্বতীপুর পর্যন্ত প্রস্তাবিত ইন্দো-বাংলা ফ্রেন্ডসশিপ পাইপলাইন প্রকল্পের সমাগ্রিক অগ্রগতি ও পার্বতীপুর পিওএল ডিপো পরিদর্শনে এসে এসব কথা বলেন বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম।

শনিবার (১৮ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টা থেকে আড়াইটা পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের পার্বতীপুর পিওএল ডিপোতে অবস্থান করেন। 

এ সময় তিনি জমি অধিগ্রহণসহ ডিপোর সক্ষমতা বাড়াতে আর কি প্রয়োজন হতে পারে, ঘুরে ঘুরে দেখেন।

পরিদর্শনের সময় উপস্থিত ছিলেন- বিপিসি পরিচালক (অপারেশন) মো. মোজাম্মেল হক, পদ্মা অয়েল কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. মাসুদুর রহমান, মেঘনা অয়েল কোম্পানি লিমিটেডের এমডি মীর সাইফুল্লাহ আল খালেদ, যমুনা অয়েল কোম্পানি লিমিটেডের এমডি মো. কামরুল হাসান, রেলের পশ্চিমজোনের চিফ স্টেট অফিসার (রাজশাহী) ডক্টর মো. আব্দুল মান্নান, পাকশী ডিভিশনের বিভাগীয় প্রকৌশলী (ডিএন) আসাদুল হক, পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তরফদার মাহমুদুর রহমান, পার্বতীপুর পিওএল ডিপোর প্রধান নির্বাহী হেমায়েত উদ্দিন, পার্বতীপুর পৌর মেয়র এজেডএম মিনহাজুল হক প্রমুখ।    

বিপিসি’র চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বাংলানিউজকে জানান, বর্তমানে যে প্রক্রিয়ার বিদেশ থেকে জ্বালানি তেল আমদানি করা হয়, সেই তেল পার্বতীপুরে পৌঁছতে প্রায় এক মাস সময় লাগে। তাছাড়া পরিবহন ব্যয় ও সিস্টেমলস অনেক হয়। সার্বিক বিষয় মাথায় রেখে সরকার ভারতের আসামের নুমালিগড় থেকে দিনাজপুরের পার্বতীপুর পর্যন্ত প্রস্তাবিত ইন্দো-বাংলা ফ্রেন্ডসশিপ পাইপলাইন প্রকল্প হাতে নেয়। ভারত থেকে পাইপলাইনের মাধ্যমে জ্বালানি তেল আমদানির বিষয়ে ইতিমধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে।

তিনি বলেন, নুমালিগড় রিফাইনারি থেকে শিলিগুড়ি রেল টার্মিনাল পর্যন্ত ৬৫০ কিলোমিটার পাইপপাইন রয়েছে। সেখান থেকে ভারতের মধ্যে পাঁচ কিলোমিটার ও বাংলাদেশের ভেতরে ১২৫ কিলোমিটার (পঞ্চগড়ের বাংলাবান্দা দিয়ে নিলফামারীর চিলাহাটী হয়ে দিনাজপুরের পার্বতীপুর পর্যন্ত) পাইপলাইন নির্মাণ করা হবে। ভারত সরকার নিজ অর্থে ১৩০ কিলোমিটারের এ পাইপপাইন নির্মাণ করে দেবে।

কিভাবে পাইপপাইন নির্মাণ করা হবে সে বিষয়ে ইতোমধ্যে ভারত সরকার প্রস্তাব দিয়েছে। আমরা সেই প্রস্তাবে সংযোজন, বিয়োজন করে ভারতে পাঠিয়েছি। শিগগিরই পাইপলাইন নির্মাণ প্রক্রিয়ার বিষয়ে দু’দেশের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে করে কাজ শুরু করা হবে বলে বিপিসি’র চেয়ারম্যান আশা প্রকাশ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ০৩৩৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৮
জিপি/এসআইএস

ব্যয় বাড়বে কুম্ভ, সাফল্য পাবেন বৃষ
ফ্রি-স্টাইল ফুটবলে হেডস্কার্ফে মালয়েশিয়ান তরুণী!
ফাইনালে সেই পেনাল্টির সিদ্ধান্ত ঘিরে বিতর্ক
বিশ্বকাপজয়ে প্যারিস যেন উৎসবের নগরী 
বিশ্বকাপের সেরা একাদশে এমবাপ্পে-মদ্রিচ-হ্যাজার্ডরা
প্রেসিডেন্ট কোলিন্দের সান্ত্বনা পেলেন মদ্রিচ
এবার অপেক্ষা কাতার বিশ্বকাপের
এক নজরে রাশিয়া বিশ্বকাপ
বিশ্বকাপ জয় বিশ্বাস হচ্ছে না গ্রিজম্যানের
‘গোল্ডেন গ্লাভস’ থিবাউ কুরতোয়ার