১১ দিন কেউ দেখা করতে পারেনি খালেদার সঙ্গে 

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিএনপির সংবাদ সম্মেলনে দলের নেতাকর্মীরা/ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: গত ১১ দিন যাবত কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে পরিবারের সদস্য, আইনজীবী, দলের নেতাকর্মীদের দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

বুধবার (১১ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টায় নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের আশঙ্কা তাকে (খালেদা জিয়া) রাজনীতি ও নির্বাচন থেকে দূরে সরিয়ে রাখার ষড়যন্ত্র হচ্ছে। কারাবাস দীর্ঘায়িত করার জন্য একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে আটক রাখা হয়েছে। যদিও যে মামলায় তার সাজা হয়েছে সে মামলায় তিনি জামিনে আছেন। এখন তাকে অন্য যেসব মামলায় ট্রায়াল চলছে সেগুলোতে আটক রাখা হয়েছে।   

পরিবারের সদস্যরা খালেদা জিয়ার সঙ্গে গত ৩০ জুন-২০১৮ তারিখে সর্বশেষ দেখা করেছেন উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, কারা কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত আবেদন করলেও বিভিন্নভাবে তারা বিষয়টি এড়িয়ে যাচ্ছেন। গত ১০ দিনে কয়েক দফা চেষ্টা করেও পরিবারের সদস্য, আইনজীবী ও দলীয় নেতারা দেখা করতে পারেননি। 

জেল সুপারকে বললে তিনি বলেন, আইজিপ্রিজনকে বলতে। আইজিপ্রিজনকে বললে তিনি বলেন, মন্ত্রীকে বলেন। মন্ত্রীর কাছে গেলে তিনি বলেন, এক নম্বরের সম্মতি ছাড়া আমার পক্ষে কোনো কিছু করা সম্ভব নয়।
 
কারাবিধির ব্যাখ্যা দিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, কারাবিধি অনুযায়ী আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব, রাজনৈতিক সহকর্মী, আইনজীবী ও যুক্তিযুক্ত কারণে যে কোনো ব্যক্তি কারাগারে আটক ব্যক্তির সঙ্গে দেখা করতে পারেন। তাছাড়া খালেদা জিয়া এক নম্বর ডিভিশনপ্রাপ্ত বন্দি হিসেবে প্রতি সপ্তাহে একদিন করে মাসে চারবার পরিবার, আত্মীয়-স্বজন ও রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের সঙ্গে দেখা করতে পারেন।

‘যেখানে জেলসুপারই অথরিটি সেখানে কারাবিধি লঙ্ঘন করে সাক্ষাতের জন্য যদি দেশের এক নম্বর ব্যক্তির কাছে যেতে হয়, তাহলেতো আর এই দেশে কোনো কিছু অবশিষ্ট নেই।’ 

তিনি অবিলম্বে দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবি জানান।  

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সালাহ উদ্দিন আহমেদ, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সহ-দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু, বেলাল আহমেদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য রফিক সিকদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

বাংলাদেশ সময়: ১৩০১ ঘণ্টা, জুলাই ১১, ২০১৮
এমএইচ/এএ

যশোর বোর্ডে কোন জেলায় পাসের হার কত
নেইমারের উৎসাহে বার্সায় আর্থার!
কেন্দুয়ায় হুমায়ূন আহমেদের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত
সূচকের সঙ্গে বেড়েছে লেনদেন
কুমিল্লা বোর্ডে পাসের হার ৬৫.৪২ শতাংশ, এগিয়ে মেয়েরা
বগুড়ায় সেই ক্লিনিক সিলগালা
রাজশাহীতে জিপিএ-৫ এ ছেলেরা, পাসের হারে মেয়েরা এগিয়ে
উচ্চতর ডিগ্রির আসা জাগালো কারিগরির ৮৯ হাজার শিক্ষার্থী
পঞ্চগড়ে বিজিবির জুডো প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
২৫ হাজার হজযাত্রী সৌদি আরব গেছেন