পিছিয়েছে খালেদার ১১ মামলার শুনানি 

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

খালেদা জিয়া/ফাইল ফটো

ঢাকা: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাষ্ট্রদ্রোহিতা ও নাশকতার ১১ মামলার শুনানি পিছিয়েছে।

মঙ্গলবার (১৫ মে) বকশিবাজারের অস্থায়ী আদালতে মামলাগুলোর শুনানি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের আবেদনক্রমে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা শুনানি পিছিয়ে আগামী ১ জুলাই দিন ধার্য করেছেন। 

২০১৫ সালের জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত সময়ে ঢাকার দারুসসালাম থানা এলাকায় নাশকতার অভিযোগে দায়ের করা ৮ মামলা, যাত্রবাড়ী থানার দুই মামলা ও একটি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা ওই আদালতে বিচারাধীন। 

২০১৬ সালের ২৫ জানুয়ারি ঢাকার সিএমএম আদালতে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলাটি দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদী।

গত বছরের ২১ ডিসেম্বর রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ মিলনায়তনে ‘মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশে’ খালেদা জিয়া বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক আছে। বলা হয়, এতো লাখ লোক শহীদ হয়েছেন। এটা নিয়েও অনেক বিতর্ক আছে’। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাম উল্লেখ না করে খালেদা জিয়া দাবি করেন, ‘তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা চাননি। তিনি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে চেয়েছিলেন। জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা না দিলে মুক্তিযুদ্ধ হতো না।’

এরপর ২৩ ডিসেম্বর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বক্তব্যে ‘দেশদ্রোহী’ মনোভাব পাওয়া যাচ্ছে অভিযোগ করে তা প্রত্যাহার করতে উকিল নোটিশ পাঠান সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক ড. মোমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদী। নোটিশের জবাব না পাওয়ায় তিনি এ মামলাটি দায়ের করেছিলেন। 

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৫ ঘণ্টা, মে ১৫, ২০১৮
এমআই/এএ  

ক্রেতা নেই সিলেটের পশুর হাটে!
পাটুরিয়া ফেরিঘাটে ছোট গাড়ির দীর্ঘ লাইন
গ্যাস সিলিন্ডারে ১৯০০ বোতল ফেনসিডিল, আটক ২
বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু
আসামের নাগরিক তালিকা বাতিলের আহ্বান
কামারশালার বাতাসে উড়ছে স্ফুলিঙ্গ
বাবা হলেন আমান রেজা
জিয়া পরিবারের মুখোশ উন্মোচন করাই সবার কর্তব্য
চট্টগ্রামে শিশুর মরদেহ উদ্ধার
দেশি গরুতে জমে উঠছে ঝালকাঠির পশুর হাট