খালেদাকে রাজনীতি থেকে সরানোর চক্রান্ত চলছে

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নয়াপল্টনে রিজভীর সংবাদ সম্মেলন/ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: রাজনীতি থেকে খালেদা জিয়াকে চিরতরে সরিয়ে দেয়ার জন্যই তার জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কেন ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হচ্ছে না’ ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, খালেদা জিয়া নতুন কোনো রোগে আক্রান্ত হননি, তাকে যথাযথ চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আর সরকারি ব্যবস্থাপনার বাইরে তাকে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব নয়। 

মঙ্গলবার (১৭ জুলাই) বিকেলে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই বক্তব্যের জবাবে রিজভী এমন কথা বলেন।

তিনি প্রশ্ন করেন, কোন ব্যবস্থাপনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কারাবন্দি থাকা অবস্থায় স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছিলেন। কোন ব্যবস্থাপনায় অন্যান্য আওয়ামী সিনিয়র নেতাদের চিকিৎসা হয়েছিল রাজধানীর ল্যাবএইড বা বারডেমে।

ওই অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন- ‘দেশে কোনো বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড ও গুমের ঘটনা ঘটছে না। প্রেমে ব্যর্থ হয়ে অথবা দু’টি মনের মিলনে উড়াল দিচ্ছে, আর বলা হচ্ছে গুম’।

তার এ বক্তব্যের জবাবে রিজভী বলেন, জবাবদিহিতা বিহীন, ভোটারবিহীন সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীই কেবল এ ধরনের উদ্ভট, ভারসাম্যহীন, অসত্য কথা বলে নির্যাতিত নিপীড়িত জনগণের সঙ্গে এমন নিষ্ঠুর রসিকতা করতে পারে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ রাখতে এমন বানোয়াট ও অসত্য বক্তব্য দেয়া ছাড়া তার কোনো উপায় নেই। প্রতিদিন বিচার বহির্ভূত হত্যার হিড়িক চলছে। গুম করা হচ্ছে রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষকে। 

‘দেশে গণতন্ত্র আছে বলেই বিএনপি দলীয় কার্যালয়ে প্রেস কনফারেন্স করতে পারে’ সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্যের জবাবে রিজভী বলেন, আওয়ামী নেতারা মূঢ় অহংকারের কারণে বিস্মৃতপ্রবণ। আওয়ামী নেতারা কী ভুলে গেছেন সরকারের সমালোচনা করার কারণে গভীর রাতে দলীয় কার্যালয় ভেঙে তছনছ করে গ্রেফতারের কথা, ভুলে গেছেন ২০১৩ সালে পুলিশ ঢুকিয়ে সারা কার্যালয় তছনছ করে বিএনপি মহাসচিব ও সিনিয়র নেতারাসহ ১৫৪ জন বিএনপি নেতাকর্মীদের আটক করে নিয়ে যাবার কথা। তাহলে তখন কি আপনাদের তথাকথিত গণতন্ত্র ছিল না? 

রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সেখানে আওয়ামী লীগ-ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সন্ত্রাসী তাণ্ডব ‘অসহনীয়’ আকার ধারণ করেছে দাবি করে রিজভী বলেন, মঙ্গলবার নগরীর সাগরপাড়ায় জেলা ছাত্রদলের গণসংযোগ কর্মসূচি বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু উদ্বোধন কালে আওয়ামী দুষ্কৃতিকারীরা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। সন্ত্রাসীদের ছোড়া ককটেল বিস্ফোরণে গুরুতর আহত হয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপি কর্মী স্বপন কর্মকার, বাংলাভিশনের ব্যুরো প্রধান পরিতোষ চৌধুরী আদিত্যসহ কয়েকজন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভূইয়া, যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সহ-প্রচার সম্পাদক আসাদূল করীম শাহীন, সাবেক ছাত্রনেতা আবদুল মতিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৪ ঘণ্টা, জুলাই ১৭, ২০১৮
এমএইচ/এসএইচ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: রাজনীতি বিএনপি খালেদা জিয়া
অস্ট্রিয়ান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বিয়েতে নাচলেন পুতিন
সদরঘাটে ঘরমুখো মানুষের চাপ বাড়ছে
ফেনীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদকবিক্রেতা নিহত
ছাগলনাইয়ায় ট্রাক-মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে নিহত ৬
যশোরে ভিজিএফ’র চাল পাচার রুখে দিলো জনতা
ব্যবসা গুটিয়ে নিচ্ছেন সিলেটের চামড়া ব্যবসায়ীরা!
কেরালার বন্যায় রেড অ্যালার্ট প্রত্যাহার, নিহত ২৪৫
পরোক্ষ ধূমপানে বাড়ে শিশুদের ফুসফুসজনিত রোগের ঝুঁকি 
মিশরে ইন্টারনেট নিয়ন্ত্রণে আইন অনুমোদন
তালা উপজেলা কৃষক দলের সভাপতি গ্রেফতার