রঙতুলির আঁচড়ে শেখ হাসিনা

মহিউদ্দিন মাহমুদ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

রঙতুলিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফুটিয়ে তুলছেন এক চিত্রশিল্পী। ছবি: শাকিল আহমেদ

ঢাকা: দুরন্ত শৈশব থেকে বাঙালির অধিকার আদায়ের আন্দোলন ও স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে রাজপথ কিংবা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বিশ্বসভায়। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার জীবনের নানা অধ্যায়-ইতিহাস ফুটে উঠেছে শিল্পীর রঙতুলির আঁচড়ে। শেখ হাসিনাকে ভালোবেসে এমন ১৬টি ছবি আঁকছেন প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী হাশেম খানের নেতৃত্বে ১৬ জন।

দেশের উন্নয়ন ও অর্জনে অনন্য-অসাধারণ অবদান রাখায় শনিবার (২১ জুলাই) রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গণসংবর্ধনা দেওয়া হবে তিনবারের প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে। এ উপলক্ষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জনসভা প্যান্ডেলে আঁকা হচ্ছে বঙ্গবন্ধু কন্যার এই ছবিগুলো।

শেখ হাসিনাকে রঙতুলিতে ফুটিয়ে তোলার ব্যাপারে শিল্পী হাশেম খান বাংলানিউজকে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তির নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে এগিয়ে নিচ্ছেন, বিশ্বসভায় দেশকে যেভাবে সম্মানিত করছেন তা অতুলনীয়, অসাধারণ। আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর মেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভালোবেসে ছবিগুলো আঁকছি। 

শেখ হাসিনাকে ভালোবেসে এমন ১৬টি ছবি আঁকছেন হাশেম খানের নেতৃত্বে ১৬ জন
তার তত্ত্বাবধানে ১৬ জন শিল্পী তাদের পছন্দমতো ১৬টি ছবি আঁকছেন বলেও জানান হাশেম খান। তিনি বলেন, বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন প্রেক্ষাপটে প্রধানমন্ত্রীর ছবি আঁকা হচ্ছে।

স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ, স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়া, অস্ট্রেলিয়ায় ‘গ্লোবাল উইমেনস লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড’ এবং ভারতের কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডি-লিট ডিগ্রি অর্জনসহ উন্নয়ন ও অর্জনে অসাধারণ অবদান রাখায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এ সংবর্ধনা দেওয়ার আয়োজন করছে ক্ষমতাসীন দলটি।

এ উপলক্ষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটের পাশের দিকটায় নির্মাণ করা হয়েছে বিশাল মঞ্চ। আয়তাকার এ মঞ্চে প্রধানমন্ত্রীসহ গুরুত্বপূর্ণ অতিথিরা বসবেন। মূল মঞ্চের সামনে ছোট আরেকটা মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। সেখানে থাকবে সাংস্কৃতিক আয়োজন। সমাবেশ প্যান্ডেলটি কয়েকটি অংশে ভাগ করা। প্যান্ডেলের বিভিন্ন স্থানে স্থাপন করা হয়েছে প্রজেক্টর।

উদ্যান এলাকার পাশাপাশি রাজধানীর বিজয় সরণি, ফার্মগেট, কারওয়ান বাজার, শাহবাগ, পল্টন, বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ, জাতীয় সংসদ, ধানমন্ডি, শেরাটনসহ বিভিন্ন এলাকায় নানান ধরনের সাজসজ্জা করা হয়েছে। জাঁকজমকপূর্ণ সাজসজ্জার মধ্যে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পেয়েছে নৌকার প্রতিকৃতি।ভিন্ন এলাকায় নানান ধরনের সাজসজ্জা করা হয়েছে‘মাদার অব হিউম্যানিটি’, ‘গণতন্ত্রের মানস কন্যা’, ‘অনন্য প্রধানমন্ত্রী’সহ শেখ হাসিনার উদ্দেশে বিভিন্ন ধরনের প্রশংসাসূচক বাক্য লেখা প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন, ব্যানার শোভা পাচ্ছে সড়কজুড়ে। বিভিন্ন সময় পাওয়া পুরস্কারের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন বাণী লেখা প্ল্যাকার্ডেরও দেখা মিলছে। তুলে ধরে হয়েছে সরকারের নানা অর্জনের কথা।

শুক্রবার সকালে আওয়ামী লীগ নেতাদের নিয়ে সমাবেশস্থল সোহরাওয়ার্দী উদ্যান পরিদর্শনে এসে দলের সাধারণ সম্পাদক ও মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, মোটামুটি সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। বিকেলের মধ্যেই সাজসজ্জাসহ সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হবে।

ওবায়দুল কাদের আশা প্রকাশ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দিতে আয়োজিত জনসভায় ব্যাপক জনসমাগম হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০২ ঘণ্টা, জুলাই ২০, ২০১৮
এমইউএম/এইচএ/

হারিয়ে যাচ্ছে ‘হলদে-পা হরিয়াল’
আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশের সিরিজ জয়
শাহজালালে ৬ স্বর্ণেরবারসহ যাত্রী আটক
ছাগলনাইয়ায় মহিষের দখলে পশুরহাট
মৌলভীবাজারে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
সিলেটে চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা লক্ষাধিক পিস
শনিবার থেকে লঞ্চের স্পেশাল সার্ভিস
নাট্যকার সেলিম আল দীনের জন্ম
কোটার বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেলের মত চেয়েছে সরকার
কেরালায় বন্যায় ৩২৪ জনের মৃত্যু, আশ্রয় শিবিরে সোয়া ২ লাখ