১৪ চিনি কলে স্থাপিত হবে বর্জ্য পরিশোধনাগার

মফিজুল সাদিক, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মোট ১৪টি চিনিকলে স্থাপন করা হবে বর্জ্য পরিশোধনাগার

ঢাকা: চিনিকল এলাকায় মানুষ ও জীববৈচিত্র্যের স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ১৪ চিনিকলে স্থাপিত হবে বর্জ্য পরিশোধনাগার (এফ্লুয়েন্ট ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট বা ইটিপি)। যার উদ্দেশ্য হলো চিনিকল এলাকায় কৃষিকাজ, জলাশয় ও সেচের পানিকে কারখানার বর্জ্য থেকে রক্ষা। প্রকল্পে ৮৫ কোটি টাকা ব্যয় করবে বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন (বিএসএফআইসি)।

পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, সেতাবগঞ্জ (রংপুর), শ্যামপুর (রংপুর), জয়পুরহাট, রাজশাহী, নর্থবেঙ্গল, পাবনা, কুষ্টিয়া, কেরু অ্যান্ড  কোং (চুয়াডাঙ্গা), মোবারকগঞ্জ (ঝিনাইদহ), ফরিদপুর, ঝিল বাংলা (জামালপুর) ও রংপুর সুগার  মিলস লিমিটেডে বর্জ্য পরিশোধনাগারগুলো স্থাপন করা হবে। 
 
বিএসএফআইসি সূত্র জানায়, এরইমধ্যে প্রাথমিক কাজ শুরু হয়েছে। জুন ২০২০ সালের মধ্যেই ১৪ চিনিকলে ইটিপি স্থাপন করা হবে। ১৪টি চিনিকলে বর্জ্য পরিশোধনাগার প্রকল্পের আওতায় আনুষঙ্গিক কাজ বাস্তবায়ন করা হবে। যার মধ্যে রয়েছে ভূমি উন্নয়ন কাজ, ড্রেনেজ, অফিস ও ল্যাব ভবন নির্মাণ। এছাড়াও ফিলট্রেশন ট্যাংক, লেগুন, সেডিমেন্টেশন ট্যাংক ও অক্সিডাইজেশন চেম্বারও স্থাপন করা হবে চিনিকলগুলোতে।
 
বিভিন্ন কারণে বর্জ্য পরিশোধনাগার স্থাপন করতে যাচ্ছে বিএসএফআইসি। বর্তমানে সরকারি খাতের ১৪টি চিনিকলে বার্ষিক গড় উৎপাদনক্ষমতা ২ দশমিক ১০ লাখ মেট্রিক টন। চিনিকলগুলোতে চিনি উৎপাদনের পাশাপাশি উপজাত হিসেবে চিটাগুড়, প্রেসমাড ও ব্যাগাস উৎপাদিত হয়। এগুলো থেকে পরিবেশ দূষণকারী তরল বর্জ্য নির্গত হয়, যা অপরিশোধিত অবস্থায় নিকটবর্তী জমি বা জলাশয়ে জমা হয়। ফলে চিনিকল এলাকার জমি, জলাশয়, স্বাস্থ্য, কৃষি ও পরিবেশের অপূরণীয় ক্ষতি হয়।
 
বিএসএফআইসি সচিব হারেছ আলী বাংলানিউজকে বলেন, গড়ে প্রতি মেট্রিক টন চিনি উৎপাদনের পাশাপাশি ৩০ থেকে ৪০ হাজার লিটার বর্জ্য নির্গত হয় চিনিকলগুলোতে। এই বর্জ্য পরিবেশ ও জমির ক্ষতি করে। ১৪টি চিনিকলে বর্জ্য পরিশোধনাগার স্থাপিত হলে পরিবেশ ও জমির ফসল রক্ষা করা সম্ভব হবে। স্বাস্থ্যকর পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য সুন্দর করতেই ১৪টি চিনিকলে বর্জ্য পরিশোধনাগার স্থাপন করা হবে দ্রুত সময়ে।
 
বাংলাদেশ সময়: ঘণ্টা, মে ২১, ২০১৮
এমআইএস/জেডএস

পেনাল্টি থেকে গোলে এগিয়ে গেলো জাপান
বাগেরহাটে বজ্রপাতে গৃহবধূর মৃত্যু
বিশ্বকাপের প্রথম লালকার্ড পেলেন কলম্বিয়ার সানচেজ
রদ্রিগেজকে ছাড়াই জাপানের মুখোমুখি কলম্বিয়া
২৩ জুন আ'লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা
মাগুরায় ২৭৫ কৃষকের মধ্যে বীজ-সার বিতরণ
মেগা প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নের পর ১০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি
বেদখলে ২ লাখ ৬৮ হাজার একর বনভূমি
মৌলভীবাজারের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি
কলম্বিয়া-জাপান দ্বৈরথ