৬৫ বছর পরেও লেখা যাবে দলিল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

ঢাকা: দলিল লেখকদের ৬৫ বছরের বয়সসীমার পরে দলিল লেখা যাবে না, ২০০৩ সালের সরকারের এ সিদ্ধান্ত বিলুপ্তিতে অনুমোদন দিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

এখন নিবন্ধন অধিদফতর এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করবে বলে বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নিবন্ধন সনদ পাওয়ার জন্য ২০০৩ সালের আগে দলিল লেখকদের বয়সসীমা এবং শিক্ষাগত যোগ্যতার শর্ত ছিলো না। ২০০৩ সালে জারিকৃত এক পরিপত্রের মাধ্যমে তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উর্ত্তীণ এবং সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৬৫ বছরের শর্ত আরোপ করা হয়।

এতে করে ৬৫ বছরের পর অনেক দলিল লেখক বেকার হয়ে যায়। ফলে তারা ৬৫ বছরের সর্বোচ্চ বয়সসীমা বিলুপ্ত করার দাবি জানান। তাদের দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ২০১৭ সালের ৯ ডিসেম্বর বাংলাদেশ দলিল লেখক সমিতির কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় দলিল লেখকদের সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৬৫ বছর বিলুপ্তির ঘোষণা দেন। ওই ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে দলিল লেখকদের ৬৫ বছরের সর্বোচ্চ বয়সসীমা বিলুপ্তকরণ সংক্রান্ত নথিতে অনুমোদন দেন আইনমন্ত্রী।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৪, ২০১৮
ইএস/এএটি

মাগুরায় শেষ হলো ৯ দিনের রথযাত্রা
ব্রেক্সিটের পর বৃটেনের কাছে জিএসপি প্লাস চায় বাংলাদেশ
নভোএয়ারের ফ্লাইটে ঢাকার পথে মাহমুদুর রহমান 
বিএনপি নেতার অডিও তথ্যপ্রযুক্তির কারসাজি: বুলবুল
এজেন্টকে মারধরের অভিযোগ বিসিসি কাউন্সিলর প্রার্থীর
নরসিংদীতে উল্টো রথযাত্রা
বৃষ্টির বাগড়ায় আপাতত বন্ধ বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ
জেল সুপারকে সশরীরে হাজিরের নির্দেশ আদালতের
বিনিয়োগ আনতে জাপান গেলেন বাণিজ্যমন্ত্রী
সৈয়দপুরে টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন