বিনামূল্যে আইনি সহায়তায় শেখ সালাহ্উদ্দিন অ্যাসোসিয়েটস

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী শেখ সালাহ্‌উদ্দিন আহমেদ

ঢাকা: বাংলাদেশে প্রতিদিন কোথাও না কোথাও মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে। অসহায় নিপিড়ীত মানুষ স্বীকার হচ্ছে নির্যাতনের। সমাজের প্রতিটি স্তরে দুর্বলরা আরোও নির্যাতনের স্বীকার হয়ে দিন দিন কোণঠাসা হয়ে পড়ছে। সামাজিক ভাবে অনেক সময় নির্যাতিতদের পক্ষে বিচ্ছিন্নভাবে অনেককেই দাঁড়াতে দেখা যায়। কিন্তু এই প্রথম বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠিত একটি করপোরেট ল’ ফার্মকে দেখা গেল সরাসরি বিনামূল্যে আইনি সহায়তা দেয়ার জন্য এগিয়ে আসতে।

আমরা অনেকেই জানি যে শেখ সালাহ্‌উদ্দিন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস বাংলাদেশের নেতৃত্বস্থানীয় ও আন্তর্জাতিক সুনাম সম্পন্ন আইনি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে অন্যতম। অভিজ্ঞ অ্যাডভোকেট, ব্যারিস্টার ও সাবেক বিচারকদের সমন্বয়ে গঠিত প্রতিষ্ঠানটি আইন পেশায় ওয়ান স্টপ সার্ভিস দিয়ে আসছে। দেশি-বিদেশি বিভিন্ন মামলা পরিচালনার ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানটির সাফল্য ও কর্ম দক্ষতা সুধীজনের আলোচনার বিষয়বস্তুতে পরিণত হয়েছে।

Writ, Civil, Criminal, Company, Bank, Tax, ADR, Mortgage, Power of Attorney, Vetting ইত্যাদি আইনি জটিল বিষয়ে মামলা মোকদ্দমা পরিচালনার ক্ষেত্রে ফার্মটির রয়েছে বিশেষ সুনাম ও দ্ক্ষতা। প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে সাধারণ মানুষদের আইনি সহায়তা দিয়েও সমান্তরালে এগিয়ে যাচ্ছে।

আমরা অনেকেই মনে করি করপোরেট  ল’ ফার্মগুলো প্রতিষ্ঠিত হয়েছে মূলত বড় বড় ব্যবসায়ী ও করপোরেট হাউজগুলোকে মোটা পারিশ্রমিকের বিনিময়ে আইনগত সার্ভিস দিতে। 

শেখ সালাহ্উদ্দিন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস ঠিক তেমনি আইনজীবীদের নিয়ে গঠিত প্রতিষ্ঠান হলেও তারা অসহায় নিপীড়িত, সুবিধাবঞ্চিত ও নির্যাতিত মানুষদের সরাসরি পাশে দাঁড়ানোর একটি বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। চালু করেছে ফ্রি লিগ্যাল এইড সার্ভিস। বিষয়টি জানতে চাইলে ফার্মের কর্ণধার আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন কোম্পানি, ট্যাক্স ও অভিবাসন আইন বিশেষজ্ঞ এবং বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী শেখ সালাহ্‌উদ্দিন আহমেদ বলেন, আমার ফার্মের পক্ষ থেকে সারা বাংলাদেশে প্রকৃত গরীব, অসহায়, সুবিধাবঞ্চিত, নির্যাতিত, আইন দ্বারা উপেক্ষিত  সাধারণ মানুষদের বিনামূল্য শুধুমাত্র পরামর্শ নয় পুরো আইনি সহায়তা দেওয়া হবে। এই বিষয়ে আমি আমার অধীনস্ত সব অ্যাডভোকেট, ব্যারিস্টার, এটর্নি ও আইন পরামর্শকদের পক্ষ থেকে এই নিশ্চয়তা প্রদান করছি যে বিষয়টি নিম্ন আদালতের বিষয় হোক আর সর্বোচ্চ আদালতের এখতিয়ার সম্পন্ন হোক, নির্যাতিত মানুষটি বাংলাদেশের প্রচলিত আইনে প্রাপ্য প্রতিকার না পাওয়া পর্যন্ত শেখ সালাহ্উদ্দিন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস তার পাশে থাকবে‌।

শেখ সালাহ্উদ্দিন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটসের সিনিয়র পার্টনার ও হেড অফ চেম্বার শেখ সালাহ্ উদ্দিন আহমেদ শুধুমাত্র একজন খ্যতিমান আইনজীবী নয়। সমাজ সচেতন ব্যক্তি হিসেবে তাকে বিভিন্ন টিভি আলোচনার অনুষ্ঠানে সমসাময়িক ভাবনা, রাজনৈতিক, অর্থনীতি, সামাজিক অন্যায় অত্যাচার, ন্যায়বিচার, মানবাধিকার ইত্যাদি বিষয়ে সোচ্চার ভুমিকা রাখতে দেখা গেছে। দেশের বিদ্যমান জনপ্রিয় পত্রিকায় তিনি নিয়মিত লেখালিখির মাধ্যমে এই বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীল মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ, গণসচেতনতা ও প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে তাকে প্রতিবাদ করতেও  দেখা যায় এই বিষয়ে তিনি আরোও বলেন, আমি আমার পেশার অভিজ্ঞতা শুধুমাত্র করপোরেট হাউজগুলোর জন্য নয়, সমাজের সাধারণ মানুষদের জন্য বিলিয়ে দিবার জন্য প্রস্তুত আছি। মূলত আমরা আমাদের মক্কেল করপোরেট হাউজগুলোকে যে ভাবে প্রফেশনালী সার্ভিস প্রদান করি সেই একই মানে আমরা অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াবো। বিদেশি সাহায্য নির্ভর কিছু মানবাধিকার অরগানাইজেশনকে দেখা যায় দিবস ভিত্তিক কিছু সেমিনার ও সভা-সমাবেশ করতে। কিন্তু মাঠ পর্যায়ে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন কোন আইনি প্রতিষ্ঠান এই প্রথম এগিয়ে এলো কাজ করতে। কারা, কিভাবে এই সহায়তা পেতে পারে তা জানতে চাইলে শেখ সালাহ্উদ্দিন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটসের পক্ষ থেকে জানা যায়, আগের মতো প্রতিবছর একটি নির্দিষ্ট প্রজেক্টের আওতায় এ প্রক্রিয়া চলবে। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া।

শেখ সালাহ্উদ্দিন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটসের জন্য একটি পরিস্কার কাঠামো তৈরি করেছে।
 
প্রাথমিক আইনি সহায়তা:
আইনগত সহায়তা হলো আর্থিকভাবে অসচ্ছল, সহায় সম্বলহীন এবং নানাবিধ আর্থ-সামাজিক কারণে বিচার পাওয়ার ক্ষেত্রে অসমর্থ বিচারপ্রার্থীকে -
•        কোন আদালতে দায়ের যোগ্য, দায়ের হয়েছে বা বিচার চলছে এমন মামলায় আইনি পরামর্শ ও সহায়তা প্রদান;
•        আইনজীবীর ফিস বা মামলার প্রাসঙ্গিক খরচ প্রদান;
•        নিযুক্ত সালিশকারীকে সম্মানী প্রদান;
•        মামলার প্রাসঙ্গিক খরচ প্রদানসহ অন্য যে কোনো সহায়তা প্রদান;

কারা সহায়তা পাবার যোগ্য বলে বিবেচিত হবে:
•        আর্থিকভাবে অসচ্ছল যে কোন ব্যক্তি যাহার বার্ষিক গড় আয় ৫০,০০০ (পঞ্চাশ হাজার) টাকার ঊর্ধ্বে নয়;
•        কর্মক্ষম নন, আংশিক কর্মক্ষম, কর্মহীন বা বার্ষিক ৭৫,০০০ টাকার ঊর্ধ্বে আয় করতে অক্ষম এমন মুক্তিযোদ্ধা;
•        বয়স্ক ভাতা পাইতেছেন এমন কোনো ব্যক্তি;
•        ভি জি ডি কার্ডধারী দুস্থ মাতা;
•        পাচারের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত নারী বা শিশু;
•        দুর্বৃত্ত দ্বারা এসিড দগ্ধ নারী বা শিশু;
•        আদর্শ গ্রামে গৃহ বা ভূমি বরাদ্দ প্রাপক কোন ব্যক্তি;
•        অসচ্ছল বিধবা, স্বামী পরিত্যক্তা এবং দুঃস্থ মহিলা;
•        উপার্জনে অক্ষম এবং সহায় সম্বলহীন প্রতিবন্ধী;
•        আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে আদালতে অধিকার প্রতিষ্ঠা বা আত্মপক্ষ সমর্থন করিতে অসমর্থ ব্যক্তি;
•        বিনা বিচারে আটক এমন ব্যক্তি যিনি আত্মপক্ষ সমর্থন করার যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণে আর্থিকভাবে অসচ্ছল;
•        আদালত কর্তৃক আর্থিকভাবে অসহায় বা অসচ্ছল বলিয়া বিবেচিত ব্যক্তি;
•        জেল কর্তৃপক্ষ কর্তৃক আর্থিকভাবে অসহায় বা অসচ্ছল বলিয়া সুপারিশকৃত বা বিবেচিত কোন ব্যক্তি;
 
কী কী সেবা প্রদান করা হবে:
আইনগত সহায়তা হলো আর্থিকভাবে অসচ্ছল, সহায় সম্বলহীন এবং নানাবিধ আর্থ-সামাজিক কারণে বিচার পাওয়ার ক্ষেত্রে অসমর্থ বিচারপ্রার্থীকে -
•        আইনগত পরামর্শ প্রদান;
•        মামলা দায়ের ও পরিচালনা;

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০১৮
এসএইচ

গাছের সঙ্গে বাসের ধাক্কায় নিহত ১, আহত ১০
ইজতেমার দ্বিতীয় ধাপেও পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা
বিনিয়োগ বিষয়ে শেখ সালাহ্‌উদ্দিন অ্যাসোসিয়েটসের সেমিনার
প্রধানমন্ত্রীকে অন্তত ১৭ বার হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে
চ্যালেঞ্জিং স্কোরের পথে বাংলাদেশ
সাতক্ষীরায় ৬ শিবিরকর্মী আটক
দ্রুততম হাজারি রানের ক্লাবে এনামুল বিজয়
মা হচ্ছেন প্রীতি!
বিশ্ব ইজতেমা: দ্বিতীয় ধাপের জুমার নামাজেও লাখো মুসল্লি
টিকিট কেনার লাইনে বিশৃঙ্খলা, লাঠিচার্জ পুলিশের




Alexa