ডিভিশনে যেসব সুবিধা পাবেন খালেদা

শরিফুল ইসলাম জুয়েল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি রয়েছেন বিএনপি প্রধান খালেদা জিয়া

পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে থেকে: অবশেষে কারাগারে জেলকোড অনুযায়ী ডিভিশন (সামাজিক মর্যাদা অনুযায়ী প্রাপ্য সুযোগ-সুবিধা) পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। এই ডিভিশন প্রাপ্তিতে এখন খালেদা জিয়া সাধারণ বন্দিদের চেয়ে অনেক বেশি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করবেন।

কারাগার সূত্র বলছে, জেলকোডের ৬১৭ ধারা অনুযায়ী খালেদা জিয়া সাবেক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রথম শ্রেণীর ডিভিশন পাবেন। এর ফলে তিনি সার্বক্ষণিক সঙ্গে রাখতে পারবেন ব্যক্তিগত পরিচারিকা। তার কক্ষে থাকবে অ্যাটাচড ফ্রেশরুম। 

তিনি পাবেন নিত্য প্রয়োজনীয় সাধারণ প্রসাধনী, সার্বিক নিরাপত্তা, সার্বক্ষণিক চিকিৎসা সেবা, সাধারণ বন্দিদের চেয়ে অতিরিক্ত খাবার। এছাড়া পরীক্ষা করার পর বাইরে থেকে আসা নিজের পছন্দের ফলমূল বা খাবারও পাবেন বিএনপি চেয়ারপারসন। 

সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী কারাগারে পাবেন একটি পত্রিকা পড়ার সুযোগ। এর বাইরে পত্রিকা পড়তে চাইলে নিজের খরচে কিনতে হবে। এছাড়া পাবেন টেলিভিশন দেখারও সুবিধা। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ টেলিভিশনেরই (বিটিভি) কথা আসছে সামনে।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার জাকির হোসেন ভুঁইয়া বাংলানিউজকে বলেন, খালেদা জিয়া যেহেতু সাবেক প্রধানমন্ত্রী, সেহেতু জেলকোড অনুযায়ী তিনি প্রথম শ্রেণীর ডিভিশন পাবেন। আর এ শ্রেণীর সুবিধায় খালেদার কক্ষ শীতাতপ নিয়ন্ত্রণযন্ত্রের (এসি) আওতায় থাকবে। 

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড এবং তার ছেলে ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ অপর পাঁচ আসামিকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

রায় ঘোষণার পরই সাবেক এ প্রধানমন্ত্রীকে নেওয়া হয় নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে। এরপর শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেন তার আইনজীবীরা। সাক্ষাৎ শেষে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, খালেদা জিয়াকে ডিভিশন দেওয়া হয়নি। তাকে সাধারণ কয়েদি হিসেবে রাখা হয়েছে। তিনি অসুস্থ হিসেবে তার সঙ্গে মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে যে গৃহকর্মী ফাতেমাকে রাখার কথা, তাকেও থাকতে দেওয়া হচ্ছে না।

এই প্রেক্ষিতে খালেদার ডিভিশন চেয়ে রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকালে আইনজীবী ব্যারিস্টার জাকির হোসেন ভুঁইয়া ও অ্যাডভোকেট আমিনুল ইসলাম ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতে আবেদন করেন। আবেদনের শুনানি শেষে সংশিষ্ট আদালতের বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান কারা কর্তৃপক্ষকে ডিভিশন দেওয়ার আদেশ দেন। 

এই আদেশের কপি বিকেলে কারাগারে গিয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দেন খালেদা জিয়ার ৯ আইনজীবী। যাদের মধ্যে ছিলেন বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া ও ব্যারিস্টার জাকির হোসেন ভুঁইয়াও।

কারাগার থেকে বেরিয়ে সানাউল্লাহ মিয়া সাংবাদিকদের বলেন, ‘জেলকোডের ৬১৭ ধারা অনুযায়ী খালেদা জিয়া ডিভিশন পাবেন। আমরা ডিআইজি প্রিজনের সঙ্গে দেখা করে আদালতের আদেশ পৌঁছে দিয়েছি। খালেদা জিয়া অসুস্থতার কারণে একা চলাফেরা করতে পারেন না, এজন্য আমরা তার সহযোগী রাখার আবেদন করেছিলাম। আদালত জেলকোড অনুযায়ী সে আদেশও দিয়েছেন। এখন ফাতেমাও থাকবেন খালেদা জিয়ার সঙ্গে।’

খালেদার আইনজীবীরা কারাফটক থেকে চলে যাওয়ার ঘণ্টাখানেক পর বিএনপি প্রধানকে ডিভিশন দেওয়ার কথা সাংবাদিকদের জানান কারা মহাপরিদর্শক (আইজি প্রিজন) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখারউদ্দীন।

বাংলাদেশ সময়: ২১২৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৮
এসআইজে/এইচএ/

আরও পড়ুন
** কারাগারে ডিভিশন পেলেন খালেদা
** ‘জেলকোড অনুযায়ী ডিভিশন পাবেন খালেদা, থাকবেন ফাতেমাও’
** খালেদার ডিভিশন: আদালতের আদেশ নিয়ে কারাগারে ৯ আইনজীবী
** ডিভিশনের আবেদন নিয়ে কারা সদর দপ্তরে খালেদার আইনজীবীরা
** খালেদাকে জেলকোড অনুযায়ী ডিভিশন দিতে আদালতের আদেশ 

গাজীপুরে ট্রেনের ছাদ থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার
কালকিনি পৌরসভার মেয়রকে কুপিয়ে জখম
ভূমিধসের হুমকিতে তেঁতুলিয়া!  
গাজীপুরে বাসচাপায় নারী শ্রমিক নিহত, বাসে আগুন
আইনমন্ত্রীর বড় বোন সায়মা ইসলাম আর নেই
সাতক্ষীরায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক বিক্রেতা নিহত 
আবারো তিন দিনে হার
ছাত্রলীগের হাতে মারধরের শিকার ঢাবির দুই শিক্ষার্থী 
১২৯ রানে ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্যাকেট, ব্যাটিং-এ বাংলাদেশ
বিরামপুরে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত