সায়েদাবাদে যাত্রীদের ভিড়, যানজট নেই রাস্তায় 

ইলিয়াস সরকার, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল

ঢাকা: ঈদের আগের দিন রাজধানীর সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল, মানিকনগর এলাকা থেকে চট্টগ্রাম বিভাগের সব জেলা ও সিলেটসহ ঢাকার পূর্ব দিকের জেলাগুলোর টিকিটধারী যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে। তবে যারা আগে টিকিট নেননি কিছুটা ভোগান্তিতে পড়েছেন তারা।

আগে টিকিট কাটা ড্রিম লাইন পরিবহনের দাগনভূঁইয়ার যাত্রী জহিরুল হক রতন বলেন, ১০টায় টিকিট নেওয়া ছিল। যথাসময়ে গাড়ি এসেছে। রাস্তায় তেমন যানজটও নেই।

অনেককে গাড়ির পেছনের দিকের সিট কিংবা চালকের পাশে ইঞ্জিনের ওপর বসে বাড়ি যেতে দেখা যায়।

আগে টিকিট না নেওয়া ফেনীর যাত্রী শাহাদাত হোসেন সরকার সুজন বলেন, ১১টা থেকে চেষ্টা করছি স্টার লাইন, ড্রিম লাইন, জোনাকি, হিমাচল, ঢাকা এক্সপ্রেস, একুশে, এনা, কে কে ট্রাভেলস পরিবহনের টিকিট নিতে। অনেক কষ্ট করে স্টার লাইনে পৌনে ২টার একটি টিকিট পেয়েছি। তাও পেছনের দিকে। তবে রাস্তায় যানজট নেই। আশা করছি তাড়াতাড়ি পৌঁছতে পারবো।

বাস চালকরা জানান, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে তেমন যানজট না থাকায় ফিরতি বাসগুলো দ্রুতই ঢাকায় ফিরছে। এতে সুবিধা ফিরতি ট্রিপে তেমন দেরি হচ্ছে না।

মঙ্গলবার সকালে ফেনী থেকে আসা স্টার লাইন পরিবহনের যাত্রী জান্নাত ফেবি বলেন, রাস্তায় কোনো যানজট নেই। একেবারে ফাঁকা। ঈদের আগের দিন এমন ফাঁকা রাস্তা কল্পনাতীত ছিল।

চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, সিলেট কিশোরগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া রোডে চলাচলকারী রয়েল, তিশা, শ্যামলী, ইউনিক ও সোহাগ পরিবহনের কাউন্টারেও যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৭ আগস্ট ২০, ২০১৮
ইএস/এএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: যানজট ঈদ ঈদুল আজহা
লোকাল বাস যাত্রার উদ্দেশ্য | তারানা হালিম
পেরেরাকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেললেন মিরাজ
২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার হোতা তারেক জিয়ার ফাঁসি দাবি
ধনঞ্জয়াকেও তুলে নিলেন মাশরাফি
১৪ দিন হোটেলে অবস্থান করে ব্যাগ রেখে ‘উধাও’ যুবক !
থারাঙ্গাকে বোল্ড করলেন মাশরাফি
আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব শুরু ১০ জানুয়ারি
মেন্ডিসকে তুলে নিলেন মোস্তাফিজ
নারীর উন্নয়নে বদলে যাচ্ছে জীবন ধারা
স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে খুন হয় চা বিক্রেতা মামুন