চিকিৎসকদের অনুপস্থিতির ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে রিট

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

হাইকোর্ট/ফাইল ছবি

ঢাকা: চিকিৎসক, মেডিকেল স্টাফসহ তাদের সমিতির সব সদস্যকে অসুস্থ রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিতে ও দায়িত্বপালনের সময় কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকা থেকে বিরত রাখতে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে।

রোববার (১৫ জুলাই) বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আদেশের জন্য মঙ্গলবার দিন ধার্য করেছেন।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ড. বশির আহমেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মাসুদ হাসান চৌধুরী পরাগ। পরে মাসুদ হাসান চৌধুরী পরাগ বলেন, আদালত এই রিটের ওপর আদেশের জন্য মঙ্গলবার দিন রেখেছেন। 

হিউম্যান রাইটস লইয়ার্স অ্যান্ড সিকিউরিং এনভায়রনমেন্ট সোসাইটি অব বাংলাদেশের পক্ষে কোষাধক্ষ্য মো. শাহ আলম এ রিট দায়ের করেন। স্বাস্থ্য সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে রিটে বিবাদী করা হয়েছে।

আবেদনে দ্যা মেডিকেল প্র্যাকটিস অ্যান্ড প্রাইভেট ক্লিনিকস অ্যান্ড ল্যাবেরেটরিস (রেগুলেশন) অর্ডিন্যান্স, ১৯৮২ এর ১৪ ধারা কেন সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে।

ওই ধারায় বলা হয়েছে, ডিজি হেলথ অথবা তার মনোনীত কোনো কর্মকর্তার লিখিত অভিযোগ ছাড়া কোনো আদালত এ অধ্যাদেশের অধীন কোনো অপরাধ আমলে নিতে পারবেন না।

রিট আবেদনে ৩০ দিনের মধ্যে সব অনুমোদিত এবং অনুমোদনহীন প্রাইভেট হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনোস্টিক সেন্টারের যন্ত্রপাতিসহ তালিকা দাখিল, সব জেলা সদরের হাসপাতালে ৩০ বেডের আইসিউ/সিসিইউ স্থাপন, মেয়াদহীন ওষুধ ব্যবহারে প্রাইভেট হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনোস্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ এবং বিএসটিআই অনুমোদিত ওষুধ ও যন্ত্রপাতি ব্যবহারের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৫ ঘণ্টা, জুলাই ১৫, ২০১৮
ইএস/এসএইচ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: আদালত
মোহাম্মদপুরে ট্রাকের ধাক্কায় পাঠাও চালক নিহত
বঙ্গবন্ধু-প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি, যুবক গ্রেফতার 
পবিত্র হজ আজ, লাব্বাইক ধ্বনিতে মুখর হবে আরাফার ময়দান
জমিয়তুল ফালাহতে প্রধান ঈদ জামাত সকাল পৌনে ৮টায়
গোপালগঞ্জে পিকআপ ভ্যান নদীতে পড়ে যুবক নিহত 
লাইভে আসছেন ফারনাজ
কমলাপুরে জনস্রোত, সোমবারও ট্রেন ছাড়ছে দেরিতে 
যুক্তরাষ্ট্র ‘নিষেধাজ্ঞা আসক্ত’: ইরান
ঘরে ফিরতে যাত্রীদের গুণতে হচ্ছে বাড়তি ভাড়া
৬৫ বছর পর পুনর্মিলন হবে দুই কোরিয়ার বিচ্ছিন্ন পরিবারের