৬ জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৮

বাংলানিউজ টিম | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন জনাব আলী নামে এক মাদক বিক্রেতা। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: দেশজুড়ে চলমান মাদকবিরোধী অভিযানকালে ছয় জেলায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে মাদক বিক্রেতাদের এবং মাদক বিক্রেতাদের নিজেদের মধ্যে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আট জন নিহত হয়েছেন। এরমধ্যে যশোরে তিন এবং ঝিনাইদহ, চুয়াডাঙ্গা, রাজশাহী, টাঙ্গাইল ও নরসিংদীতে একজন করে নিহত হয়েছেন। 

রোববার (২০ মে) দিনগত রাত থেকে সোমবার (২১ মে) ভোর পর্যন্ত এসব ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়। নিহত সবাই মাদক বিক্রির সঙ্গে জড়িত বলে জানিয়েছেন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

বাংলানিউজের নরসিংদী ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট সাইফুল ইসলাম রুদ্র জানান, রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে জেলার ঘোড়াশাল পৌরসভার পলাশ থানায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ইমান আলী (৪৫) নামে এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন।

র‌্যাব জানায়, রাতে ইমান আলী ও তার সহযোগীরা মাদকের একটি বড় চালান নিয়ে যাচ্ছিলেন বলে খবর পেয়ে সেখানে র‍্যাব-১১ এর  একটি দল অভিযান চালায়। এসময় টের পেয়ে তারা র‍্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে র‍্যাবও পাল্টা গুলি চালালে তারা পিছু হটে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে ইমান আলীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তার বিরুদ্ধে থানায় ছয়টি মামলা রয়েছে।

টাঙ্গাইল ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট সুমন রায় জানান, দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে মাদকবিরোধী অভিযানকালে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আবুল কালাম আজাদ নামে এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন।

ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, ম্যাগজিন, তিন রাউন্ড গুলি, ১৫০০ পিস ইয়াবা এবং ১০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।

ঝিনাইদহ ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট রবিউল ইসলাম রবি জানান, জেলার কালিগঞ্জ-নলডাঙ্গা সড়কের সড়কের নরেন্দ্রপুর এলাকায় রাত দেড়টার দিকে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ছবদুল মন্ডল (৪৫) নামে এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন।

এসময় র‌্যাবের তিন সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে ১০০ বোতল ফেনসিডিল, ১৫০ পিস ইয়াবা, দুই রাউন্ড গুলি ও একটি নাইন এমএম পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট জিসান আহমেদ জানান, রাত পৌনে ১টার দিকে জীবননগর উপজেলার উথলী গ্রামের সন্যাসীতলা মাঠের মধ্যে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে জনাব আলী (৩২) নামে এক চিহ্নিত মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন।

এসময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি শটগান, দু’টি কার্তুজ, তিনটি রামদা এবং এক বস্তা ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় জীবননগর থানার তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এরা হলেন- সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মিলন হোসেন, কনস্টেবল ওয়ালিদ রহমান এবং কনস্টেবল জুয়েল।

বন্দুকযুদ্ধে নিহত জনাব আলীর বিরুদ্ধে জীবননগরসহ বিভিন্ন থানায় অন্তত ১১টি মাদক মামলা রয়েছে। 

রাজশাহীর সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট শরীফ সুমন জানান, রাজশাহীর বেলপুকুর থানাধীন ছোট জামিরা এলাকায় গভীর রাতে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ মাদক বিক্রেতা লিয়াকত নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, এক রাউন্ড তাজা গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।
 
যশোরের স্টাফ করেসপন্ডেন্ট উত্তম ঘোষ জানান, সোমবার ভোরের দিকে উপজেলার তরফ নওয়াপাড়া ও খোলাডাঙ্গা এলাকায় মাদক বিক্রেতাদের নিজেদের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছেন। খবর পেয়ে পৃথক ঘটনাস্থল থেকে নিহত তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রেখেছে পুলিশ।

দু’টি ঘটনাস্থল থেকেই অস্ত্র, গুলি, ইয়াবা ও ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।

সবগুলো ঘটনার তথ্য র‌্যাব ও পুলিশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ০৬১৫ ঘণ্টা, মে ২১, ২০১৮/আপডেট ১০০৬ ঘণ্টা
এসএইচ/আরএ/এইচএ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: বন্দুকযুদ্ধ
আর্জেন্টিনার একাদশে নেই ডি মারিয়া-রোহো!
মেসিকে আগলে রাখলেন কোচ সাম্পাওলি
আশুলিয়ায় ইউপি সদস্যের উপর হামলার অভিযোগ
বরগুনা ডিসি অফিসে অগ্নিকাণ্ডে সার্ভার স্টেশন পুড়ে ছাই
অষ্টগ্রামে মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় আহত শিশুর মৃত্যু
শেষ ষোল'র আশা বাঁচিয়ে রাখলো স্পেন
চকবাজারে মাদক সংশ্লিষ্টতায় ২০ জনের জেল
কস্তার গোলে অবশেষে স্পেনের লিড
বল দখলে প্রথমার্ধে স্পেনের দাপট কিন্তু…
জয় বাংলা পরিবারের ঈদ পূনর্মিলনী