বিএসএমএমইউতে ‘চিকিৎসা নেবেন না’ খালেদা

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া (ফাইল ফটো)

ঢাকা: কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে ‘চিকিৎসা নেবেন না’ বলে জানিয়েছেন দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব ও মুখপাত্র রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

রোববার (১০ জুন) বিকেলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এ কথা জানান।

শনিবার (৯ জুন) বিকেলে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে গিয়ে খালেদাকে দেখে বের হয়ে তার চার ব্যক্তিগত চিকিৎসক দাবি করেন, ‘গত ৫ জুন দুপুরে হঠাৎ করে দাঁড়ানো অবস্থা থেকে অজ্ঞান হয়ে পড়ে যান এবং ৫-৭ মিনিট অচেতন ছিলেন খালেদা জিয়া। ...একটা মাইল্ড ফর্মে স্ট্রোকের মতো হয়েছে।’

ওই চিকিৎসকরা জানান, খালেদার স্বাস্থ্য পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য তাকে কারাগারের বাইরে বিশেষায়িত একটি হাসপাতালে ভর্তি করতেও কর্তৃপক্ষের কাছে সুপারিশ করেছেন তারা।

এই প্রেক্ষিতে রোববার নিজের কার্যালয়ে সাংবাদিকের সঙ্গে আলাপকালে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, ‘খালেদা জিয়া অজ্ঞান হয়েছেন বলে যে কথা বলা হচ্ছে, সেটা ঠিক না। তিনি ঠিক দাঁড়ানো থেকে ঘুরে গিয়েছেন। তখন তাকে চকলেট খাইয়ে ঠিক করা হয়েছে।’

কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন রুহুল কবির রিজভী আহমেদ
পরে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা ‘মাইল্ড স্ট্রোক’র যে কথা বলছেন তা খালেদার শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে দেখা হবে। আজই তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নেওয়া হবে।’

সরকারের এই অবস্থানের প্রতিক্রিয়ায় রিজভী বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন অনেক আগে থেকেই ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে থাকেন। সেখানে  প্রয়োজনীয় আধুনিক যন্ত্রপাতি রয়েছে। সেজন্য তিনি ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। তাকে অবিলম্বে ইউনাইটেড হাসপাতালে তার পছন্দের চিকিৎসকদের মাধ্যমে চিকিৎসা দেওয়ারও দাবি জানাই।’

এর আগে রোববার সকাল সাড়ে ১১টায়ও সংবাদ সম্মেলন করেন রিজভী। শনিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল কারাগারে খালেদা জিয়ার পড়ে যাওয়ার কোনো বিষয়ে কারা কর্তৃপক্ষ অবগত নয় বলে যে মন্তব্য করেছেন তার জবাবে রিজভী বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা ও অসুস্থতা নিয়ে কতটা অবহেলা করা হচ্ছে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যে সেটা পরিষ্কার হয়ে গেল।

তিনি বলেন, ‘আমরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা যেসব সুপারিশ করছেন এমনকি আগেও সরকারি মেডিকেল বোর্ডের চিকিৎসকরা যেসব পরামর্শ দিয়েছিলেন সেগুলোও বাস্তবায়ন করা হয়নি। অবিলম্বে দেশনেত্রীকে বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসা না দিলে তার বড় ধরনের ক্ষতি হলে এর দায়-দায়িত্ব সরকারকেই বহন করতে হবে।’
 
তিনি ঈদের আগেই খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করে বলেন, ‘অতিদ্রুত ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করে ‘দেশনেত্রীকে’ চিকিৎসার সুযোগ দিন।’
 
তীব্র আন্দোলনের শপথ নিয়ে জাতীয়তাবাদী শক্তি অল্প সময়ের মধ্যেই রাজপথে ঝাঁপিয়ে পড়বে বলেও হুঁশিয়ারি দেন রিজভী।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৭১৩ ঘণ্টা, জুন ১০, ২০১৮
এমএইচ/এইচএ/

** ‘খালেদাকে আজই বিএসএমএমইউতে নেওয়া হবে’
** 
‘অজ্ঞান হননি, সুগার লেভেল কমেছিল খালেদার’

প্রবীণ সাংবাদিক মঈনুল আলম আর নেই
কমলনগরে শিশু ধর্ষককে ফেনী থেকে গ্রেফতার
নীলফামারীতে দুর্ঘটনায় নিহত ৯ জনের পরিবারকে সহায়তা
কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ
মাদারীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় বাসচালক নিহত 
মা-বাবার সঙ্গে বাঁধনহারা আনন্দে শিশুরা
ঈদের ছুটি শেষে জনস্রোত এখন কর্মস্থলমুখী 
বিএনপির গতিবিধি বুঝে জাপার সঙ্গে আ’লীগের আসন সমঝোতা
ত্রিপুরায় আবারো সাংবাদিকের ওপর হামলা
বলেশ্বরের বুকে জেগে ওঠা ‘বিহঙ্গ দ্বীপ’