রহস্য দ্বীপ (পর্ব-৫৮)

মূল: এনিড ব্লাইটন; ভাষান্তর: সোহরাব সুমন | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

রহস্য দ্বীপ

দিন যতই গড়ায় নোরা আরও বেশি নিরানন্দ হতে থাকে। তার মনে হয় মুরগিগুলো পাওয়া না গেলে সে সত্যিই কাউকে আর মুখ দেখাতে পারবে না। সে ওখানকার লম্বা ফার্নের মাঝে লুকাবার মতো একটা গর্ত বানায় এবং গুঁটিশুটি মেরে সেখানে বসে, অন্যদের খাবার খেতে ক্যাম্পে ফিরে যাওয়া দেখে। ওদের চা খাওয়া হয়নি এবং সবাই খুব তৃষ্ণার্ত আর ক্ষুধার্ত। তাই ওদের সঙ্গে যোগ দেওয়া ছাড়া নোরার আর কোনো উপায় নেই!

না এখনও প্রচণ্ড রেগে অস্থির হয়ে থাকা মাইক, জ্যাক আর পেগির সঙ্গে গিয়ে বসার চেয়ে সে বরং এখানেই থাকুক না, পুরোপুরি একাকী। 
‘তাহলে, মুরগিগুলো কোথায় গেলো!’ পাহাড় থেকে নেমে সৈকতে জ্যাকের সঙ্গে দেখা হতেই, মাইক বলে। 
অবাক হচ্ছি, জ্যাক বলে। ওরা তো আর দ্বীপ থেকে উড়ে চলে যেতে পারবে না!
আমার একে ভীতিকর বলে মনে হচ্ছে, পেগি বলে; ওদের ডিম খুব মজা করে খাওয়া যেত।

নোরা একা একা ফার্নের মাঝে বসে থাকে। তার মনে হচ্ছে রাতে তাকে এখানেই ঘুমাতে হবে। ভাবে সে বুঝি আর কখনই ভাবনামুক্ত সুখী হতে পারবে না।
পেগি বানানো ভাতের পুডিং ভাগ করে, কোকা বানাতে শুরু করলে, অন্যেরা আগুনের পাশে এসে বসে। নোরা কোথায় ভেবে সবাই অবাক হয়। 
‘আশা করছি, ও খুবশিগগিরই চলে আসবে, পেগি বলে। 

ওরা চুপচাপ খাবার খায় আর তার পরপরই- ওহ্ কী সুন্দর একটা শব্দ ওদের কানে এসে আঘাত করে! হুম, এই তো কক্ কক্! এবং ছয়টা মুরগি সোজাসুজি সৈকতের দিকে হেঁটে আসে! বাচ্চারা অনেকক্ষণ ধরে সেদিকে তাকিয়ে থাকে! তাকিয়েই থাকে! 
তোমরা কোথায় গিয়েছিলে, পাজি কোথাকার? জ্যাক চেঁচায়। আমরা তোমাদের সব জায়গায় খুঁজে দেখেছি!
“কক্ কক্, কক্ কক্!” মুরগিগুলো ডাকে।

এখন তোমাদের খাবার সময় হয়েছে এটা তোমাদের জানা, তাই খেতে এসেছ! জ্যাক বলে। আমি বলছি, সবাই শোনো! প্রতিদিন এভাবে ওদের ছেড়ে দিলে ওফ না সেটা পারা যাবে না- ওরা তাহলে দূরে গিয়ে ডিম পেড়ে আসবে আর আমরা কখনই ওগুলো খুঁজে পাবো না!
আমি ওদের খাওয়াচ্ছি, পেগি বলে। সে ওদের দিকে সামান্য ভুট্টা ছুড়ে দেয় এবং ওরা খুব আগ্রহ নিয়ে ঠুকরে খায়। তারপর নিজেদের, মাইক আর জ্যাককে মেরামত করা উঠানে রেখে আসতে দেয় এবং ওরা সেখানকার এক কোণার দিকে খাঁচার ভেতর মনের আনন্দে বিশ্রাম নিতে থাকে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৭
এএ

২০-২১ জুলাই খাগড়াছড়িতে সাংস্কৃতিক উৎসব
যেসব স্থান ভ্রমণ না করলে জীবনটাই বৃথা! (পর্ব-৩)
রাজশাহীতে ফুটপাত ছাড়া আর একটি রাস্তাও নির্মাণ হবে না
অবসাদ দূর করবে চকোলেট মিল্ক
বগুড়ায় ভুল চিকিৎসায় স্কুলছাত্রের মৃত্যুর অভিযোগ
শেষ সময়ে লটারি টিকিট কিনে বাজিমাত!
প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের ড্র
ভারতে ১৩ বছর জেল খেটে দেশে শাহাজান
তাড়াইল উপজেলা চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন কাঞ্চন আর নেই
শুধু পানি খেয়ে গুহায় ১০ দিন পার করেছি